ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

বিদেশ

বিশ্বব্যাপী বাড়ছে খাদ্যপণ্যের দাম, সংকটের আশংকা জাতিসংঘের

প্রকাশিত: ২০:৩২, ১৯ মে ২০২২

বিশ্বব্যাপী বাড়ছে খাদ্যপণ্যের দাম, সংকটের আশংকা জাতিসংঘের

অনলাইন ডেস্ক ॥ জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে সামনের মাসগুলোতে বিশ্বব্যাপী খাদ্য সংকট হতে পারে। জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় দরিদ্র দেশগুলোতে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা ভয়াবহ পর্যায়ে চলে গেছে। এছাড়া সৃষ্টি হচ্ছে নানা ধরনের বির্পযয়। তিনি আরও বলেছেন, শেষ পর্যন্ত ইউক্রেন থেকে রফতানি স্বাভাবিক না হলে বিশ্ব দুর্ভিক্ষের মুখোমুখি হতে পারে। বর্তমানে রাশিয়ার হামলার কারণে ইউক্রেনের বন্দরগুলো দিয়ে খাদ্য সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। অথচ এসব বন্দর দিয়ে বিপুল পরিমাণ সূর্যমুখী তেল, গম ও ভুট্টা রফতানি হতো। রফতানি বন্ধ হওয়ায় এখন বৈশ্বিক সরবরাহ ব্যাপক হারে কমেছে। এর ফলে বিশ্বব্যাপী এসব পণ্যের দাম দিন দিন বাড়ছেই। জাতিসংঘের হিসেবে গত বছরের তুলনায় এ বছর খাদ্যপণ্যের দাম ইতোমধ্যেই সারাবিশ্বে ৩০ শতাংশ বেড়েছে। নিউইয়র্কে গত বুধবার (১৮ মে) গুতেরেস বলেন, খাদ্য সংকটের কারণে কোটি কোটি মানুষ অপুষ্টি, ক্ষুধা ও দুর্ভিক্ষের মুখে পড়তে পারে। যদি এ সংকটের সুরাহা না হয়, তাহলে সামনের দিনগুলোতে বৈশ্বিক খাদ্য সংকট প্রকট হতে পারে। তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনের খাদ্যশস্য স্বাভাবিক পর্যায়ে আনা ছাড়া খাদ্য সংকটের কার্যকর কোন সমাধান নেই। ইউক্রেনের খাদ্য রফতানি স্বাভাবিক পর্যায়ে না এলে দুর্ভিক্ষের আশংকা করা হচ্ছে। জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, রাশিয়া, ইউক্রেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে তার যোগাযোগ আছে। যাতে করে খাদ্য রফতানি স্বাভাবিক পর্যায়ে নিয়ে আসা যায়। রাশিয়া ও ইউক্রেন বিশ্বের যত গম উৎপন্ন হয় তার ত্রিশ ভাগ উৎপাদন করে। যুদ্ধের আগে ইউক্রেন ৪৫ মিলিয়ন টন খাদ্য শস্য প্রতি মাসে রফতানি করতো। কিন্তু রাশিয়ার যুদ্ধের পর সব রফতানি বন্ধ হয়ে গেছে। জাতিসংঘের হিসেবে ২০ মিলিয়ন টন ভুট্টা এখনো সেখানে আটকা পড়ে আছে। সূত্র: বিবিসি

শীর্ষ সংবাদ:

১৫ লাখ টন আসছে ॥ স্থিতিশীল হবে চালের বাজার
তৃণমূলের কর্মীরাই আওয়ামী লীগের শক্তি ॥ শেখ হাসিনা
২৮ হাজার টিকেটের জন্য লাখ লাখ মানুষের ভিড়
সিলেট বিভাগে ৬৩ লাখ মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত
সড়ক দুর্ঘটনায় জুনে ৫২৪ জন নিহত
পশুবাহী গাড়িতে চাঁদা দাবির অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা
১২ খালের সংস্কার কাজ সম্পন্ন করেছে সেনাবাহিনী
ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন : রাষ্ট্রপতি
হাওড়কে রক্ষা করার জন্য সব করা হবে : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী
প্রেসক্লাবে নিজের শরীরে আগুন দিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা
আড়াই লাখ টন চাল আমদানির অনুমতি পাচ্ছে আরও ১২৫ প্রতিষ্ঠান
ঈদ যা্ত্রায় বাড়ি যেতে ডিএমপি’র ১২ নির্দেশনা
টুঙ্গিপাড়া থেকে ২ ঘণ্টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী
ডেসটিনির রফিকুলের আপিল গ্রহণ, ২০০ কোটি টাকা দণ্ড স্থগিত
সদরঘাটের চিরচেনা সেই ব্যস্ততা আর নেই
করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু
এদেশের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার প্রধান অন্তরায় বিএনপি
মেয়াদোত্তীর্ণ রেপিড টেস্ট ডিভাইস দিয়ে কোভিড-১৯ পরীক্ষা
গ্যাস সংকটে কমেছে বিদ্যুৎ উৎপাদন, বেড়েছে লোডশেডিং
ঢাবির ক ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা ৯০ শতাংশই ফেল
৩ দিনের মধ্যে সারাদেশে বাড়বে বৃষ্টি
সৌদি আরবে আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু
বিশ্বরেকর্ড গড়লেন সাকিব