ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

পরীক্ষামূলক

রিহ্যাব আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা

উন্নয়নের স্বার্থে রাজউকের ব্যবসা বন্ধ করে দেয়া উচিত

প্রকাশিত: ০৪:৪৬, ৫ অক্টোবর ২০১৬

উন্নয়নের স্বার্থে রাজউকের ব্যবসা বন্ধ করে দেয়া উচিত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ উন্নয়নের স্বার্থে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (রাজউক) ব্যবসা বন্ধ করতে হবে বলে জানিয়েছেন সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শেখ শহিদুল ইসলাম। মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সুন্দরবনে ‘বিশ্ব বসতি দিবস’ উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি। সভার আয়োজন করে রিয়েল এ্যাস্টেট এ্যান্ড হাউজিং এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (রিহ্যাব)। শেখ শহিদুল ইসলাম বলেন, রাজউকের কাজ হলো রাজধানী ঢাকাকে পরিকল্পিত নগরী হিসেবে তৈরি করতে উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়ন করা। কিন্তু রাজউক তা না করে ব্যবসায় নেমেছে। ফলে ঢাকাকে পরিকল্পিত নগরীতে পরিণত করতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই সরকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাজউকের উচিত ব্যবসা বন্ধ করে উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ করা। আলোচনা সভায় রিহ্যাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওনের সভাপতিত্বে আলোচনায় আরও বক্তব্য দেন সাংবাদিক আবু সাঈদ খান, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাকসুদুর রহমান, রিহ্যাবের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট লিয়াকত আলী ভূইয়া প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রিহ্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট (এ্যাডমিন) প্রকৌশলী সরদার মোঃ আমিন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন রিহ্যাবের ভাইস প্রেসিডেন্ট (ফিন্যান্স) প্রকৌশলী মোহাম্মদ সোহেল রানা। নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন বলেন, আবাসন খাতের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সমস্যা রয়েছে। কিছু ব্যবসায়ী ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে দ্রুত সময়ে শতকোটি টাকার মালিক হয়েছেন; যা পৃথিবীর অন্য কোথাও সম্ভব নয়। দেশের উন্নয়নে এ খাতের ব্যবসায়ীদের মনোভাবের পরিবর্তন করতে হবে। আমাদের উচ্চ মুনাফার ধারা থেকে বের হয়ে আসতে হবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের দেয়া ট্যাক্সের টাকায় চলে সরকার। আবার দেশের হাউজিং খাতের উন্নয়নে কাজ করছে রিহ্যাব। সবকিছুর পরও এ খাতে অসহযোগিতামূলক আচরণ করছে সরকার। এ খাতকে শিল্প হিসেবে বিবেচনা করা হলে এর উন্নয়ন সম্ভব। রিহ্যাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, শহরাঞ্চল ছাড়াও রিহ্যাবকে জেলা, উপজেলা পর্যায়ে কাজ করতে হবে। গৃহায়ণ খাতে ভর্তুকির ব্যবস্থা করতে হবে। ক্রেতাদের সিঙ্গেল ডিজিটে ব্যাংক ঋণের ব্যবস্থা করতে হবে। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নাগরিক সংহতির সাধারণ সম্পাদক শরিফুজ্জামান শরিফ। রাজধানীমুখী জনস্রোত ঠেকাতে গ্রামে কর্মসংস্থানের ক্ষেত্র তৈরি করা, খাসজমি চিহ্নিত করে ভূমিহীনদের মধ্যে বিতরণ করা, গৃহ নির্মাণে সুদের হার কমিয়ে আবাসন ঋণ তহবিল গঠন, জাতীয় বাজেটে আবাসন খাতের জন্য বরাদ্দ রেখে তহবিল গঠনের সুপারিশ করেন তিনি।
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২
ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২২