শনিবার ৮ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

কোকেন মামলা নিষ্পত্তিতে নানা প্রতিবন্ধকতা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সূর্যমুখী তেলের ঘোষণা দিয়ে এক শ’ কোটি টাকা মূল্যের তরল কোকেন আমদানির চাঞ্চল্যকর ঘটনা নিয়ে মামলাটি উচ্চ আদালত গড়িয়ে বিচারিক প্রক্রিয়ায় আসলেও এতে কোন গতি দৃশ্যমান নয়। আসামিদের যারা জামিন পেয়েছেন তাদের কেউ কেউ দেশ ছেড়েছেন আর কেউ জেলে রয়েছেন। মামলার সম্পূরক চার্জশীট হওয়ার পরও এর চার্জ গঠনের প্রক্রিয়াটি থমকে আছে। এ মামলার তদন্ত, চার্জশীট, সম্পূরক চার্জশীট দাখিল থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধকতার নানা দেয়াল সৃষ্টি হয়ে আছে।

কোকেন ধরা পড়ার ঘটনা দেশে এই প্রথম। সুদূর বলিভিয়া থেকে সূর্যমুখী ব্র্যান্ডের ভোজ্যতেল ঘোষণা দিয়ে ২০১৭ সালের ৬ জুন রাতে চট্টগ্রাম বন্দরে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের একটি দল ‘সানফ্লাওয়ার অয়েল’ ঘোষণার ১০৭ ড্রাম জব্দ করে। প্রথমে চট্টগ্রামে আটক এসব সানফ্লাওয়ার অয়েল ভর্তি নমুনায় কোকেনের অস্তিত্ব নেই বলে জানান দেয়া হলেও পরবর্তীতে ঢাকায় ল্যাব টেস্ট করার পর বেরিয়ে আসে আসল তথ্য। এতে বেশ কয়েকটি ড্রামে তরল কোকেনের অস্তিত্ব মিলে। ঘটনা তদন্তের ভার দেয়া হয় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশকে। গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (উত্তর) মোঃ কামরুজ্জামান ২০১৭ সালের ১৯ নবেম্বর বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিকসহ ৮ জনকে আসামি করে চার্জশীট দাখিল করে। ৭ ডিসেম্বর অভিযোগপত্রের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আদালতে শুনানি হয়। রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে এজাহারভুক্ত প্রধান আসামি খাতুনগঞ্জের খান জাহান আলী গ্রুপের কর্ণধার নূর মোহাম্মদের নাম না থাকায় অধিকতর তদন্তের জন্য র‌্যাবের ওপর দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। মূলত এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়। একটি বিশেষ ক্ষমতা ও আরেকটি চোরাচালান আইনে। বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলাটি নগর গোয়েন্দা পুলিশের ওপরই বর্তায়। আর চোরাচালান আইনের সম্পূরক চার্জশীট প্রদান করে র‌্যাব। তদন্ত শেষে র‌্যাব মোট ১০ জনের বিরুদ্ধে সম্পূরক চার্জশীট প্রদান করে। অভিযুক্তরা হলেনÑ চট্টগ্রামের ফঁয়সলেক এলাকায় বসবাসকারী আবদুল বারির পুত্র খান জাহান আলী গ্রুপের প্রাইম হ্যাচারির ব্যবস্থাপক গোলাম মোস্তফা সোহেল, ও আর নিজাম রোডের মৃত হাজী আবদুল কাদেরের পুত্র খান জাহান আলী গ্রুপের কর্ণধার নূর মোহাম্মদ ও তার ছোট ভাই মোস্তাক আহমেদ খান, ঢাকার সবুজবাগ থানা এলাকার মৃত মতিউর রহমানের পুত্র আবাসন ব্যবসায়ী মোস্তফা কামাল, কুমিল্লার বুড়িচং থানার বাসিন্দা ও চট্টগ্রামের সিকিউরিটিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মেহেদী আলম, ঢাকার সবুজবাগ এলাকার মৃত জাহিদুর রহমানের পুত্র ম-ল গ্রুপের বাণিজ্যিক নির্বাহী আতিকুর রহমান, চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এলাকার মোঃ ওবায়দুল হকের পুত্র সিএ্যান্ডএফ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, চাঁদপুরের মৌলভী নজরুল্লাহর পুত্র ব্রিটিশ নাগরিক ফজলুর রহমান ফজলু (পলাতক), মৌলভীবাজারের রাজানগর থানার তারামিয়ার পুত্র ব্রিটিশ নাগরিক মোঃ বকুল মিয়া (পলাতক)।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে খান জাহান আলী গ্রুপের কর্ণধার নূর মোহাম্মদ উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিন পেয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। আদালতে হাজির না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রয়েছে। এছাড়া সিএ্যান্ডএফ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম, মোস্তফা কামাল ও একেএম আজাদ ইতোমধ্যে জামিনে মুক্ত হয়েছেন। তিন আসামি কারাগারে। তারা হলেনÑ গোলাম মোস্তফা সোহেল, মেহেদী আলম ও আতিকুর রহমান। বাংলাদেশ বংশোদ্ভূত দুই ব্রিটিশ নাগরিক শুরু থেকেই বিদেশেই রয়েছেন।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৯         ‘যেকোনো অর্জন বা সাফল্যকে বিতর্কিত করা বিএনপির স্বভাব’         ২ মিনিটেই শেষ রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ ‘কিলিং মিশন’         স্কুল-কলেজে সরাসরি ক্লাস এখন আর বাড়ছে না ॥ শিক্ষামন্ত্রী         রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ৬ জনকে হত্যার ঘটনায় আটক ৮         কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার ট্রাইব্যুনালে : আইনমন্ত্রী         হঠাৎ বিশ্ববাজারে বাড়লো স্বর্ণের দাম         ‘আগামী ১৯ নবেম্বর মেয়র জাহাঙ্গীরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত‘         ডেঙ্গু : গত ২৪ ঘন্টায় আরও ২ মৃত্যু, হাসপাতালে ১৮৯         ৭ দিনের রিমান্ডে ইকবাল         নিজের বন্দুকের গুলিতে আত্মহত্যা করল বিজিবি সদস্য         বিপুল পরিমাণ অস্ত্রসহ শীর্ষ প্রতারক গ্রেফতার         হাইতিতে অপহৃত ১৭ জন মিশনারিদের হত্যার হুমকি         কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণ করতে তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প         ধর্ম অবমাননা মামলা ॥ কুমিল্লার আদালতে নেওয়া হয়েছে ইকবালকে         শাহবাগ মোড়ে গণঅনশন, তীব্র যানজট         আইএসের পশ্চিম আফ্রিকা শাখার প্রধান নিহত         যাত্রাবাড়ীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১         গ্রিসের ক্রিট দ্বীপে পাওয়া পায়ের ছাপ ৬০ লক্ষ বছরের পুরনো         ৩ বিভাগে বৃষ্টি হতে পারে