সোমবার ২৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জনসনের পার্লামেন্ট মুলতবির ‘চালে’ তীব্র প্রতিক্রিয়া

জনসনের পার্লামেন্ট মুলতবির ‘চালে’ তীব্র প্রতিক্রিয়া

অনলাইন ডেস্ক ॥ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পার্লামেন্ট অধিবেশন মুলতবি রাখার সিদ্ধান্তে ব্রিটিশ এমপি ও চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের বিরোধীদের মধ্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় পুরো যুক্তরাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ দেখা দিয়েছে, আদালতের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে এবং এ সংক্রান্ত একটি পিটিশনে ১০ লাখেরও বেশি লোক স্বাক্ষর করেছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরজুড়ে পাঁচ সপ্তাহের এ মুলতবি সত্বেও ব্রেক্সিট নিয়ে বিতর্কের সময় পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে সরকার। কিন্তু সমালোচকরা বলছেন, এমপিদের চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিট আটকানো বন্ধ করতেই ‘অগণতান্ত্রিক’ এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী জনসন পার্লামেন্ট অধিবেশন মুলতবি করার জন্য রানির কাছে আবেদন করার পর বুধবার রানি তা অনুমোদন করেছেন।

বিরোধী লেবার দলীয় নেতা জেরেমি করবিন এ সিদ্ধান্তকে ‘আমাদের গণতন্ত্রের ওপর ধাক্কা’ বলে বর্ণনা করেছেন। এমপিদের পার্লামেন্টে আইন পাস করার যথেষ্ট সময় না দিয়ে চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের দিকে ঠেলে দিতেই এটি করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। এই মুলতবি আদেশ বন্ধ করার চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

ব্রেক্সিট-বিরোধী আন্দোলনকারী জিনা মিলার জনসনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে জুডিশিয়াল রিভিউয়ের আবেদন জানিয়েছেন।

হাউস অব কমন্সের স্পিকার জন বারকাউ, ঐতিহ্যগতভাবে যিনি রাজনৈতিক ঘোষণা নিয়ে মন্তব্য করেন না, এই সিদ্ধান্তকে ‘সাংবিধানিক জুলুম’ বলে বর্ণনা করেছেন।

সরকারদলীয় (টোরি) সাবেক চ্যান্সেলর ফিলিপ হ্যামন্ড একে ‘অত্যন্ত অগণতান্ত্রিক’ বলে অভিহিত করেছেন।

স্কটল্যান্ডের ফাস্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টার্জন বলেছেন, “এই পরিকল্পনা ঠেকাতে আগামী সপ্তাহে এমপিদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, তা না হলে ইতিহাসে আজকের দিনটি যুক্তরাজ্যের গণতন্ত্রের জন্য অন্ধকার দিন হিসেবে চিহ্নিত হবে।”

বুধবার সন্ধ্যায় প্রতিবাদকারীরা ওয়েস্টমিনস্টারে জমায়েত হয়ে ‘ক্যু বন্ধ কর’ বলে শ্লোগান দেয়। এ সময় তাদের হাতে ব্রেক্সিট বিরোধী প্ল্যাকার্ড ও ইইউয়ের পতাকা ছিল।

মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে আয়োজন করা এ প্রতিবাদ পার্লামেন্টের সামনে শুরু হওয়ার পর তা ডাউনিং স্ট্রিটের দিকেও ছড়িয়ে পড়ে। এখানে কয়েকজন প্রতিবাদকারী ‘বিক্ষোভ মাত্র শুরু হল, সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে আরও বিক্ষোভ হবে’ বলে জানিয়েছেন।

ইতোমধ্যে সরকারি ওয়েবসাইটে পার্লামেন্ট মুলতবি না করার জন্য দাখিল করা একটি ই-পিটিশনে এক দিনেরও কম সময়ের মধ্যে ১০ লাখেরও বেশি স্বাক্ষর জমা পড়েছে।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনায় মারা গেলেন সিএমপি উপ-কমিশনার মিজানুর         এমপি পাপুলের স্ত্রী ও শ্যালিকাকে দুদকে তলব         করোনার ভ্যাকসিনের সফল ট্রায়ালের দাবি রাশিয়ার         মেয়র উন-সুনের নাটকীয় মৃত্যুতে দুই ভাগে বিভক্ত দ. কোরিয়া         ‘করোনার ভয়াবহতা গোপন করেছিল চীন’         চীন সীমান্তে উত্তেজনার মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র থেকে অস্ত্র কিনছে ভারত         পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করল ইরান         সিরিয়ার বিমান ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা প্রতিহত করল রাশিয়া         ক্রিমিয়ার আগেই ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক খারাপ ছিল ॥ পুতিন         ২৫ কিশোরীর জীবন যুদ্ধ নিয়ে যা বলবেন মালালা         আমেরিকার বিমানবাহী রণতরীতে আগুনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি         মাঠে ফিরেই এমবাপে-নেইমারদের গোল উৎসব         জেকেজি প্রতারণার হোতা সাবরিনা গ্রেফতার         প্রধানমন্ত্রী ১ কোটি গাছের চারা রোপণ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন বৃহস্পতিবার         অনিয়ম, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার ॥ কাদের         আপীল বিভাগের বিচারিক কার্যক্রম হবে ভার্চুয়াল         সভরেন ওয়েলথ ফান্ড ॥ বৈদেশিক রিজার্ভ থেকে ঋণ নেয়ার একমাত্র পথ         পালাতে পারবে না সাহেদ ধরা পড়তেই হবে ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী         করোনার প্রকোপ বাড়লে ভার্চুয়াল কোর্টের সাহায্য নিতেই হবে ॥ আইনমন্ত্রী         করোনায় ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে ॥ শামীম ওসমান        
//--BID Records