ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

খাশোগি হত্যার রায়ে তুরস্ক ও মানবাধিকার গ্রুপগুলোর প্রতিক্রিয়া

এই রায়ে ন্যায়বিচার প্রতিফলিত হয়নি

প্রকাশিত: ০৯:০৮, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯

এই রায়ে ন্যায়বিচার প্রতিফলিত হয়নি

সৌদি ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যা মামলায় পাঁচজনকে যে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে তার নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক ও কয়েকটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা। ২০০৮ সালে ইস্তানবুলের সৌদি কন্স্যুলেটে হামলায় নিহত হন এই সিনিয়র সাংবাদিক ও কলাম লেখক। খবর আলজাজিরার। মঙ্গলবার তুরস্ক ও মানবাধিকার সংস্থাগুলো জানায়, এই রায়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়নি। সোমবার সৌদি আরবের একটি আদালত পাঁচজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়ে এই রায় দেয়। এতে বাদ পড়েন খাশোগি হত্যার দুইজন মূল হোতা। এই হত্যাকা-ে দেশটির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমানও জড়িত বলে সন্দেহ করা হয়। সৌদি আরবের তদন্ত এ ঘটনায় মোট ৩১ জন জড়িত থাকতে পারেন-জানিয়ে ১১ জনের নামে মামলা দেয়। সোমবারের রায়ে তিনজনকে ২৪ বছরের কারাদ- ও বাকিদের অব্যাহতি দেয়া হয়। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের মুখপাত্র আহমেদ বেনচেমশি বলেন, এ রায় সন্তোষজনক হয়নি। আমরা বুঝতে পারছি না-এই ঘটনার হোতারা রায়ের আওতায় পড়েছেন কি না? জামাল খাশোগি মোহাম্মদ বিন সালমানের কড়া সমালোচক ছিলেন। দীর্ঘদিন থেকে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছানির্বাসনে ছিলেন তিনি। অপরদিকে জাতিসংঘও এই রায় নিয়ে সমালোচনা করেছে। আঙ্কারা এই রায়কে মানহানিকর আখ্যা দিয়ে বলেছে, রায় দেখে মনে হচ্ছে এখানে প্রকৃত দোষীদের আড়াল করার প্রয়াস চালানো হয়েছে। তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগানের অন্যতম প্রধান সহকারী ফাহরেতিন আলতুন বলেন, হত্যাকা- ঘটিয়ে যারা ব্যক্তিগত বিমানে তুরস্ক ত্যাগ করেন তাদের অব্যাহতি দিয়ে-রায় দেয়া হয়েছে।
×