ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১

‘স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে বস্ত্রশিল্প দেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে’

প্রকাশিত: ২০:১৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩; আপডেট: ২০:১৭, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

‘স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে বস্ত্রশিল্প দেশের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে’

আইইবি’র প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. মো. আব্দুস সবুর।

আগামীর বিশ্বে টিকে থাকলে হলে প্রকৌশলীরা সুকৌশলী হতে হবে। আধুনিক ও যুগোপযোগী প্রযুক্তি ব্যবহার করে চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করতে হবে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি হলো বস্ত্র শিল্প। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে বস্ত্রশিল্প গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। 

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)'র বস্ত্র কৌশল বিভাগের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশে ম্যান মেইড ফাইবার (এমএমএফ) উৎপাদনের সুযোগ - প্রযুক্তি চ্যালেঞ্জ এবং লিঙ্কিং অ্যাকাডেমিয়া’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইইবির প্রেসিডেন্ট ইঞ্জি. মো. আবদুস সবুর এসব কথা বলেন।  

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইইবি'র প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জি. মো. আব্দুস সবুর বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার কাছেই আমাদের অর্থনীতি, রাজনীতি ও সমাজনীতি অনেক নিরাপদ।  আগামী নির্বাচন অনেক চ্যালেঞ্জিং হবে। সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে বস্ত্রশিল্পের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সরকারের ধারাবাহিকতা দরকার।’

তিনি বলেন, ‘বস্ত্রশিল্প নিয়ে সরকার অনেক সচেতন। এই শিল্পকে বিকশিত করতে আরও গবেষণা করতে প্রকৌশলীরা এগিয়ে আসবেন। দেশের মোট রপ্তানি আয়ের প্রায় ৮৩ শতাংশ অর্জিত হয় তৈরি পোশাক রপ্তানি থেকে। সময়ের পরিক্রমায় প্রতিযোগিতার বাজারে ঠিকে থাকতে হলে প্রতিনিয়ত প্রযুক্তির সাথে খাপ খাইয়ে চলতে হয়।’

আইইবির সাধারণ সম্পাদক স্বাগত বক্তব্যে ইঞ্জি. এস. এম. মঞ্জুরুল হক মঞ্জু বলেন, ‘বস্ত্র খাতের নতুন এ বাজার ধরতে এখনই কটনের পাশাপাশি নন-কটনের তৈরি পণ্য রপ্তানিতে জোর দিতে হবে। এ জন্য সরকারের নীতি-সুবিধাসহ এসব রপ্তানী পণ্যের প্রণোদনার প্রয়োজন। তাহলে খুব সহজেই এ বাজারে প্রবেশ করা যাবে। এতে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে, বিনিয়োগও বাড়বে।’

আইইবির টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের চেয়ারম্যান ইঞ্জি. মোহাম্মদ আসাদ হোসেনের সভাপতিত্বে সম্পাদক ইঞ্জি. মোহাম্মদ ওয়ালিউল ইসলামের সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থান করেন বুটেক্সের সহকারী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন। 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন আইটিইটির সভাপতি ইঞ্জি. মো. শফিকুর রহমান (সিআইপি), বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়(বুটেক্স)'র উপাচার্য অধ্যাপক ডঃ শাহ আলীমুজ্জামান বেলাল, আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জি. মো. নুরুজ্জামান, ইঞ্জি. খন্দকার মঞ্জুর মোর্শেদ, ইঞ্জি. মোঃ শাহাদাত হোসেন (শিবলু), পিইঞ্জ., আইইবির টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ইঞ্জি. মো. মাসুদুর রহমান। 

সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন আইইবির সহকারী সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জি. আবুল কালাম হাজারী, ইঞ্জি. অমিত কুমার চক্রবর্তী,  ইঞ্জি. মো. রনক আহসান, ঢাকা সেন্টারের সম্পাদক ইঞ্জি. মো. নজরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান ইঞ্জি. শেখ মাসুম কামাল, আইইবির কৃষি কৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান ইঞ্জি. মেছবাহুজামান চন্দনসহ আইইবির নেতৃবৃন্দ।

 

এম হাসান

×