সোমবার ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দাউদকান্দিতে কষ্ঠে দিন কাটাচ্ছে মুচি সম্প্রদায়

দাউদকান্দিতে কষ্ঠে দিন কাটাচ্ছে মুচি সম্প্রদায়

নিজস্ব সংবাদদাতা, দাউদকান্দি ॥ বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে চলমান কঠোর লকডাউনে দাউদকান্দিতে কষ্ঠে দিন কাটাচ্ছেন মুচি সম্প্রদায়। পরিবার পরিজন নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে তাদের। নিম্ন আয়ের মানুষের আয় কমে গেছে। অনেকেই এখন ঘরে বসে অলস সময় কাটাচ্ছেন। এতে করে বিপদে পড়েছেন মুচি সম্প্রদায়। কঠোর লকডাউনে মরার উপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে দেখা দিয়েছে দাউদকান্দি মুচি সম্প্রদায়ের জন্য।

দাউদকান্দি পৌর সদরের পোষ্ঠ অফিস (ডাকঘরের) সামনে বসা কয়েকজন মুচি সম্প্রদায়েরর লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, সরকার তো আমাদের ভালোর জন্য লকডাউন দিয়েছে। কিন্তু আমাদের তো একদিন কাজ না করলে খাবার জোটে না। কাম কাইজ কম। বউ ছেলে মেয়েদের নিয়ে ক্যামনে চলুম। কেউ তো আমাদের একটু সাহায্য সহযোগিতা করে না। যাও আবার করে সামান্যটুকু, তা দিয়ে আমাদের দুই/তিন চলে। তার পড়ে আবারও আগের অবস্থা। এক সময় তো দিনে ৫০০ টাকা কামাইতাম। এখন তো লকডাউনের কারনে লোকজন বাজারে না আসায় ১০০ টাকার কামও হয় না। ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিপি ও পুলিশ আসলে দৌড়িয়ে পালানো লাগে।

এভাবেই নিজের অসহায়ত্বের কথাগুলো বলছিলেন দাউদকান্দি উপজেলার পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের সতান্দী মুচি বাড়ীর স্বপন চন্দ দাস। ৩২ বছর ধরে জুতা সেলাই কাজ করেন তিনি। স্কুলে পড়াশোনা করেন নাই। বাপ দাদার পেশা ছিল জুতা সেলাই করা। দুই যুগেরও বেশি সময় আগে এ পেশার সাথে জড়িয়ে পড়েন তিনি। একসময় কোনরকমে জীবনযাপন করলেও করোনার কারণে আর আগের মতো রোজগাড় নেই। এতে বিপাকে পড়েছেন তিনি।

তার মত অনেকেই এখন দুশ্চিন্তায় দিন কাটাচ্ছেন। আয় কমে যাওয়ায় দুর্দিনে থাকলেও নেই তেমন কোন সরকারি বেসরকারি সহায়তা। পরেশ চন্দ দাস বলেন, বাপ দাদার পেশা হিসেবে নিজেও জুতা সেলাই কাজ শুরু করেন এক যুগ আগে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন দোকান বন্ধ রেখেছেন। কয়েকদিন যাবৎ দোকান খুলেছেন। তবে প্রসাশনের টহল দেওয়ার কারণে প্রতিনিয়ত দোকান বন্ধ করে দিতে হয়। অভাব অনটনে এখন দিন কাটাচ্ছেন। এক সময় ৪০০/৫০০ টাকা আয় করতেন এই কাজ করে। লকডাউনের কারণে এখন ১০০/১৫০ টাকা আয় করাও সম্ভব না।

আরও কয়েকজন মুচি জানায়, ঠাকুর চন্দ দাস নামের এক মুচি দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে জুতা সেলাই করে চালাতো তার সংসার বর্তমানে তিনি পঙ্গু অবস্থায় বিছনায় শয্যাশায়ী। চলমান কঠোর লকডাউনে মানবেতর জীবনযাপন করেছেন পরিবার নিয়ে। তেমন কোনো সহায়তাও মেলেনি তার। এতে পরিবার নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তিনি।

শীর্ষ সংবাদ:
ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ করবেন না : গাসিক মেয়র         রংপুর-ফেনীসহ ৭ এসপিকে বদলি         ডেঙ্গু : গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭২ রোগী হাসপাতালে         প্রকাশ হলো ৪৩তম বিসিএস প্রিলির আসন বিন্যাস         সম্প্রতির মধ্যে ভাঙন সৃষ্টি করতে কুমিল্লার ঘটনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         এফআর টাওয়ারের নকশা জালিয়াতি: চারজনের বিচার শুরু         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ১০         পদোন্নতি পেলেন ডিএমপি কমিশনার ও র‌্যাব মহাপরিচালক         শেখ রাসেলের হত্যাকারীরা নর্দমার কীট ও পশুতুল্য ॥ কৃষিমন্ত্রী         ‘শেখ রাসেল স্বর্ণপদক’ দিলেন প্রধানমন্ত্রী         অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বাংলাদেশ গড়তে চাই ॥ প্রধানমন্ত্রী         বিএনপি হত্যা-ষড়যন্ত্র-সাম্প্রদায়িক রাজনীতির বাহক ॥ কাদের         ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ॥ অবরোধ তুলে নিলেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা         ‘১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রান্তের ফসল’         ইভ্যালি পরিচালনায় বোর্ড গঠন করে দিলেন হাইকোর্ট         ঝিনাইদহে জাকির মন্ডল হত্যা মামলায় ৮ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড         ‘রাসেল মানবিক সত্তা হিসেবে সবার মাঝে বেঁচে আছেন’         ট্রেনে ভ্রমণরত শিশুদের উপহারসামগ্রী বিতরণ রেলমন্ত্রীর         সেই তুফানের জামিন বিষয়ে হাইকোর্টের রুল         সাবওয়া ও মা’রিব প্রদেশে অভিযান চালিয়ে অনেক ভূখণ্ড মুক্ত করল ইয়েমেনি বাহিনী