ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯

স্নায়ুযুদ্ধের পর সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়ায় ন্যাটো

প্রকাশিত: ০৪:০৩, ২৭ অক্টোবর ২০১৮

 স্নায়ুযুদ্ধের পর সবচেয়ে  বড় সামরিক মহড়ায়  ন্যাটো

একত্রিশটি দেশের প্রায় ৫০ হাজার সৈন্য, ১০ হাজার সামরিক যান ও ২৫০ যুদ্ধবিমান নিয়ে রাশিয়া সীমান্তের কাছে সামরিক মহড়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটো। নরওয়েতে বৃহস্পতিবার থেকে এ মহড়া শুরু হয়েছে। খবর ওয়েবসাইটের। ঠান্ডা আবহাওয়ায় বাল্টিক সমুদ্র থেকে আইসল্যান্ড পর্যন্ত বিস্তৃত ‘ট্রাইডেন্ট জাঙ্কচার’ নামের এ মহড়া ৭ নবেম্বর পর্যন্ত চলবে। স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তী এটিই ন্যাটোর সবচেয়ে বড় মহড়া, বলছেন বিশ্লেষকরা। রাশিয়াও গত মাসে স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তী সবচেয়ে বড় মহড়া করেছিল। তিন লাখ সৈন্যের ওই ‘ভোস্তক-২০১৮’ মহড়ায় ছিল চীন ও মঙ্গোলিয়ার সেনাও। সৈন্য ছাড়াও ছিল ৩৬ হাজার ট্যাঙ্ক ও সাঁজোয়া যান, ৮০টি যুদ্ধজাহাজ, হাজারের ওপর জঙ্গীবিমান। ওই মহড়ার পাল্টায় ইউরোপে ন্যাটো এ বড় যুদ্ধ মহড়া করছে বলে ধারণা পর্যবেক্ষকদের। আমরা এখন এখানে, উত্তরে, আমাদের সক্ষমতা প্রদর্শনে, মহড়ার শুরুতে বলেন মহড়ার নেতৃত্ব দেয়া মার্কিন এ্যাডমিরাল জেমস ফগো। শুরুর দিকে মহড়ায় ৩৫ হাজার সেনার অংশ নেয়ার কথা থাকলেও পরে এর সঙ্গে আরও সৈন্য ও মার্কিন বিমানবাহী রণতরী হ্যারি এস ট্রুম্যানকে জুড়ে দেয়া হয়। মহড়ায় যোগ দিতে গত সপ্তাহে আর্কটিক অঞ্চলে প্রবেশ করে হ্যারি এস ট্রুম্যান, সোভিয়েত পতনের পর এবারই এ পথে কোন মার্কিন বিমানবাহী রণতরী এলো।