সোমবার ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

গিগাসিটি হচ্ছে পূর্বাচল

  • গিগাসিটির কাজ সম্পন্ন হবে ২০২১ থেকে ২০২৩ সালের মধ্যে ॥ ব্যয় হবে ২৬ হাজার কোটি টাকা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানী ঢাকার নতুন শহরের নাম পূর্বাচল। একে প্রযুক্তিভিত্তিক ‘গিগা সিটি’র রূপ দিতে সেখানে সর্বাধুনিক অবকাঠামো গড়ে তুলবে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল)। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আধুনিক সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা পাবেন এই স্মার্ট সিটির বাসিন্দারা।

পূর্বাচল নিউ টাউন প্রজেক্ট (পিএনটিপি)-এর অধীনে ২০২১ সালে শুরু হয়ে ২০২৩ সালের জুনের মধ্যে গিগাসিটির প্রযুক্তিভিত্তিক অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শেষ হবে। এর প্রাথমিক ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫ হাজার ৯৫৭ লাখ টাকা।

গিগাসিটি বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান বিটিসিএলের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) এ কে এম হাবিব বলেন, ‘একটি স্মার্ট সিটি গড়তে যা যা প্রয়োজন হয় বিশেষ করে প্রযুক্তিগত যা কিছু, তা গিগাসিটিতে পাওয়া যাবে। এর প্রতিটি বাড়িতে থাকবে ব্রডব্যান্ড (উচ্চগতির) ইন্টারনেট সংযোগ, থাকবে টেলিফোন সংযোগও।’

তিনি বলেন, ‘নগরপিতারা আধুনিক সিটি গড়তে প্রাযুক্তিক অবকাঠামো চান। আমরা সেই অবকাঠামো তৈরি করে দেব। গিগাসিটির বাসিন্দারা আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা পাবেন।’ গিগাসিটিতে ঘরে ঘরে যে ক্যাবল সংযাগ দেয়া হবে তাতে ট্রিপল- প্লে (ভয়েস, ইন্টারনেট ও ডিশ সংযোগ) সুবিধা থাকবে বলেও জানান তিনি।

গত ৫ নবেম্বর প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করে পিএনটিপি বাস্তবায়ন বিষয়ক কমিটি ফিজিবিলিটি স্টাডি রিপোর্ট তৈরি করেছে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, গিগাসিটির আয়তন হবে ৬ হাজার ১৫০ একর। একে ছোট-বড় ৩০টি সেক্টরে ভাগ করা হবে। বিভিন্ন আকারের আবাসিক প্লটের সংখ্যা হবে ২৬ হাজার। এসব প্লটে যেসব হাইরাইজ ভবন হবে সেগুলোতে ৬২ হাজার ফ্ল্যাট হবে। এতে ১৫ লাখ লোক বাস করবে। এই সিটির প্রতিটা ভবনে থাকবে ফাইবার অপটিক সংযোগ। ভবনের বাসিন্দারা ব্যবহার করতে পারবেন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এখন কোন ভবনে ব্রডব্যান্ড সংযোগ পেতে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করতে হয়। তারা এসে সংযোগ দিয়ে যায়। গিগাসিটির প্রতিটা ভবনে বিদ্যুত, পানি ও ডিশ সংযোগোর মতো থাকবে ইন্টারনেট সংযোগও। চাইলেই সঙ্গে সঙ্গে ব্যবহার করা যাবে।

বিটিসিএল সূত্র জানায়, গিগাসিটিতে থাকবে ১ লাখ পিএসটিএন (ল্যান্ডফোন) সংযোগ। থাকবে সর্বাধুনিক জিপন (গিগাবিট প্যাসিভ অপটিক্যাল নেটওয়ার্ক) নেটওয়ার্ক। এই সিটিতে ইন্সটল করা হবে ১০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ, যাতে অন্তর্ভুক্ত থাকবে ভয়েস, ইন্টারনেট, এফটিটিএক্স ইত্যাদি। এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে পপ একসেস থাকবে। অন্যদিকে নিরবছিন্ন ইন্টারনেট সেবাদানের জন্য গিগাসিটিতে থাকবে ২ কোটি রাউটার ও হাই-এ্যান্ড সুইচ।

সূত্র জানায়, গিগাসিটির জন্য দুটি ক্যাবল স্থাপন করবে বিটিসিএল। এর একটি যাবে রাজধানীর মগবাজার এক্সচেঞ্জ থেকে কুড়িল বিশ্বরোড, আরেকটি যাবে কুড়িল বিশ্বরোড হয়ে পূর্বাচল প্রকল্প এলাকায়। বিটিসিএল ক্যাবল বসাবে ৪১ কিলোমিটার। এর মধ্যে ৩০ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার হবে গিগাসিটির জন্য। এছাড়া প্রটেকশন ও রিস্টোরেশনের জন্য ক্যাবল নেয়া হবে গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জে। ফলে সব মিলিয়ে বিটিসিএলকে ক্যাবল বসাতে হবে ৭১ কিলোমিটার।

শীর্ষ সংবাদ:
নর্থ সাউথের ৪ ট্রাস্টিকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ         টাকার মান কমল আরও ৪০ পয়সা         আঞ্চলিক সংকট মোকাবিলায় ৫ প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর         হাজী সেলিমকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে ভর্তি         শ্রমিকদের ৪০০ কোটি টাকা দিলেন ড. ইউনূস, মামলা প্রত্যাহার         আত্মসমর্পণের পর কারাগারে প্রদীপের স্ত্রী চুমকি         আট দিন পর বড় উত্থানে পুঁজিবাজার         ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটের আরও উন্নয়নে সহায়তার আশ্বাস আইসিসির’         মুন্সীগঞ্জের ১০ গ্রামে সহিংসতায় ৫ গুলিবিদ্ধসহ আহত ১৫         ইউক্রেন ইস্যুতে বাংলাদেশের ভূমিকায় রাশিয়ার কৃতজ্ঞতা         বুস্টার ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৪৩ লাখ         সরকারী হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়ল আরও দুদিন