সোমবার ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা

শেয়ারবাজারের অবস্থা স্বস্তিদায়ক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ একটি উন্নত অর্থনীতি হিসেবে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থানকে প্রতিষ্ঠিত করতে বর্তমান শেয়ারবাজারের অবস্থা বিনিয়োগকারীদের জন্য অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক ও আশাব্যঞ্জক বলে জানিয়েছেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এ এম মাজেদুর রহমান।

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন বিজনেস এ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট-২০১৮’ শীর্ষক সম্মেলনের উদ্বোধনীতে বিশেষ অতিথি হিসেবে ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক কে এ এম মাজেদুর রহমান এ দাবি করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের শেয়ারবাজার দেশের জাতীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রভাবশালী মাধ্যম। শেয়ারবাজারকে শ্রেষ্ঠত্বের জায়গায় নিয়ে যেতে ডিএসই নতুন প্রজন্মের আত্মনিয়োগ সবসময় উৎসাহিত করে। তিনি আরও বলেন, গত পাঁচ বছরে শেয়ারবাজার অনেক ইতিবাচক পরিবর্তন হয়েছে।

বিএসইসি আইওএসকো এর ‘এ’ ক্যাটাগরি সদস্য হয়েছে। ডিএসই ইতোমধ্যে অর্জন করেছে ওয়ার্ল্ড ফেডারেশন্স অব এক্সচেঞ্জেস-এর সদস্যপদ, জাতিসংঘের সাসটেইনেবল স্টক এক্সচেঞ্জ ইনিশিয়েটিভের অংশীদারিত্ব এক্সচেঞ্জ অর্জন এবং সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব এক্সচেঞ্জের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ডিএসইর এমডি বলেন, সম্প্রতি ডিএসইর সঙ্গে কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসেবে যুক্ত হয়েছে চীনের শীর্ষস্থানীয় দুই স্টক এক্সচেঞ্জ শেনজেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ।

চীনের দুই স্টক এক্সচেঞ্জ বাংলাদেশের শেয়ারবাজারের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় ডিএসইর অগ্রগতির জন্য বড় ধরনের সুযোগ তৈরি হয়েছে।

ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী ডিএসইতে পণ্যের বৈচিত্রতা আনয়নে বহুমুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। খুব শীঘ্রই শেয়ারবাজারে স্বল্প মূলধনের প্রতিষ্ঠানসমূহের অর্থায়ন ও তালিকাভুক্তির জন্য স্মল ক্যাপিটাল প্লাটফর্ম চালু করা হবে।

ক্লিয়ারিং ও সেটেলমেন্ট কোম্পানি গঠন করার বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইন/বিধির প্রণয়ন করা হয়েছে। এতে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদে শেয়ারবাজারে নতুন প্রোডাক্ট লেনদেনের পথ সুগম হবে। যা বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নতুন দিগন্তের সূচনা করবে।

এ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ডিন ড. চার্লিস সি. ভিলানুয়েভা-এর সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও ছিলেন ঢাকা ইউনিভার্সিটির ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এ্যাডমিনিস্ট্রেশন-এর পরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ ফারহাত আনোয়ার এবং এআইইউবি-এর ভাইস চ্যান্সেলর ড. কারমেন জেড. লামাগনা।

শীর্ষ সংবাদ: