রবিবার ৯ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

স্নিগ্ধার ‘বনেদিয়ানা’

ডিপ্রজন্ম : শুরুর গল্পটা জানতে চাই।

স্নিগ্ধা : শুরুটা তেমন ঘটা করে হয়নি। স্রেফ ছোটবেলার সুপ্ত ইচ্ছাটাকে বাস্তবায়ন করার একটি ছোট পদক্ষেপ বলা যায়। কী করব, কীভাবে করব কোন কিছুই আগে থেকে জানা ছিল না। এমনকি কারও কাছ থেকে তেমন কোন আইডিয়াও পাইনি। সাহস করে একটি ইটের গাঁথন দিলাম বনেদিয়ানা নামে। ইচ্ছা ছিল একটু ভিন্ন ধাঁচের ভিন্ন আঙ্গিকের গহনা নিয়ে কাজ করার। ছোট বেলা থেকে মামা-কাকাদের দারুণ সব চিত্রকলা দেখে মুগ্ধ হতাম। তাকিয়ে থাকতাম শুধু। একটু বড় হওয়ার পর কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছাড়া নিজেই নিজের মনের মতো আঁকাআঁকি করতাম। সেই আঁকাআঁকির পোকা মাথায় থেকে যায় এবং ইচ্ছাও ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায় ভর্তি হয়ে সেই ইচ্ছাটাকে একটা স্থায়ী রূপ দেয়ার। কিন্তু ভাগ্যদেবী সুপ্রসন্ন ছিলেন না। চলে আসতে হলো হিসাব-নিকাশের বেড়াজালে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগে। হিসাব-নিকাশের সঙ্গে সঙ্গে মাথায় ছিল বনেদিয়ানাকে একটু একটু করে বড় করে মানুষের দোরগোড়ায় এনে দাঁড় করানোর।

ডিপ্রজন্ম : নামের পেছনের গল্পটা শুনতে চাই।

স্নিগ্ধা : বনেদিয়ানা নামটি ভেবেছিলাম এই কারণে যে, যেহেতু একটু ভিন্ন টাইপের গহনা নিয়ে কাজ করব সেহেতু নামটাও একটু বনেদি টাইপ হলে মন্দ হয় না। আমাদের মেয়েদের শাড়ি গহনার প্রতি আকর্ষণ সেই প্রাচীনকাল থেকে। এখন সেই শাড়ি গহনায় এসেছে ভিন্নতা। আমি চেয়েছি বর্তমান যুগের স্টাইলের সঙ্গে প্রাচীন যুগের বনেদী স্টাইলের সংমিশ্রণে একটু ফিউশন আনার। সেই থেকে বনেদিয়ানা নামেই পরিচিত আমার ছোট স্বপ্নটি।

ডিপ্রজন্ম : কি ধরনের ম্যাটেরিয়াল ব্যবহার করেন পণ্য তৈরিতে?

স্নিগ্ধা : বনেদিয়ানার বেশিরভাগ গহনাই কাঠের ওপর বেস করে। কাঠের ওপর নানা ধরনের হাতে আঁকা নকশার প্রাধান্য পায় বেশি। নকশার মধ্যে পৌরাণিক বিভিন্ন চরিত্রকেও নিয়ে আসার চেষ্টা করি। উপমহাদেশের বরেণ্য চিত্র শিল্পী যামিনী রায়ের পেইন্টিংও স্থান পেয়েছে বনেদিয়ানার বিভিন্ন গহনায়। এছাড়াও বনেদিয়ানার মেটালের গহনা ও এখন মানুষের পছন্দের তালিকায়। কাপড়ের তৈরি কিছু গহনার ও স্থান রয়েছে বনেদিয়ানার গয়নার বাক্সে।

ডিপ্রজন্ম : বনেদিয়ানার পণ্যগুলোকে অন্যদের থেকে কেন আলাদা মনে করেন?

স্নিগ্ধা : বনেদিয়ানার গহনা নিঃসন্দেহে অন্যান্য সকলের চেয়ে আলাদা। নকশা থেকে শুরু করে সব কিছু নিজের আইডিয়ার উপর করা হয় খুব যতœসহকারে। তাই ইতোমধ্যে বনেদিয়ানার কদরও বেড়েছে বেশ। যেহেতু হাতে তৈরি, সবকিছু একটু সময় সাপেক্ষ তাই অন্যকিছুর সঙ্গে বনেদিয়ানার প্রডাক্টগুলো মিলিয়ে ফেলা চলবে না। আমরা দামের দিকটাও একইভাবে মানুষের হাতের নাগালে রাখার চেষ্টা করেছি। কম দামে ভাল কিছু দেয়ার কথা মাথায় রেখেই কাজ করে যাচ্ছি।

ডিপ্রজন্ম : ভবিষ্যত নিয়ে কি ধরনের পরিকল্পনা আছে।

স্নিগ্ধা : সামনে বনেদিয়ানাকে আরও প্রসারের চিন্তা আছে। গহনার পাশাপাশি থাকবে চিরাচরিত পোশাক সামগ্রী। দেশীয় কিছু সাধারণ উপকরণকে অসাধারণ করে তুলে ধরে সবাইকে উপহার দেয়াই আমাদের লক্ষ্য।

শীর্ষ সংবাদ:
‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টকারীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি’         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৯         ‘সাম্প্রদায়িক হামলার দায় এড়াতে পারে না ফেসবুক কর্তৃপক্ষ’         নারীরা উদ্যোক্তা হিসেবেও অনেক ভূমিকা রাখছেন ॥ শিল্পমন্ত্রী         রাজধানীতে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে : ডিএমপি         ডেঙ্গু : আরও ১ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ১৭৯         ইউপি নির্বাচন : ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের নৌকার টিকিট পেলেন যারা         ২৬ অক্টোবর আসছে নতুন রাজনৈতিক দল ‘বাংলাদেশ গণ অধিকার পরিষদ’         কৃষিপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে সারা বছরই আম পাওয়া সম্ভব ॥ কৃষিমন্ত্রী         শেখ হাসিনার সরকার হলো সবচেয়ে বেশি নারীবান্ধব ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী         কুষ্টিয়ায় ট্রাক চাপায় দুই শিশু নিহত         আবরার হত্যা মামলা ॥ ২৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড চায় রাষ্ট্রপক্ষ         বিপর্যস্ত তিস্তা অববাহিকা পরিদর্শনে বাপাউবোর প্রতিনিধি দল         অপরাধী যেই দলেরই হোক তার বিচার হবে ॥ আইনমন্ত্রী         বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের সহায়তায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো ঘুরে দাঁড়াবে ॥ শিক্ষামন্ত্রী         পায়রা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী         আমিরাত গেলেন অর্ধলক্ষাধিক যাত্রী         নোয়াখালীতে মন্দিরে হামলা ॥ ৩ আসামির ‘স্বীকারোক্তিমূলক’ জবানবন্দি         চাঁদা না দেওয়ায় মোটরসাইকেল শো-রুমে ডাকাতি করেন চক্রটি         শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তাইওয়ান