বৃহস্পতিবার ২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ০৯ জুলাই ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

চট্টগ্রামে কুতুবদিয়া দ্বীপ রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সমুদ্রের উত্তাল ঢেউয়ের আঘাতে অব্যাহত ভাঙ্গনে কুতুবদিয়া দ্বীপের আয়তন বর্তমানে এক-পঞ্চমাংশে এসে পৌঁছেছে। ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। সাগরকন্যা খ্যাত এ দ্বীপকে রক্ষায় সরকারের কার্যকর জরুরী উদ্যোগ গ্রহণ করা না হলে অদূর ভবিষ্যতে এটি সাগরগর্ভে তলিয়ে যাবে। দ্বীপটি রক্ষায় এবং এর উন্নয়নে ৫ দফা দাবি তুলে ধরেছে কুতুবদিয়া উন্নয়ন ফোরাম নামের একটি সংগঠন। যার মধ্যে রয়েছে দ্বীপের চারপাশে স্থায়ীভাবে বেড়িবাঁধ মেরামত ও সংস্কার, বেড়িবাঁধের ভেতরে ও বাইরে বনায়ন প্রকল্প গ্রহণ ও নতুন বাগান সৃজন, জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে বিদ্যুত সংযোগ ব্যবস্থা, পর্যাপ্ত ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ এবং দ্বীপটিকে পর্যটন কেন্দ্র ঘোষণা এবং যাতায়াতের সুবিধা উন্নত করা। শুক্রবার সকালে কুতুবদিয়া উন্নয়ন ফোরামের ব্যানারে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় মানববন্ধন। এরপরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসব দাবি তুলে ধরা হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ফোরামের মোঃ কাইমুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন মোঃ সফিউল আলম কুতুবী, প্রফেসর ড. কামাল হোসেন, মোয়াজ্জেমুল হক, মজিবুল হক সিদ্দিকী বাচ্চু, শাহজাদা মনিরুল মান্নান, ফোরামের পক্ষে মোঃ তাজ উদ্দিন, প্রকৌশলী মীর মোশাররফ হোসাইন, সরোয়ার আলম, মোঃ আজম। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, চট্টগ্রাম থেকে ৪৫ মাইল দক্ষিণ-পূর্বে এবং কক্সবাজার থেকে ৩৫ মাইল উত্তর-পশ্চিমে কুতুবদিয়া দ্বীপের অবস্থান। এটি কক্সবাজার জেলার ৮ উপজেলার মধ্যে একটি। গোড়াপত্তনের লগ্নে এটির আয়তন ছিল ৯৭ বর্গমাইল। ঝড়, জলোচ্ছ্বাস ও সাগরের উত্তাল ঢেউয়ের আঘাতে প্রতিনিয়ত ভাঙ্গনে এটির আয়তন ২০ বর্গমাইলে এসে পৌঁছেছে। দ্বীপটির লোকসংখ্যা দেড় লক্ষাধিক। আয়তনে ছোট হলেও দ্বীপটি প্রাকৃতিক সম্পদ ও পর্যটন শিল্পের জন্য অপার সম্ভাবনার। সঙ্গত কারণে দ্বীপটি রক্ষায় সরকারের জরুরী দৃষ্টি প্রয়োজন। সরকার ইচ্ছা করলে সেনাবাহিনীর সহায়তায় দ্বীপের চারপাশে প্রায় ৪১ কিলোমিটার উপকূলীয় বাঁধ সংস্কার ও মেরামতের জন্য সিদ্ধান্ত দিতে পারে। সাংবাদিক সম্মেলনে কুতুবদিয়া দ্বীপের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
সিরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা শক্তিশালী করবে ইরান         জেনারেল সোলাইমানি হত্যা ॥ বোল্টনের দাম্ভিক উক্তির জবাব দিল রাশিয়া         করোনায় হলেও দম্ভ যায়নি ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্টের!         বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত ১ কোটি ২০ লাখ         কাতারে আক্রান্ত লাখ ছাড়ালেও সুস্থই ৯৬ হাজারের বেশি         করোনা ॥ বাংলাদেশে আরও উদ্বেগজনক পরিস্থিতির আশঙ্কা         মার্কিন মাদক পাচারকারী বিমান ধ্বংস করল ভেনিজুয়েলার বিমানবাহিনী         বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি ॥ ময়ূর-২ এর মালিক মোসাদ্দেক গ্রেফতার         উখিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ রোহিঙ্গা নিহত, ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধার         শক্তিশালী পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে জাপান         বিদেশি শিক্ষার্থী ফেরত পাঠানোর বিরুদ্ধে মার্কিন আদালতে মামলা         সিরিয়ায় ত্রাণ সহায়তার অজুহাতে পাশ্চাত্যের ষড়যন্ত্রমূলক পরিকল্পনা ব্যর্থ         ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আহ্বান পম্পেওর         জম্মু-কাশ্মীরে বাবা-ভাইসহ বিজেপি নেতাকে গুলি করে হত্যা         মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর যে বক্তব্যে দুঃখ প্রকাশ করলেন সের্গেই ল্যাভরভ         জোড়া লাল কার্ডের ম্যাচে বার্সার জয়         হংকংয়ের শিক্ষার্থীদের রাজনৈতিক কার্যক্রম নিষিদ্ধ         ভারতীয় সেনাদের ফেসবুকসহ ৮৯টি অ্যাপ ব্যবহার নিষিদ্ধ         রিজেন্টের অনিয়ম খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিয়েছি         চিকিৎসা প্রতারক সাহেদের উত্থান বিস্ময়কর        
//--BID Records