ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

বাংলাদেশ

নওগাঁয় মুচলেকা দিয়ে মুক্ত হলেন তিন কপোত-কপোতি

প্রকাশিত: ১৮:০৪, ১৭ মে ২০২২

নওগাঁয় মুচলেকা দিয়ে মুক্ত হলেন তিন কপোত-কপোতি

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ॥ নওগাঁয় পুলিশের কাছে মুচলেকা দিয়ে মুক্তি পেলেন রাণীনগর উপজেলার সাবেক প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মজনুর রহমান, ব্যাংকার শাহাজাহান কবির ও শিক্ষিকা মাহমুদা ইমাম (সেতু) নামে তিন কপোত- কপোতি। সম্প্রতি এই ঘটনা নওগাঁয় এক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। গোপন সূত্রে জানা গেছে, নওগাঁ শহরের বাসিন্দা মাহমুদা ইমাম (সেতু)। পেশায় তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। প্রায় ১০-১২বছর আগে তার প্রথম বিয়ে হয় রাণীনগর উপজেলার এক ব্যক্তির সঙ্গে। সেই ঘরে জন্ম নেয় ৩ সন্তান। বেশ কয়েক বছর আগে সেতু চাকুরি করতেন রাণীনগরে। সেই সূত্রে তৎকালীন সময়ে রাণীনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন মজনুর রহমান। তার সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে সেতুর। এই বিষয়টি সেতুর স্বামী জানতে পারলে অনেক নাটকীয়তার পর তাদের মাঝে বিচ্ছেদ হয়। এরপর সেতু ও মজনুর গোপনে বিয়ে করে। কিন্তু মজনুর প্রথম স্ত্রী ও তার পরিবারের চাপে সেতুকে তালাক দেয় মজনুর। এরপর সেতুর বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তি সান্তাহার শহরের এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে। সেখানে সংসার চলাকালীন সময়ে আবারো নওগাঁয় কর্মরত ব্যাংকার শাহাজাহানের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের সৃষ্টি হয় সেতুর। পরবর্তি সময়ে সান্তাহারের ওই ব্যবসায়ী স্বামীর কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অলংকার ও টাকা হাতিয়ে নিয়ে সেতু তাকে স্বামী তালাক দেয়। এর মাঝে সেতু আবার মজনুর সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ গড়ে তোলে। কিন্তু মজনুর এক ব্যাংকারের সঙ্গে সেতুর সম্পর্কের কথা জানতেন না। তারই ধারাবাহিকতায় চলতি সপ্তাহের শুরুর দিকে শহরের পাটালীর মোড়ের বাসায় সেতু প্রথমে ব্যাংকারকে নিয়ে আসে রাত্রিযাপন করার সময় ভুল করে একদিন আগেই চলে আসেন আরেক প্রেমিক মজনুর রহমান। এরপর মজনুর বিষয়টি জানতে পেরে সেতু ও ব্যাংকারের সঙ্গে কথাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সেতু মজনুরকে ব্লাকমেইল করে মুক্তিপন দাবি করে। মজনুর বিষয়টি তার স্ত্রীকে জানালে স্ত্রী সঙ্গে সঙ্গে সদর থানা পুলিশকে বিষয়টি জানায়। এরপর পুলিশ ওই তিনজনকে উদ্ধার করে তাদের পরিবারের লোকজনের উপস্থিতিতে মুচলেখা নিয়ে তাদেরকে ছেড়ে দেয়। এই রকম শত ব্লাকমেইল করার ইতিহাস রয়েছে শিক্ষিকা সেতুর বিরুদ্ধে। সদর থানার অফিসার ইনচার্জ নজরুল ইসলাম জুয়েল মুঠোফোনে জানান, ওই মেয়ের পক্ষ থেকে কিংবা অন্য কারো পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না পাওয়ায় সবার কাছ থেকে মুচলেখা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:

১৫ লাখ টন আসছে ॥ স্থিতিশীল হবে চালের বাজার
তৃণমূলের কর্মীরাই আওয়ামী লীগের শক্তি ॥ শেখ হাসিনা
২৮ হাজার টিকেটের জন্য লাখ লাখ মানুষের ভিড়
সিলেট বিভাগে ৬৩ লাখ মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত
সড়ক দুর্ঘটনায় জুনে ৫২৪ জন নিহত
পশুবাহী গাড়িতে চাঁদা দাবির অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা
১২ খালের সংস্কার কাজ সম্পন্ন করেছে সেনাবাহিনী
ভিভিআইপিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন : রাষ্ট্রপতি
হাওড়কে রক্ষা করার জন্য সব করা হবে : পানি সম্পদ উপমন্ত্রী
প্রেসক্লাবে নিজের শরীরে আগুন দিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা
আড়াই লাখ টন চাল আমদানির অনুমতি পাচ্ছে আরও ১২৫ প্রতিষ্ঠান
ঈদ যা্ত্রায় বাড়ি যেতে ডিএমপি’র ১২ নির্দেশনা
টুঙ্গিপাড়া থেকে ২ ঘণ্টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী
ডেসটিনির রফিকুলের আপিল গ্রহণ, ২০০ কোটি টাকা দণ্ড স্থগিত
সদরঘাটের চিরচেনা সেই ব্যস্ততা আর নেই
করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ জনের মৃত্যু
এদেশের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার প্রধান অন্তরায় বিএনপি
মেয়াদোত্তীর্ণ রেপিড টেস্ট ডিভাইস দিয়ে কোভিড-১৯ পরীক্ষা
গ্যাস সংকটে কমেছে বিদ্যুৎ উৎপাদন, বেড়েছে লোডশেডিং
ঢাবির ক ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা ৯০ শতাংশই ফেল
৩ দিনের মধ্যে সারাদেশে বাড়বে বৃষ্টি
সৌদি আরবে আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু
বিশ্বরেকর্ড গড়লেন সাকিব