ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

মালয়েশিয়ায় মার্চের প্রথমার্ধেই কর্মী পাঠানো শুরু হবে

প্রকাশিত: ২০:১৫, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

মালয়েশিয়ায় মার্চের প্রথমার্ধেই কর্মী পাঠানো শুরু হবে

অনলাইন রিপোর্টার॥ বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সিজ-বায়রা জানিয়েছে, মার্চের প্রথমার্ধেই মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানো শুরু হতে যাচ্ছে। ১০ থেকে ১৫ মার্চের মধ্যে প্রথম ফ্লাইটটি যাওয়ার কথা রয়েছে। রবিবার রাজধানীর ইস্কাটনে বায়রা সভাকক্ষে অভিবাসী বিষয়ক সাংবাদিকদের নবগঠিত সংগঠন ‘জার্নালিস্ট ফোরাম অন মাইগ্রেশন (জেএফএম)- এর সঙ্গে মতবিনিময়কালে বায়রা নেতৃবৃন্দ একথা জানান। মতবিনিময়ে বায়রা সভাপতি বেনজীর আহমদ বলেন, মালয়েশিয়াসহ বিশ্বের শ্রমবাজারে দক্ষ শ্রমিকের চাহিদা রয়েছে। আমাদের এখানে দক্ষ শ্রমিকের অভাব। বিশ্বমানের একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করতে ৩০ কোটি টাকার মত লাগবে। কিন্তু এই অর্থ কে দেবে? সেজন্য আমাদের দাবি, জনশক্তি রপ্তানি খাতকে যেন শিল্প হিসাবে ঘোষণা করা হয়। জনশক্তি রপ্তানি নিয়ে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন করার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, একটি প্রতিবেদনের জন্য যেন কোনো দেশে জনশক্তি রপ্তানি বন্ধ হয়ে না যায়। বায়রা’র মহাসচিব রুহুল আমিন স্বপন বলেন, জনশক্তি নেওয়ার ক্ষেত্রে একেক দেশের নীতি একেকরকম থাকে। আজকে যেটা নেতিবাচক মনে হচ্ছে কাল সেটা ইতিবাচক হতে পারে। বায়রা’র যুগ্ম-মহাসচিব শামীম আহমেদ চৌধুরী (নোমান) বলেন, জনশক্তি রপ্তানি খাত দেশের জিডিপিতে ১৫.৯ ভাগ অবদান রাখলেও এখানে সরকারের কোন সুযোগ-সুবিধা নেই। বায়রা নেতা ফখরুল ইসলাম বলেন, সৌদিআরব কর্তৃপক্ষ ২৫ শতাংশ নারী কর্মী পাঠাতে আমাদের বাধ্য করছে, নইলে ভিসা দিচ্ছে না। বায়রার নির্বাহী কমিটির সদস্য রেদোয়ান খান ও হাবিব উল্যাহ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। মতবিনিময়ে জেএফএম নেতাদের মধ্যে অংশ নেন- সংগঠনের সভাপতি মনির হোসেন, শামসুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম আজাদ, মঞ্জুর এ আজিজ, রকিবুল হক, মামুন, রফিক মজুমদার, রেজা মাহমুদ, সুজন, রবিউল, এম এম বাদশা, সাখাওয়াত কাউসার, মাসুদ রানা, সাইদুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন ও শুক্কুর আলী শুভ প্রমুখ। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক সভাপতি জামাল উদ্দীন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ ও সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামছুদ্দীন আহমেদ এসময় উপস্থিত ছিলেন।