ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

রবিবার অংশ নেবে রিয়াদ সিজনে বাংলাদেশ।

সংবাদদাতা, সৌদি আরব থেকে

প্রকাশিত: ১১:২৬, ২ ডিসেম্বর ২০২৩

রবিবার অংশ নেবে রিয়াদ সিজনে বাংলাদেশ।

রিয়াদ সিজনের কর্তৃপক্ষসহ  অন্যরা

রাজধানী রিয়াদে আল সাউদি পার্কের গ্রীনরুমে রিয়াদ সিজনে আগামীকাল অংশ নিবে বাংলাদেশ। এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে প্রস্তুতি সভা করেন জনকণ্ঠের সৌদি আরব প্রতিনিধি এস এইচ, হেমায়েতের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের কমিটি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রিয়াদ সিজনের সি ইউ মিস্টার জিয়া, প্রজেক্ট ম্যানেজার মিসেস ফারহা, মিডিয়া কমিটির প্রধান সৌদি নাগরিক রাজা, রিয়াদ সিজন বাংলাদেশি ইভেন্ট উপস্থাপনার দায়িত্ব পাওয়া সুমাইয়া, প্রবাস বাংলা ব্যান্ডের প্রধান ইউসুফ, ও প্রবাস বাংলা ব্যান্ডের প্রধান ভোকাল ইমরান।

বাংলাদেশি মিডিয়া কর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যমুনা টেলিভিশনের সৌদি আরব প্রতিনিধি সেলিম উদ্দিন দিদার, বাংলা টিভির রিয়াদ প্রতিনিধি একে আজাদ লিটন, এস এ টিভি'র রিয়াদ প্রতিনিধি ফকির হাকিম, আবু বক্কার, ও সাকিব সহ আরো অনেকে।

পরে রিয়াদ সিজনের সি ইউ মিস্টার জিয়া সাংবাদিকদের বলেন, আগামীকাল রবিবার থেকে রিয়াদ সিজনে অংশ নিবে বাংলাদেশ। তিনি আরো বলেন রিয়াদ সিজনে অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট নিয়ে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

অন্য অন্য দেশের তুলনায় আমরা বাংলাদেশিদেরকে বেশি সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকি, রিয়াদ সিজনের বাংলাদেশীদের জন্য রয়েছে বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা। পরে তিনি রিয়াদে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের কে রিয়াদ সিজনে অংশগ্রহণ করতে আহ্বান জানান।

পরে মিসেস ফারহা সাংবাদিকদের জানান, এটি রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে গড়া বার্ষিক বিনোদন ও ক্রীড়া উৎসব রিয়াদ সিজন। ২০১৯ সালে এটি চালু হয়েছিল। ২০২২ সালে রিয়াদ সিজন তার তৃতীয় সংস্করণের পরে প্রথম দুই মাসের মধ্যে ৫ মিলিয়নের বেশি দর্শককের মন আকৃষ্ট করেছিলেন৷ 

২০২৩ সালের হিসাবে অনুযায়ী রিয়াদ সিজন গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নিজেদের  জায়গা করে নেন। সেই ধারাবাহিকতায় ২০২৩ সালে বিভিন্ন দেশের কৃষ্টি, কালচার, সংস্কৃতি সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিতে ও পুরনো দিনের সৃতি অনুসরণ এবং বিভিন্ন নামীদামী শিল্পদের নিয়ে সৌদি আরব রিয়াদে আস সুয়েদি পার্কে শুরু হয়েছে রিয়াদ সিজন। 

বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া, সুদান,ও নেপালের বিভিন্ন  শিল্পীরা এখানে অংশগ্রহ করেছেন। প্রত্যেক দেশকে এক সপ্তাহ করে সময় দেয়া হয়েছে এবং তারা তাদের দেশের সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, পোষাক, ছবি আকা ইত্যাদি তুলে ধরেছেন।এই প্রদর্শনী দেখতে প্রতিটি দেশের নাগরিকই বিনা টিকেটে এখানে প্রবেশ  করতে পারছে।

আল সুয়েদি পার্ক প্রতিদিন বিকাল ৪ টা থেকে মধ্য রাত অবদি খোলা থাকছে। আজকে শেষ হচ্ছে পাকিস্তানি ইভেন্ট।  আগামীকাল রবিবার থেকে শুরু হবে বাংলাদেশি ইভেন্ট, চলবে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এতে বাংলাদেশিদের সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে সেখানে থাকবে জনপ্রিয় শিল্পী ইমরান মাহমাদুল এবং মহুয়া মুন সহ আরও অনেকে।

 এসআর

×