সোমবার ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

তত্ত্বাবধায়ক আর হবে না, এ অবস্থায় সব দলকে ভোটে আসতে হবে

  • সংলাপ শেষে সাবেক সিইসি শামসুল হুদা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ অবাধ সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন করার দায়িত্ব শুধু কমিশনের একার নয়। রাজনৈতিক দলগুলোর সদিচ্ছা না থাকলে কারও পক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা। তারা মনে করেন, অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য কমিশনের চ্যালেঞ্জ হলো রাজনৈতিক দলগুলোকে আস্থায় নেয়া। এক্ষেত্রে কমিশনের প্রতি সেই ধরনের আস্থার পরিবেশও কিছুটা তৈরি হয়েছে। এ অবস্থায় কমিশন কথায়, কাজে এমন কিছু করবে না যাতে আস্থার পরিবেশ নষ্ট নয়।

মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের সংলাপে অংশ নিয়ে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা সাংবাদিকদের বলেন, এবার সব রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনে আসতেই হবে। নির্বাচনে না এলে তারা মুশকিলে পড়বে। নির্বাচনে বর্জন সংস্কৃতি এবং মুশকিল এড়াতে নির্বাচনে আসতেই হবে। এবার কেউ যেন নির্বাচন বর্জনের মনোবৃত্তি না রাখেন উল্লেখ করেন তিনি। সংলাপের শেষ দিনে মঙ্গলবার আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশনার এবং এবং কমিশনের সচিবের দায়িত্ব পালন করা সাবেক কর্মকর্তাদের সঙ্গে এই সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। সংলাপে সভাপতিত্ব করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা। এ সময় তিনি সংলাপে সাবেকদের পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। বলেন, আজ খুব হাল্কা অনুভব করছি। ফেলে আসা পুরনো দিনগুলোর দিকে ফিরে তাকানোর সুযোগ হলো। ধারাবাহিক সংলাপের আজ শেষ দিন। সুদীর্ঘকালের সুশৃঙ্খল চাকরি জীবনের চমৎকার সব অর্জন থেকে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট অংশটুকু বলুন। সংলাপে গত তিনমাস ধরে মূল্যবান কথা শুনেছি। অনেক ভারি কথা শুনেছি। বিচিত্র অভিজ্ঞতার গল্প শুনতে চাই, পরামর্শ আকারে গ্রহণ করব। যতœ সহকারে তা সংরক্ষণ করব, প্রয়োগ করব উল্লেখ করেন।

প্রায় ২ ঘণ্টার বেশি ধরে চলা সংলাপ শেষে বের হয়ে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা আরও বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন করার দায়িত্ব শুধু নির্বাচন কমিশনের একার নয়। রাজনৈতিক দলগুলোরও নির্বাচন সুষ্ঠু করার ক্ষেত্রে দায়িত্ব আছে। নির্বাচন কমিশন নিজেকে শক্তিশালী করতে হবে। মানবসম্পদ উন্নয়নে জোর দিতে হবে। নিজস্ব কর্মকর্তাদের মধ্যে রিটার্নিং অফিসার করার প্রস্তাব দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনের কথা যদি বলেন, তত্ত্বাধায়ক সরকার আর হবে না। এটা সংবিধান সংশোধন করা হয়েছে। টাইম ফ্রেমে থেকে যদি আরেকটি নির্বাচন করতে হয় তাহলে ওইটা (তত্ত্বাবধায়ক) আর পারবেন না। নির্বাচনের সময়ের সরকারের বিষয়টি ইসির এখতিয়ার বহির্ভূত হওয়ায় বিদ্যমান পরিস্থিতিতেই নির্বাচন করতে হবে। যে পরিস্থিতি এবং পরিবেশ, যে অবস্থা রয়েছে তা মেনে নিয়েই নির্বাচন করতে হবে। নির্বাচনের সময়ের সরকার নিয়ে আলোচনাই হয়নি। এখানে আজ যারা ছিলেন তারা সবাই বুঝতে পেরেছেন এটা নিয়ে এখানে আলাপ করে লাভ নেই। এটা ইসির কাজ নয়।

সেনা মোতায়েন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। নির্বাহী ও বিচারিক হাকিমরা রয়েছে। এ অবস্থায় আর্মিকে এ ক্ষমতা দেবেন কিনা এ প্রশ্ন রয়ে যায়। যদি আর্মি কোথাও মোতায়েন করা হয় আর্মির অফিসার যদি দেখেন অনিয়ম হচ্ছে তাহলে তারা তখন ব্যবস্থা নিতে পারেন।

শেষদিনের সংলাপে সাবেক সিইসিদের মধ্যে- বিচারপতি মোহাম্মদ আব্দুর রউফ, এ টি এম শামসুল হুদা, সাবেক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে- মুহাম্মদ ছহুল হোসাইন, এম সাখাওয়াত হোসেন, মোহাম্মদ আবদুল মোবারক, আবু হাফিজ, মোঃ শাহনেওয়াজ, সাবেক সচিবদের মধ্যে-আবদুল করিম, মনজুর হোসেন, হুমায়ুন কবীরসহ সাবেক স্বরাষ্ট্র, জনপ্রশাসন, স্থানীয় সরকার, পুলিশ ও মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন সাবেক শীর্ষ কর্মকর্তারা অংশ নিয়েছেন।

সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আব্দুর রউফ বলেন, সরকারী কর্মকর্তাদের দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব না। তারা পলিটিক্যালি চার্জে রয়েছে, এটাই বিদ্যমান পরিস্থিতি। দেশের সমস্যা একটাই ইনডিসিপ্লিন। এটাকে শৃঙ্খলার মধ্যে না আনা হলে নিউক্লিয়ার অস্ত্র নিয়েও নির্বাচন সুষ্ঠু করা যাবে না।

সাবেক নির্বাচন কমিশনার মুহাম্মদ ছহুল হোসাইন বলেন, নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে ইসির কিছু করার নেই। সব দলকে আনতে এবং তাদের সঙ্গে আলোচনার জন্য ইসি কেবল উদ্যোগ নিতে পারে। সফল হলে ভাল, সফল না হলে দোষ থাকবে না। দলগুলোর মধ্যে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে তা মিটিয়ে সবাইকে নির্বাচনে আনতে একটি উদ্যোগ কমিশন নিতে পারে। কারণ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা তাদের দায়িত্ব। এই নির্বাচন করতে সবাইকে নিয়ে কথা বলতে পারে।

সাবেক নির্বাচন কমিশনার এম সাখাওয়াত হোসেন বলেন, তিনি গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) ২২টি ক্ষেত্রে সংস্কারের প্রস্তাব দিয়েছেন। সাবেক কমিশনার মোঃ শাহনেওয়াজ বলেন, যথাসম্ভব নির্বাচন কমিশনের নিজস্ব কর্মকর্তাদের মধ্য থেকে রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ দেয়ার প্রস্তাব করেছেন। বলেন, বিদ্যমান আইন ও সংবিধান যেটা আছে সেটাই যথেষ্ট। এর বড় কোন পরিবর্তন দরকার আছে বলে মনে হয় না। কমিশনের মূল লক্ষ্য থাকবে নির্বাচন সুষ্ঠু করা। যেহেতু সংলাপে সব দল অংশ নিয়েছে। নির্বাচনেও তারা অংশ নেবেন। এজন্য নির্বাচনটাকে সুষ্ঠু করার বিষয়ে কমিশনকে উদ্যোগ নিতে হবে।

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপের শেষদিনের সংলাপে নির্বাচন বিশেষজ্ঞদের মধ্যে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি মোহাম্মদ আব্দুর রউফ, এটিএম শামসুল হুদা, সাবেক নির্বাচন কমিশনারদের মধ্যে মুহাম্মদ ছহুল হোসাইন, এম সাখাওয়াত হোসেন, মোহাম্মদ আবদুল মোবারক, আবু হাফিজ, মোঃ শাহনেওয়াজ, সাবেক সচিবদের মধ্যে আবদুল করিম, মনজুর হোসেন, হুমায়ুন কবীরসহ সাবেক স্বরাষ্ট্র, জনপ্রশাসন, স্থানীয় সরকার, পুলিশ ও মন্ত্রণালয়ের কয়েকজন সাবেক শীর্ষ কর্মকর্তারা সংলাপে অংশ নেন। নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, সংলাপে অংশ নিতে ২৬ জনকে নির্বাচন বিশেষজ্ঞকে সংলাপে আমন্ত্রণ জানানো হলেও এতে উপস্থিত হন ১৬ জন।

শীর্ষ সংবাদ:
দুশ্চিন্তায় বিশ্ববাসী ॥ চোখ রাঙাচ্ছে ওমিক্রন         খালেদা জিয়ার অসুস্থতার জন্য বিএনপি দায়ী ॥ কাদের         ওমিক্রনের কারণে বন্ধ হবে না এইচএসসি পরীক্ষা ॥ শিক্ষামন্ত্রী         আমদানি ব্যয় কমাতে ডলারের মূল্য নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রাম চেম্বারের আহ্বান         সুপ্রীমকোর্টে শারীরিক উপস্থিতিতে বিচার কাল থেকে         অন্তুর বাসায় মাংস রেঁধে খেয়ে কিলিং মিশনে অংশ নেয় ৭ জন         ফেব্রুয়ারির প্রথম দিন থেকেই একুশে বইমেলা         গুলশানে আবাসিক ভবনে আগুন         করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন: ‘উচ্চ ঝুঁকি’র দেশের ভারতীয় তালিকায় বাংলাদেশ         এবার ময়লার গাড়িতে ক্যামেরা বসাবে উত্তর সিটি ডিএনসিসি         ১২৭৫ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে এডিবি         বিএনপির শিখিয়ে দেওয়া বক্তব্য দিয়েছেন ডাক্তাররা : তথ্যমন্ত্রী         খালেদার জন্য বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনার অনুমতি আছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী         হাফ ভাড়া : সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন পরিবহন মালিক সমিতি         গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি আরও ৭৫ ডেঙ্গুরোগী         ওমিক্রনের কারণে এইচএসসি পরীক্ষা বন্ধ হবে না : শিক্ষামন্ত্রী         বিনিয়োগের জন্য বাংলাদেশ এখন অত্যন্ত বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ : আইনমন্ত্রী         কোভিড ১৯ : করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৭         মাদারীপুরে শিশু আদুরী হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ         মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের