ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

সেতুর টোল আদায়ে অনিয়ম তদন্তে সংসদীয় কমিটি

প্রকাশিত: ১৯:১৪, ৩১ ডিসেম্বর ২০২০

সেতুর টোল আদায়ে অনিয়ম তদন্তে সংসদীয় কমিটি

নলাইন রিপোর্টার ॥ অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় দেশের সব সেতুতে টোল আদায় নিয়ে তদন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। পাশাপাশি সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের বিভিন্ন কাজে একই প্রতিষ্ঠান বারবার ঠিকাদারির কাজ পায় কি না, তা খতিয়ে দেখার সিদ্ধান্তও নিয়েছে। ধলেশ্বরী সেতুতে টোল আদায়ে অনিয়ম নিয়ে মন্ত্রণালয়ের একটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন নিয়ে আলোচনার পর বৃহস্পতিবার সংসদীয় কমিটি দুটি উপকমিটি গঠন করেছে। সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ধলেশ্বরী সেতুসহ দেশের সব সেতুতে টোল আদায়ে অনিয়ম দুর্নীতি নিয়ে প্রাপ্ত অভিযোগের তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য কমিটির সদস্য এনামুল হককে আহ্বায়ক করে দুই সদস্যবিশিষ্ট উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে এই কমিটিকে। বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা গেছে, একই সঙ্গে সড়ক পরিবহন ও সেতু বিভাগের অন্য কাজে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিয়ে তদন্ত করার সিদ্ধান্তও হয়। কমিটির সদস্য শেখ সালাহউদ্দিনকে আহ্বায়ক করে এজন্য দুই সদস্যের উপ কমিটি গঠন করা হয়। উপ-কমিটিকে দুই মাসের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে বলা হয়েছে। গত অক্টোবর মাসে ধলেশ্বরী সেতু নিয়ে ‘দিলে টোল ওঠে ৩০ লাখ, সরকার পায় ৩ লাখ’ শিরোনামে দৈনিক ইত্তেফাকে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। ওই মাসেই সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। কমিটি মন্ত্রণালয়কে তদন্ত করার সুপারিশ করে। পরে মন্ত্রণালয় তদন্ত করে সংসদীয় কমিটিকে জানায়, পত্রিকায় প্রকাশিত ওই প্রতিবেদন ‘বাস্তবতার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়’। সংসদীয় কমিটিতে আরও অভিযোগ ওঠে, ধলেশ্বরী সেতুতে টোল আদায়ে নিয়োজিত সার্ভিস প্রোভাইডারের ইজারার মেয়াদ তিন বার বাড়ানো হয়েছে এবং এক্ষেত্রে অনিয়ম হয়েছে। বৈঠকে বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকায় অবস্থিত রিসোর্ট ইজারা প্রদান তথা বঙ্গবন্ধু সেতুর আনন্দ পার্ক, পিকনিক স্পট ও বাগান (এগ্রিকালচার), জমি ও অন্যান্য অবকাঠামো ব্যবস্থাপনা বিষয়ে তদন্ত করে একটি প্রতিবেদন দেওয়ার কমিটির সদস্য রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিককে আহ্বায়ক করে দুই সদস্যের আরেকটি উপ-কমিটিও গঠন করা হয়। আগামী দুই মাসের প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে এই কমিটিকে। বৈঠকে সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে স্থানীয় কিংবা রাজনৈতিক সকল প্রতিবদ্ধকতা দূর করে সড়ক/মহাসড়কে নসিমন, করিমন, ইঞ্জিনচালিত রিকশা ইত্যাদি চলাচল বন্ধ করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য পরবর্তী বৈঠকে বিভাগীয় কমিশনার, বিভাগীয় ডিআইজি এবং হাইওয়ে পুলিশ কর্তৃপক্ষকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়। কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভার্চুয়ালি যোগ দেন। কমিটির সদস্য এনামুল হক, আবু জাহির, রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, ছলিম উদ্দীন তরফদার, শেখ সালাহউদ্দিন, সৈয়দ আবু হোসেন এবং রাবেয়া আলীম বৈঠকে অংশ নেন।
monarchmart
monarchmart