ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

সেপ্টেম্বরে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা কমেছে

প্রকাশিত: ০৯:৫৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

 সেপ্টেম্বরে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা কমেছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ সচেতনতার কারণে সেপ্টেম্বরে ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগে সচেতনতাসহ নানা কর্মসূচী গ্রহণের কারণে ডেঙ্গু পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে। আর নতুন করে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যাও হ্রাস পেয়েছে। সরকারী পরিসংখ্যানে জুন থেকে বেশি মাত্রায় ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হলেও আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় জুলাইয়ে বেশি ডেঙ্গু রোগী মারা গেছেন। ওই মাসে ১৬ হাজার রোগীর বিপরীতে ৩২ রোগীর মৃত্যু ঘটে। আক্রান্তের সংখ্যার বিবেচনায় জুলাই ও সেপ্টেম্বরের মধ্যে তেমন পার্থক্য নেই। কিন্তু সেপ্টেম্বরে মাত্র ৪ ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু ঘটেছে। আর আগস্টে ৫২ হাজার ডেঙ্গু রোগীর বিপরীতে মৃতের সংখ্যা ছিল ৩৭ জন। রবিবার বরিশালে এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৩৪২ । এদের মধ্যে ঢাকায় নতুন ভর্তি ৯৮ এবং ঢাকার বাইরে ২৪৪। সারাদেশে বর্তমানে ভর্তি ডেঙ্গু ও সন্দেহজনক ডেঙ্গু রোগীর সর্বমোট সংখ্যা ১৫৭৭ জন। ঢাকা মহানগরীতে বর্তমানে মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫৮৩ জন এবং ঢাকার বাইরে ৯৯৪ জন। এ বছর জানুয়ারি থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সর্বমোট ভর্তি ও ছাড়প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা যথাক্রমে ৮৭,৬০৫ জন ও ৮৫,৭৯৭ জন। সারাদেশে এ পর্যন্ত মোট রোগীর ৯৮ শতাংশ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গু সন্দেহে ২৩১ জনের মৃত্যুর তথ্য প্রেরিত হয়েছে। তাদের মধ্যে আইইডিসিআর ১৩৬ জনের মৃত্যু পর্যালোচনা সমাপ্ত করে ৮১ জনের মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে আইইডিসিআর। স্বাস্থ্য অধিদফতরের ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম আরও জানায়, বর্তমানে ঢাকা শহর ছাড়া ঢাকা বিভাগে ২১০ জন, চট্টগ্রামে বিভাগে ১৫১ জন, খুলনা বিভাগে ৩৪২ জন, রংপুর বিভাগে ২৮ জন, রাজশাহী বিভাগে ৯০ জন, বরিশালের ৬ জেলায় ১৩৫ জন এবং সিলেট বিভাগের ৪ জেলায় ১০ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ৪ জেলায় ২৮ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। সূত্রটি আরও জানায়, ঢাকা শহরের হাসপাতালগুলোর মধ্যে বর্তামানে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১৫১ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ৯৩ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ২৩ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ৫৬ জন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৫ জন, রাজারবাগের পুলিশ হাসপাতালে ৬ জন, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৩১ জন, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ২৬ জন এবং কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ৫৫ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরের হাসপাতালগুলোর মধ্যে নতুন রোগী ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ২৫ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ১৩ জন, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ২ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ১০ জন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪ জন, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন, এবং কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ১০ নতুন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে। বরিশাল ॥ স্টাফ রিপোর্টার বরিশাল থেকে জানান, ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাধনা রানী (৪৫) নামের এক নারী রবিবার সকালে মারা গেছেন। মৃত সাধনা রানী বরগুনা জেলার বেতাগী উপজেলার জোয়ারকরুনা গ্রামের বাসিন্দা বাবুল চন্দ্র হালাদারের স্ত্রী। হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ বাকির হোসেন জানান, ২৮ সেপ্টেম্বর ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে সাধনা রানী শেবাচিমে ভর্তি হয়। এ নিয়ে শেবাচিমে গত ১৬ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ১১ জন ও বিভাগে মোট ১৬ রোগীর মৃত্যু হয়েছে।
monarchmart
monarchmart

শীর্ষ সংবাদ:

রাশিয়ার যুদ্ধে ইউক্রেনের ১৩ হাজার সৈন্য নিহত
খালেদা জিয়া তো মুক্ত, তাকে আবার কীভাবে জামিন দিব?
নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হোটেলে কাভার্ডভ্যান, বাবা-ছেলেসহ নিহত ৫
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হতে পারে লঘুচাপ, কমতে পারে তাপমাত্রা
শান্তি চুক্তির ২৫ বছর: সমস্যা ও উত্তরণের উপায়
তিন মাসের মধ্যে নভেম্বরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স ১৫৯ কোটি ডলার
১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে পুলিশ
রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ
যাচাই-বাছাই করে গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দামের বিষয়ে সিদ্ধান্ত
শিশু আয়াতের মাথা উদ্ধার করেছে পিবিআই
মহান বিজয়ের মাস শুরু
পাকিস্তানের কয়লাখনিতে বিস্ফোরণে নিহত ৯