ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ০২ জুলাই ২০২২, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

খেলা

পরের বিশ্বকাপে নাও দেখা যেতে পারে এই হেভিওয়েট দলগুলিকে

প্রকাশিত: ২১:০৯, ৩১ মার্চ ২০১৭

পরের বিশ্বকাপে নাও দেখা যেতে পারে এই হেভিওয়েট দলগুলিকে

অনলাইন ডেস্ক ॥ পরবর্তী বিশ্বকাপের জন্য কোন কোন দল রাশিয়া পাড়ি দেবে? উত্তরটা এখনও পুরোপুরি জানা নেই। কারণ, তারই লড়াই চলছে জোরকদমে। ইতিমধ্যেই যোগ্যতা নির্ধারণকারী পর্বে দেখা গিয়েছে বেশ কয়েকটি চমক জাগানো ফলাফল। এর মাঝেই উঠে এসেছে বেশ কয়েকটি দলের হতাশা ভরা পারফরম্যান্স। শেষমেশ এই হেভিওয়েট দলগুলি কি রাশিয়ার টিকিট পাবে? দেখা দিয়েছে সংশয়। গ্যালারিতে দেখে নিন এই দলগুলি কারা। দিয়েগো মারাদোনা অবসর নেওয়ার পর আন্তর্জাতিক আসরে আর্জেন্তিনার বড়সড় সাফল্য বলতে ১৯৯৩-তে কোপা আমেরিকায় চ্যাম্পিয়ন হওয়া। দু’বারের বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্তিনার পথও এ বার মসৃণ নয়। লাতিন আমেরিকার গ্রুপ থেকে ব্রাজিল ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এর পরে আরও তিনটি দল বিশ্বকাপ খেলতে রাশিয়া যেতে পারবে। এই গ্রুপে পঞ্চম দলটি অবশ্য প্লে-অফে খেলার সুযোগ পাবে। তবে চিলে ম্যাচে লাইন্সম্যানকে গালিগালাজ করে আপাতত ৪টি ম্যাচে খেলতে পারবেন না লিওনেল মেসি। ফলে পঞ্চম স্থানাধীকারী আর্জেন্তিনার পক্ষে কাজটা সহজ নয়। ১৯৭৪, ’৭৮ ও ২০১০— তিন বার ফাইনালে উঠেও বিশ্বকাপ অধরাই থেকে গিয়েছে নেদারল্যান্ডসের। গত ইউরো কাপে যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি অর্জেন রবেনদের দল। আগামী বিশ্বকাপেরও ডাচদের দেখা যাবে কি না তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। ফ্রান্স, সুইডেন ও বুলগেরিয়া পর গ্রুপে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ডাচরা। তা ছাড়া, বুলগেরিয়ার বিরুদ্ধে হারের পর ম্যানেজার ড্যানি ব্লাইন্ডকে তাড়িয়ে ইতিমধ্যেই টালমাটাল জাতীয় দল। ২০০২-র ফিফা বিশ্বকাপে সেমি ফাইনালে উঠেও হেরে যায় তুরস্ক। শেষমেশ তৃতীয় স্থানে শেষ করেছিল তারা। তার পর থেকে অবশ্য বিশ্বকাপের যোগ্যতাই অর্জন করতে পারেনি তুরস্ক। ২০০৮-এ ইউরো কাপের সেমি ফাইনালে পৌঁছলেও এ বছর বিশ্বকাপে যেতে হলে তাদের অনেক দূর যেতে হবে। হারাতে হবে ক্রোয়েশিয়া ও আইসল্যান্ডের মতো দলকে। উয়েফা ‘আই’ গ্রুপে এখন চার নম্বরে রয়েছে তুরস্ক। এই গ্রুপ থেকে দু’টি দল কোয়ালিফাই করবে। ১৯৫৮-এর পর গত বছর ইউরো কাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে ফুটবল দুনিয়াকে চমক দিয়েছিল ওয়েলস। পড়শি ইংল্যান্ড-সহ বেলজিয়ামকে হারিয়ে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দেন গ্যারেথ বেল, অ্যারন র্যালমসেরা। পর্তুগালের কাছে হারলেও দেশে ফিরে বিজয়ীর সংবর্ধনা পেয়েছিলেন তাঁরা। তবে ২০১৮-র বিশ্বকাপে খেলতে পারবে কি না তা নিয়েই এখন বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন দেখা দিয়েছে। আপাতত উয়েফা গ্রুপে সার্বিয়া ও আয়ার্ল্যান্ডের পরে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ওয়েলস। ওই গ্রুপের প্রথম স্থানাধিকারী দল সরাসরি বিশ্বকাপে খেলতে পারবে। আর দু’নম্বর দলের কাছে প্লে-অফের খেলার সুযোগ থাকবে। আফ্রিকা কাপ অব নেশনস জিতলেও ক্যামেরুনের সামনেও বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। যোগ্যতা নির্ধারণকারী পর্বের শুরুতেই আলজিরিয়া ও জাম্বিয়ার সঙ্গে ড্র করে ভিনসেন্ট আবুবকরের দল। শক্তিশালী নাইজিরিয়ার থেকে এখনও ৪ পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছে ক্যামেরন। বিশ্বকাপে খেলতে তাই দুরন্ত পারফরম্যান্স দেখাতে হবে পরের ম্যাচগুলিতে। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা