ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

ডিসির অপসারণ দাবীতে চিকিৎকদের মানবন্ধন অব্যাহত

প্রকাশিত: ০১:৩৫, ২৪ অক্টোবর ২০১৭

ডিসির অপসারণ দাবীতে চিকিৎকদের মানবন্ধন অব্যাহত

নিজস্ব সংবাদদতা, পাবনা ॥ জেলা প্রশাসকের বাসায় চিকিৎসক না পাঠানোর অভিযোগে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মঞ্জুরা রহমানেরকে ওএসডির প্রতিবাদে চিকিৎসকরা ২য় দিনের মতো মানবন্ধন অব্যাহত রেখেছে। মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতাল চত্ত্বরে বিএমএ এ কর্মসুচি পালন করে। ঘন্টাব্যাপি চলা এ মানবন্ধনে হাসপাতালের সকল চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা কর্মচারী ও ইন্টার্ন চিকিসক ও বে-সরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষানবিস শিক্ষার্থীরা এই কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন করেন। মানববন্ধনে চিকিৎসকদের হাতে জেলা প্রশাসকের অপারণ দাবী সম্বলিত বিভিন্ন ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড ছিল। প্রতিবাদ মানববন্ধ কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন, পাবনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ রিয়াজুল হক রেজা, শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক ডাঃ আহমদে তাউস, ডা: জাহেদী হাসান রুমী, ডা: শাহিন ফেরদৌস শানু, ইন্টার্ন চিকিসক পরিষদের সভাপতি ডাঃ শাহা আলম শোভন প্রমুখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভুতভাবে আমাদের হাসপাতালের সহকারী পরিচালককে ওএসডি করা হয়েছে। পাবনা জেলা প্রশাসক যে অভিযোগ এনেছেন সেটি সঠিক না। একই সাথে জেলা প্রশাসককে চিকিৎসা না দেয়ার অভিযোগে হাসপাতালের সহকারি পরিচালকের ওএসডি অবিলম্বে প্রত্যাহের আহবান জানান। ওই আদেশ প্রত্যাহার না করা হলে কঠোর কর্মসূচীর ঘোষনা দেন বক্তারা। এ সময় তারা জেলা প্রশাসকের অপসারণ দাবীও করেন। ঘটনার বিষয়ে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচাল ডাঃ মঞ্জুরা রহমান বলেন, বুধবারে তার অফিসিয়াল টেলিফোনে নাম প্রকাশ না করে ফোন দিয়ে ছিলেন, তবে বা কা কাছে বা কোথায় যেতে হবে তিনি বলেননি। তবে পরে আমি জানতে পারি তিনি ডিসি অফিস থেকে ফোন দিয়েছিলেন। আমরা সবসময় জেলার গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের গুরুত্ব দিয়ে সেবা প্রদান করে থাকি। তবে এ কারণে আমাকে দায়িত্ব থেকে অপসারন করা হয়েছে এটি আমার জন্য লজ্বাজনক। কোন প্রকারের তদন্ত ছাড়া এই ধরনের সিদ্ধান্ত মনে নেয়া কষ্টকর। আমি মন্ত্রনালয়কে অনুরোধ করবো সঠিক তদন্ত করে ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হোক। এব্যাপারে পাবনা বিএমএর সভাপতি গোলজার হোসেন জানান, এই ধরনের ঘটনার আমরা তিব্র নিন্দা জানাই। কোন প্রকারের তদন্ত ছাড়া একজন দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার নিয়ম বাতিল করতে হবে। আমারা এই ডিসির অপসারণের দাবী করছি। এ বিষয়ে পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো জানিয়েছেন, ঘটনার বিষয়ে আমি কোন কিছু জানি না। কারা কখন ফোন দিয়েছে এটিও বলতে পারছি না। তবে আমার শরির খারাপ করেছিলো আমি সিভিল সার্জনকে ফোন দিয়েছিলাম তিনি এসে আমার পেসার মেপে গেছেন। কারা কি কারণে আমার সঙ্গে তাকে জরিয়ে এই প্রচার চালাচ্ছে তা বলতে পারবো না। তবে আমি কারো কাছে কোন প্রকারের অভিযোগ করিনি বা কাউকে ফোন দেইনি। প্রসঙ্গত, গত বুধবার পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো অসুস্থ হলে জনৈক ম্যাজিষ্ট্রেট জেনারেল হাসপাতালের সহকারি পরিচালককে বাসায় গিয়ে চিকৎসার জন্যে বলা হয়। তিনি যেতে অপারগতা প্রকাশ করলে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়ে ওএসডি করানো হয়।
monarchmart
monarchmart