বুধবার ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

জামায়াতের আরেকটি নাশকতার ছক, অনলাইন প্রপাগান্ডা!

  • শতাধিক নিউজ পোর্টাল শনাক্ত, ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু

গাফফার খান চৌধুরী ॥ নাশকতা পরিকল্পনার পাশাপাশি রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী ব্যাপক প্রপাগান্ডা চালানোর অভিযোগ উঠেছে জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে। তারা নামকাওয়াস্তে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল তৈরি করে প্রপাগান্ডা চালিয়ে আসছে। বিদেশে অবস্থানরত প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা সম্পর্কেও মিথ্যা তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। এছাড়াও রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের যুদ্ধ বাধিয়ে দিতে ভুয়া ভিডিও তৈরি করে তা ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছেড়ে দিয়েছে। মানুষের মধ্যে সরকারবিরোধী মনোভাব সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। উদ্দেশ্যপূর্ণ ভিডিওতে নানান উস্কানিমূলক কথাবার্তাও রয়েছে। এমন শতাধিক অনলাইন নিউজ পোর্টালকে শনাক্ত করেছেন গোয়েন্দারা। এসব ভুয়া অনলাইন পোর্টালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

গত ৯ অক্টোবর রাতে রাজধানীর উত্তরার ৬ নম্বর সেক্টরের ১১ নম্বর রোডের ৩ নম্বর বাড়িতে রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র করার লক্ষ্যে গোপন বৈঠককালে জামায়াতে ইসলামীর আমির মকবুল আহমাদ, নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরওয়ার ও সেক্রেটারি জেনারেল ডাঃ শফিকুর রহমানসহ নয়জন ডিবি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। তাদের মধ্যে ছয়জনই কেন্দ্রীয় জামায়াত নেতা। বাকি তিনজন চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের আমির মোহাম্মদ শাহজাহান, চট্টগ্রাম মহানগর জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল নজরুল ইসলাম ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা জামায়াতের আমির জাফর সাদিক। তাদের দশ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ডিবি পুলিশ। রিমান্ডে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যায় কদমতলীর ধনিয়ার নূরপুরে একটি পাঁচতলা বাড়ির দোতলায় গোপন বৈঠকের সময় পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় জামায়াতের ছাত্রী সংস্থার ২১ নেতাকর্মী। কদমতলী থানার ওসি এমএ জলিল জানান, বাড়িটি প্রয়াত জামায়াত নেতা মোয়াজ্জেম হোসেনের।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার দেশে ফেরার বিষয়টি আগাম জেনে জামায়াত ও তাদের অঙ্গসংগঠনগুলো আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কর্মপরিকল্পনা ঠিক করা, সরকারকে চাপে রাখতে নানা নাশকতামূলক কর্মকান্ড ছাড়াও কী কী করা যায়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকারকে বিব্রত করতে করণীয় কী, অর্থায়ন, নির্বাচনে জামায়াত বিএনপির কাছে কতগুলো আসন চাইবে, কী পদ্ধতিতে নির্বাচনে কর্ম পরিচালনা করা হবে, নেতাকর্মীদের অবস্থান, বিদেশে দলটির কর্মকা- কেমন হবে, কোন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হবে, মাঠপর্যায়ে কারা নাশকতা চালাবে, জেলে থাকা নেতাকর্মীদের বিষয়ে করণীয়সহ বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ করতে তারা ধারাবাহিক বৈঠক শুরু করেছে। এমন পরিকল্পনার বিষয়ে আলোচনা করতে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির একটি অনানুষ্ঠানিক রুদ্ধদ্বার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। ওই বৈঠকে জামায়াত তাদের কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে বিএনপি চেয়ারপার্সনকে অবহিত করবে।

সূত্র বলছে, তারা অত্যন্ত গোপনে এসব বৈঠকের আয়োজন করছে। কোন কোন জায়গায় পরিকল্পনা মোতাবেক তাৎক্ষণিক বৈঠকও হচ্ছে। তাদের আইনের আওতায় আনা যাচ্ছে না। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পোস্টারে কী ধরনের সেøাগাণ থাকবে, সে সম্পর্কেও বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। জামায়াতের সব অঙ্গসংগঠনকে ইতোমধ্যেই দলের তরফ থেকে সুবিধাজনক জায়গায়, সুবিধাজনক পরিস্থিতিতে গ্রেফতার এড়িয়ে বৈঠক করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই নির্দেশনা মোতাবেক কোন কোন জায়গায় ভিন্ন রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাসী প্রভাবশালী মানুষের বাড়িতেও বৈঠক হয়েছে।

সরকারের একটি উচ্চপর্যায়ের গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, দেশ-বিদেশের মানুষের মধ্যে সরকারবিরোধী মনোভাব সৃষ্টি করতে আচমকা দেশে মারাত্মক নাশকতা চালানোরও পরিকল্পনা রয়েছে জামায়াত-শিবিরের। নাশকতা চালানোর দায়িত্বে রয়েছে ছাত্রশিবির ও জঙ্গী সংগঠনগুলো। নাশকতা চালানোর পাশাপাশি জামায়াত-শিবির ভুয়া নামে খোলা শত শত অনলাইন পোর্টাল ও ভুয়া ফেসবুক থেকে রাষ্ট্র ও সরকারবিরোধী নানা প্রপাগান্ডা চালাচ্ছে। সম্প্রতি প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহাকে নিয়ে ভুয়া ইউটিউব এ্যাকাউন্ট থেকে বহু আপত্তিকর বক্তব্য প্রচার করা হয়েছে। এমনকি এস কে সিনহার সঙ্গে সেনাপ্রধানের বৈঠকের চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস হয়েছে বলেও প্রচার করা হয়েছে। এছাড়া প্রধান বিচারপতি নিখোঁজ! সরকার পতনের ইঙ্গিত দিয়ে এশিয়ার সকল বিচারপতির সঙ্গে এস কে সিনহার দেখা-সাক্ষাত, মিয়ানমারের বহু যুদ্ধবিমান ও যুদ্ধজাহাজ অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, নৌবাহিনী যুদ্ধজাহাজ ক্রয় করছে, ৮৪ জনকে নিয়ে দেশ থেকে পালাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী ইত্যাদি বিভ্রান্তি ও উস্কানিমূলক বক্তব্য ও ভিভিও প্রচার করা হচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
‘আফ্রিকা থেকে এলেই বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন’         দেশ থেকে পালাতে চেয়েছিলেন রাজশাহীর মেয়র আব্বাস         রাস্তায় নেমে গাড়ি ভাঙচুর করা ছাত্রদের কাজ না ॥ প্রধানমন্ত্রী         অস্ট্রেলিয়ায় নারী পার্লামেন্ট সদস্যদের ৬৩ শতাংশই যৌন হয়রানির শিকার         বোট ক্লাব মামলা ॥ সব আসামির নাম না থাকায় পরীমনির আপত্তি         জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের মৃত্যুতে জবির শোক         শতাধিক সাবেক নিরাপত্তা সদস্যকে খুন করেছে তালেবান ॥ এইচআরডব্লিউ         ঢাকা মেডিক্যালে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামির মৃত্যু         কুয়াকাটায় টোয়াকের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত         ওমিক্রন ঠেকাতে প্রবাসীদের আসতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে         বগুড়ার শেরপুরে ট্রাকের ধাক্কায় দুই মটরসাইকেল অরোহী নিহত         ডাসারে মোটরসাইকেল চাপায় ইউপি সদস্য নিহত         রামপুরায় বাসে আগুন ও ভাঙচুর ॥ আসামি ৮০০         যুক্তরাষ্ট্রে কিশোরের গুলিতে নিহত ৩, আহত ৮         রেফারিকে হত্যার হুমকি আর্জেন্টাইন ফুটবলারের         ৯ দফা দাবিতে রামপুরায় শিক্ষার্থীদের অবরোধ         শারীরিক উপস্থিতিতে শুরু হলো আপিল বিভাগের বিচারকাজ         গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে ২ হাজার ৩০০ জনের         বায়োএনটেক প্রধান ওমিক্রন নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন         সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়