বুধবার ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ১২ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

আনসার আল ইসলামের পরিকল্পনায় ‘মুসলিম ভিলেজ’

আনসার আল ইসলামের পরিকল্পনায় ‘মুসলিম ভিলেজ’

অনলাইন রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশে ‘মুসলিম ভিলেজ’ নামে একটি গ্রাম থেকে নিজেদের কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা করছিলো নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্যরা। যেখানে মানুষের তৈরি নীতি নয়, আল্লাহর আইনে সবকিছু চলবে। এমনকি কেউ সরকারকে কোনো কর দেবে না।

তবে মুসলিম ভিলেজ প্রতিষ্ঠা করতে গেলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতারের আশঙ্কা থেকে সশস্ত্র প্রতিরোধের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তারা। এজন্য অস্ত্র, বিস্ফোরক সংগ্রহ করে নিজেদের সক্ষমতা বাড়ানোর চেষ্টাও করছিলেন।

আজ শনিবার (৩০ মে) পাবনা শহর থেকে আব্দুল্লাহ আকাশ (২৫) নামে আনসার আল ইসলামের এক সদস্যকে গ্রেফতারের পর এমন তথ্য জানায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-২)।

এ সময় গ্রেফতার আকাশের কাছ থেকে ইম্পোভাইজড বোমা তৈরির বিপুল পরিমাণ সরঞ্জামসহ জঙ্গিবাদী বই, পিডিএফ ডকুমেন্টস ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, গত ২৯ জানুয়ারি মুন্সিগঞ্জ থেকে আনসার আল ইসলামের তিন সদস্যকে বিস্ফোরক দ্রব্যসহ গ্রেফতার করা হয়। তাদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে সংগঠনটির সাতজন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (৩০ মে) পাবনার বিসিক শিল্প এলাকা সংলগ্ন কলাবাগান মাঠপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে আব্দুল্লাহ আকাশকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারদের জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর স্পেশালাইজ ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানির কমান্ডার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, বাংলাদেশে ‘মুসলিম ভিলেজ’ নামে একটি গ্রাম থেকে ওই জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরা তাদের কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা করছিলেন। মুসলিম ভিলেজের কসেপ্ট হলো- সেখানে আল্লাহর আইন হবে, মনুষ্য কোনো নীতিতে গ্রাম চলবে না, কেউ সরকারকে কোনো কর দেবে না।

তিনি জানান, গ্রাম পর্যায় থেকে আনসার আল ইসলামের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করার পরিকল্পনা করছিলেন তারা। সে অনুযায়ী ‘মুসলিম ভিলেজ’ প্রতিষ্ঠা করতে গেলে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী অনুমোদন দেবে না কিংবা গ্রেফতারের আশঙ্কা থাকে। তাই সশস্ত্র প্রতিরোধের জন্য অস্ত্র, বিস্ফোরক, ইম্পোভাইজড বোমা তৈরির সরঞ্জামাদি সংগ্রহ করে নিজেদের সক্ষমতা বাড়ানোর চেষ্টা করছিলেন তারা। আনসার আল ইসলামে যোগদানের ক্ষেত্রে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত পরিবারের কোমলমতি যুবকদের টার্গেট করে উদ্বুদ্ধ করে আসছিলেন তারা।

গ্রেফতার আকাশকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এসপি মহিউদ্দিন ফারুকী।

শীর্ষ সংবাদ:
ওয়েবিনার জুম ॥ করোনাকালের গণমাধ্যম         এলো রুশ ভ্যাকসিন         নামছে বন্যার পানি, বাড়িঘরে ফিরছেন মানুষজন         পুলিশী মামলার তিন সাক্ষী গ্রেফতার ॥ রিমান্ডের আবেদন         ভাড়া ডাকাতির মহোৎসব         করোনায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু         ছোট ঋণ সোনার হরিণ ॥ চার মাসে বিতরণ মাত্র ৫শ’ কোটি টাকা         সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গীবাদ ধর্মের মূল শিক্ষাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করে         খালেদার চিকিৎসা দেশে না বিদেশে? দ্বিধাবিভক্ত বিএনপি         পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষা বাতিল হতে পারে         ডিজিএফআই ও সিআইডি কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, তিন প্রতারক গ্রেফতার         সাড়ে তিন বছরে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সমৃদ্ধির দিকে এগোতে থাকে         লেবাননে ৪০ হাজার কর্মী বাংলাদেশে ফিরতে সহযোগিতা চান         উত্তরা থেকে তেজগাঁও, দশ ইউটার্ন নির্মাণ ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে         সাগরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত         সাবেক পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত         বঙ্গবন্ধুর হত্যা ছিল স্বাধীন বাংলাদেশকে হত্যার ষড়যন্ত্র ॥ তথ্যমন্ত্রী         মেজর সিনহা হত্যা ॥ আরও তিনজন গ্রেফতার         চলতি বছরের মধ্যে ইউটার্নগুলোর কাজ শেষ হবে ॥ আতিক         বিশ্বের প্রথম করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগ হল পুতিনের মেয়ের শরীরে        
//--BID Records