ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

মুম্বাইয়ে সাংবাদিক প্রতিনিধি দল

ব্যাংকিং ও শেয়ার মার্কেট বিকাশে সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত ভারত

প্রকাশিত: ০৬:১২, ৮ অক্টোবর ২০১৬

ব্যাংকিং ও শেয়ার মার্কেট বিকাশে সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত ভারত

তৌহিদুর রহমান, মুম্বাই থেকে ॥ বাংলাদেশের ব্যাংাকিং ও শেয়ার মার্কেট খাত বিকাশে সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত ভারত। বিশেষ করে শেয়ার মার্কেটে জালিয়াতি ও প্রতারণা রোধে সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ কমিশনের দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করবে ভারত। এছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির পর সাইবার সিকিউরিটি নিয়ে সতর্ক ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। মুম্বাইয়ে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া ও সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পৃথক বৈঠকে এসব তথ্য জানানো হয়। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আমন্ত্রণে বাংলাদেশের একটি সাংবাদিক প্রতিনিধি দল মুম্বাইয়ে ভারতের রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া ও সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ডের কর্মকর্তাদের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন। এ সময় রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার প্রাইসেস এ্যান্ড মানিটারি রিসার্চ বিভাগের পরিচালক গুনজিত কর ভারতের ব্যাংাকিং ব্যবস্থার চিত্র তুলে ধরেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে গুনজিত কর বলেন, পুনেতে ব্যাংক ইনস্টিটিউট রয়েছে। সেখানে বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংকের কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণের জন্য এসে থাকেন। আমরা এ বিষয়ে আরও সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছি। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে গুনজিত কর বলেন, গণমাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির বিষয়ে অবহিত হয়েছি। ভারত অবশ্য এখনও এই ধরনের সমস্যায় পড়েনি। বাংলাদেশের ওই ঘটনার পরে আমরা অনেক সতর্ক। সকল দেশেরই ব্যাংকিং খাতে সাইবার সিকিউরিটি বৃদ্ধিতে জোর দেয়া প্রয়োজন। অবশ্য আমাদের (ভারতের) প্রযুক্তিবিদরা এখন সাইবার নিরাপত্তায় সবচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ভারতের বেসরকারী ব্যাংকের পরিচালক নিয়োগে কোন রাজনৈতিক চাপ থাকে না। সার্চ কমিটিই ব্যাংকের পরিচালক নিয়োগ করে থাকে। পরিচালনা বোর্ড পরিচালক নিয়োগ দিয়ে থাকে। আমরা শুধু বিষয়গুলো মনিটরিং করে থাকি। বিভিন্ন সময়ে পরামর্শও দেই। এদিকে মুম্বাইয়ের সিকিউরিটিজ অব এক্সচেঞ্জ বোর্ড অব ইন্ডিয়ার (এসইবিআই) কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বাংলাদেশের সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (এসইসি) তারা বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছেন। বৃহস্পতিবার মুম্বাইয়ের এসইবিআই কর্মকর্তাদের সঙ্গে মুম্বাইয়ে সফররত বাংলাদেশের সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান তারা। এসইবিআইয়ের আজীবন সদস্য এস রমণ সাংবাদিকদের বলেন, শেয়ারবাজার পরিচালনায় প্রতিটি দেশের সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জকে দক্ষ হতে হয়। কেননা দক্ষভাবে শেয়ারবাজার পরিচালনা না করলে এখানকার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ব্যাপক ক্ষতি হতে পারে। তাই দক্ষতা বাড়ানো ছাড়া কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ভারতের এসইবিআই প্রতিষ্ঠান অত্যন্ত দক্ষ। এখানে বাংলাদেশের স্টক এক্সচেঞ্জের কর্মকর্তারা বিভিন্ন সময়ে এসে প্রশিক্ষণ নিয়ে গেছেন। আমরা বাংলাদেশকে এ বিষয়ে আরও সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রয়েছি। এক প্রশ্নের উত্তরে এস রমণ বলেন, অনেকেই না বুঝে শেয়ারে বিনিয়োগ করেন। আবার অনেকেই লোকমুখে শুনে শুনে শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ করে থাকেন। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই বুঝে শুনে বিনিয়োগ করা প্রয়োজন। শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগের জন্য সাধারণ মানুষকে সচেতন করাটাও স্টক এক্সচেঞ্জের দায়িত্ব বলে তিনি মন্তব্য করেন। এস রমণ আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত একই ঐতিহ্য-সংস্কৃতি বহন করে চলেছে। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের মধ্যে দিয়ে দুই দেশের ঐতিহাসিক বন্ধন তৈরি হয়েছে। সে কারণে বাংলাদেশের শেয়ার মার্কেট পরিচালনায় দক্ষতা অর্জনে সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত ভারত। এ সময় এসবিআইয়ের চীফ জেনারেল ম্যানেজার অমরজিৎ সিং ও এন হরিহরণ প্রমুখ কর্মকর্তা বক্তব্য রাখেন।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২