শুক্রবার ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, পুড়ে অঙ্গার জুতা কারখানার নারী শ্রমিক

  • গাজীপুরে ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যের দোকানে পৃথক অগ্নিকা-, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর ॥ শ্রীপুরে মঙ্গলবার পাইপ লাইনে লিকেজের কারণে রান্নার গ্যাস সিলিন্ডারের আগুনে পুড়ে অঙ্গার হয়েছে দু’সন্তানের জননী এক নারী শ্রমিক। এ সময় আগুনে টিনশেডের ঘর ও মালামাল পুড়েছে। মৃতের নাম সেলিনা আক্তার (৩৫)। তিনি সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের নুরুল হকের মেয়ে। এদিকে একইদিন জেলা শহরের একটি মার্কেটে ইলেকট্রনিক্স পণ্যের দোকানে পৃথক অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে প্রায় কোটি টাকার ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী পুড়ে গেছে।

শ্রীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার আল আমিন ও স্থানীয়রা জানান, শ্রীপুর পৌরসভার গড়গড়িয়া মাস্টারবাড়ির গিলারচালা এলাকার শহিদুল ইসলামের বাড়ির টিনশেড ঘরে দু’সন্তানকে নিয়ে ভাড়া থেকে সেলিনা আক্তার স্থানীয় একটি জুতা তৈরির কারখানায় চেকার পদে চাকরি করতেন। তার স্বামী আজাদ দ্বিতীয় বিয়ে করে অন্যত্র বসবাস করায় সেলিনা এ কারখানায় চাকরি নেন।

মঙ্গলবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে সেলিনা কারখানায় যাওয়ার জন্য রান্নার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তিনি দিয়াশলাই জ্বালিয়ে চুলায় আগুন দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে চুলা ও গ্যাস সিলিন্ডারে আগুন লেগে মুহূর্তেই পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। চুলার সঙ্গে সিলিন্ডারের সংযোগ পাইপ লিকেজের কারণে গ্যাস পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় বিকট শব্দে সিলিন্ডারের একটি অংশ বিস্ফোরিত গ্যাস বেরোতে থাকলে আগুন ভয়াবহ আকার ধারণ করে পার্শ্ববর্তী আরও ৫টি ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনার সময় বাড়ির অন্য লোকজন বের হয়ে আসতে পারলেও সেলিনা আগুনে পুড়ে অঙ্গার হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে শ্রীপুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় আধা ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নেভাতে সক্ষম হন। এ সময় তারা ঘটনাস্থল থেকে সেলিনা আক্তারের পুড়ে যাওয়া অঙ্গার দেহ উদ্ধার করেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেখান থেকে আংশিক বিস্ফোরিত একটি গ্যাস সিলিন্ডার এবং অপর একটি গ্যাস সিলিন্ডার অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করেন। আগুনে ওই বাড়ির টিনশেডের ৬টি ঘর ও মালামাল পুড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা আরও জানান, সিলিন্ডারের সঙ্গে চুলার সংযোগ পাইপ লিকেজ হয়ে গ্যাস বের হয়ে পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়েছিল। এছাড়াও অগ্নিকা-ের সময় বিস্ফোরিত হয়ে একটি সিলিন্ডারের একাংশ ফুটো হয়ে গ্যাস বেরিয়ে পড়ে। আর এ কারণে অতি সহজেই আগুন পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করে। আগুনে আসবাবপত্র ও মালামালসহ ওই বাড়ির টিনের তৈরি ৬টি ঘর পুড়ে গেছে। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নিহতের লাশ পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এদিকে একইদিন ভোরে গাজীপুর জেলা শহরের একটি ইলেকট্রনিক্স মার্কেটে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে মার্কেটের একটি দোকানের টিভি, ফ্রিজ ও কম্পিউটারসহ প্রায় কোটি টাকার ইলেকট্রনিক্স সামগ্রী পুড়ে গেছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী জানিয়েছেন। ঘটনার সময় জয়দেবপুর রেলক্রসিংয়ের জন্য ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের ঘটনাস্থলে পৌঁছতে দেরি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোহাম্মদ জাকির হোসেন ও স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে গাজীপুর জেলা শহরের জয়দেবপুর বাজারের মসজিদ রোডের আকন্দ ম্যানসনের মেসার্স রাজু এন্টারপ্রাইজ নামের ইলেকট্রিক এ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স এর দোকানে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিটের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভায়। অগ্নিকা-ে ওই দোকানের টিভি, ফ্রিজ, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ওভেনসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়েছে ও ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ওই দোকানের মালিক মোঃ আশরাফুল ইসলাম জানান, অগ্নিকা-ে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। দোকানে টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, ওভেন, গ্যাসের চুলাসহ বৈদ্যুতিক বিভিন্ন সামগ্রী ছিল।

জয়দেবপুর রেলক্রসিংয়ের জন্য ফায়ার সার্ভিস দলকে ঘটনাস্থলে পৌঁছতে দেরি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে ব্যবসায়ীরা বলেন, জেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান জয়দেবপুর রেলক্রসিংয়ে ওভারব্রিজ না থাকায় গাজীপুরবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যুগ যুগ ধরে। অপরদিকে ফায়ার সার্ভিস, এ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন যানবাহন রেলক্রসিংয়ে আটকা পড়ে ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি ঘটনা বেড়েই চলছে।

ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ঘটনাস্থলটি জয়দেবপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কাছাকাছি হলেও জয়দেবপুর রেলক্রসিংয়ের জন্য ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের ঘটনাস্থলে পৌঁছতে কিছুটা দেরি হয়েছে। ঘটনার সময় জয়দেপুর রেলওয়ে জংশন এলাকায় দুটি ট্রেন ক্রসিং হওয়ার কারণে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের রেলক্রসিং পয়েন্টে অন্তত ১০/১৫ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছে। ফলে আগুনে ক্ষয়ক্ষতি বেশি হয়েছে। এমনিভাবে বিভিন্ন দুর্ঘটনার সময় ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে প্রায়ই জয়দেবপুর রেলক্রসিংয়ে আটকা পড়ে অনেকটা সময় দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করতে হয়। এতে হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যাচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
বরিশালে পৃথক দুর্ঘটনায় তিনজন নিহত         সন্ত্রাসীদের হামলায় বুরকিনা ফাসোয় নিহত ৫০         বাজারে ডিমসহ বেড়েছে আটা, সবজি ও মুরগির দাম         অভিনেত্রী মঞ্জুষা নিয়োগীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার         মিয়ানমারে বেসামরিক নাগরিকদের সুরক্ষা একটি গুরুতর চ্যালেঞ্জ ॥ রাবাব ফাতিমা         প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির নেতাকর্মীরা ॥ সতর্ক অবস্থানে পুলিশ         নীলফামারীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস খাদে, আহত ৩২         পাক সরকারের রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আসামির নাম মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় নেই         ইমরান খানসহ তেহরিক নেতাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা         বালিয়াতলীর ফেরি পারাপার নয় বছর ধরে বন্ধ         মুশফিকের আউটের পর সাকিব নেমেই আক্রমনাত্মক         আজ থেকে ৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শুরু হয়েছে         পেরুতে ৭ দশমিক ২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন এক হাজার ৪১৩ জন         অবৈধ ক্লিনিকের দৌরাত্ম্য ॥ ভুল চিকিৎসায় প্রতিনিয়ত মৃত্যু         ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উন্নত জীবন নিশ্চিত করতে চাই         জঙ্গী নেতা আবদুল হাই যেভাবে ১৭ বছর আত্মগোপনে ছিলেন         জামিনে মুক্ত দুর্ধর্ষ অপরাধীদের ওপর চলবে নজরদারি         পাচার করা অর্থ ফিরিয়ে আনলে সাধারণ ক্ষমা ॥ অর্থমন্ত্রী         সিরাজগঞ্জে ট্রাক-লেগুনা সংঘর্ষ ॥ নাটোরের ৫ কৃষি শ্রমিক নিহত