ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০

রুয়েটে প্রতিযোগিতা হাবিপ্রবির ‘টেক টাইটানস’ চ্যাম্পিয়ন

মুরাদ হোসেন

প্রকাশিত: ০১:২৬, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩

রুয়েটে প্রতিযোগিতা হাবিপ্রবির ‘টেক টাইটানস’ চ্যাম্পিয়ন

রুয়েটে প্রতিযোগিতা হাবিপ্রবির ‘টেক টাইটানস’ চ্যাম্পিয়ন

ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) ডে উপলক্ষে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) আয়োজিত প্রজেক্ট প্রদর্শনী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম ‘এইচএসটিইউ টেক টাইটানস’।
শনিবার (২ ডিসেম্বর) রুয়েটের ইইই বিভাগ আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়। আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় প্রজেক্ট প্রদর্শনী প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৪৭টি টিম অংশ নেয়। প্রতিযোগিতায় হাবিপ্রবির টিম টেক টাইটানসের হয়ে অংশ নেয় ইসিই ২১ ব্যাচের শিক্ষার্থী ইরফান নাভিল, ফারিয়া গুলশান ও মুক্তি খান। তাদের প্রজেক্টের নাম ছিল ঝঁসু.অষ
দলটির প্রতিযোগীরা জানান, আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স বেজড আর্টিকেল সামারাইজার এ প্রজেক্টে একটি ওয়েবসাইটের ইউআরএল লিংক এই ঝধধং (ঝড়ভঃধিৎব ধং ধ ঝবৎারপব) এ দিলে তা সামারাইজ করে দেয়। সাধারণত চ্যাটজিপিটি অথবা অন্য কোনো এআই চ্যাটবট কোনো ইউআরএল ব্যবহার করে তার ওয়েবপেজে থাকা ওপেন সোর্স আর্টিকেলকে সামারাইজ করতে পারে না। তবে তাদের উদ্ভাবিত প্রজেক্টের মাধ্যমে এ জাতীয় সমস্যার সমাধান করতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানান তারা।
প্রতিযোগীরা আরও জানান, তাদের এই এআই সফটওয়্যার এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে- শিক্ষক, ছাত্র, গবেষকদের রিসার্চের কাজে সহায়ক হিসেবে কাজ করা। সাধারণত রিসার্চ করার আগে যে কোনো একটি বিষয়ের উপর অনেক আর্টিকেল পড়তে হয়। কিন্তু এই ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের যুগে মেটা ডেটা এক্সট্র্যাকশনের কারণে অনলাইনে অপ্রয়োজনীয় অসংখ্যক ডাটা থাকে যা মূলত ক্লিক বাইটিং ট্র্যাপ। যা আমাদের রিসার্চে পার্থক্য ক্রিয়েট করে। এই সফটওয়্যারটি সব সময় মূল উপাত্তটি দেয়। ধারণা করা হচ্ছে- এই প্রতি আর্টিকেলে ৬ মিনিট করে সময় সাশ্রয় হয়। যা রিসার্চের ক্ষেত্রে ইফিসিয়েন্সি বাড়িয়ে দেয়।
প্রতিযোগী ইরফান বলেন, আমরা আমাদের বিভাগ ও ক্লাবের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আসলে জটঊঞ এর ঊঊঊ উধু তে নিজের ইউনিভার্সিটিকে প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে অনেক ভালো লাগছে। 
টিম সদস্য মুক্তি খান বলেন, এই প্রথম ক্যাম্পাসের বাইরে প্রজেক্ট নিয়ে কোনো প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা। পুরস্কার জিতে যাব আশা ছিল কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হব এটা ভাবিনি। খুশি এবং ভালোলাগার সঙ্গে অনেক অভিজ্ঞতার সঞ্চয় হয়েছে যা আমাকে পরবর্তী কাজের অনুপ্রেরণা যোগাবে। টিমের আরেক সদস্য ফারিয়া গুলশান বলেন, নিজের ক্যাম্পাসকে  রিপ্রেজেন্ট করতে ভালো লাগছিল। প্রায় দেড় মাসের পরিশ্রমের ফল। এ ধরনের প্রতিযোগিতা আমাদের অভিজ্ঞতা বাড়ায়।

×