বুধবার ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের অভিশংসন প্রক্রিয়া‌ সংশয়ের মুখে

ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের অভিশংসন প্রক্রিয়া‌ সংশয়ের মুখে

অনলাইন ডেস্ক ॥ ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফের অভিশংসন প্রক্রিয়া‌ সংশয়ের মুখে পড়েছে। অভিশংসন নিয়ে এপ্রিলে হওয়া সংসদের নিম্নকক্ষের গুরুত্বপূর্ণ ভোটকে নাকচ করেছেন ভারপ্রাপ্ত স্পিকার।

যদিও সিনেট প্রধান জানিয়েছেন সিনেটে অভিশংসন নিয়ে পরবর্তী ভোটের প্রক্রিয়া পরিকল্পনা অনুযায়ীই চলবে।

ব্রাজিল কংগ্রেসের নিম্নকক্ষে প্রেসিডেন্টকে অভিশংসন করা নিয়ে ১৭ এপ্রিলে অনুষ্ঠিত ভোটে হেরে যান দেশটির প্রেসিডেন্ট দিলমা রৌসেফ।

ফলে, আগামী বুধবার তার অভিশংসন প্রক্রিয়া নিয়ে ভোট হবার কথা সিনেটে।

কিন্তু এ পর্যায়ে এসে নিম্নকক্ষের ভারপ্রাপ্ত স্পিকার ওয়ালদি মারানিয়ো আগের ভোটকে ত্রুটিপূর্ণ বলে নাকচ করে দেন।

তিনি বলেছেন, "এখন আগের চেয়ে আরো বেশি করে আমাদের গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে। এর বিরুদ্ধে আসা আঘাতের বিরুদ্ধে আমাদের লড়তে হবে, লড়তে হবে এই ভীষণ রকম অনিয়মিত প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধে"।

মি: মারানিয়ো বলেন, "এপ্রিলের নিম্নকক্ষের ভোটে কিছু প্রক্রিয়াগত সমস্যা ছিল। কেননা এ ধরনের ভোট প্রক্রিয়ায় সংসদ সদস্যরা প্রকাশ্যে তাদের অবস্থান ঘোষণা করতে পারেন না। সেইসাথে দলের নেতারাও প্রকাশ্যে নির্দেশ দিতে পারেন না যে কিভাবে ভোট দিতে হবে। সুতরাং, ভারপ্রাপ্ত স্পিকার এনিয়ে পুনরায় ভোটের পক্ষে"। অপরদিকে, সিনেট প্রেসিডেন্ট রেনা কালহেরিওস যেকোনো মূল্যে সিনেটে অভিশংসন নিয়ে ভোট হবে বলে মত দিয়েছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেছেন,মি: মারানিয়ো গণতন্ত্র নিয়ে খেলছেন। ৮১ আসনের সিনেটে যদি নিম্নকক্ষের প্রস্তাবটি সাধারণ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় অনুমোদিত হয়, তবে প্রেসিডেন্টের বিচারের প্রক্রিয়া শুরু হবে। তখন থেকে ছয় মাস দিলমা রৌসেফ প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত থাকবেন। এ সময় দায়িত্ব পালন করবেন ভাইস প্রেসিডেন্ট। পরে সিনেটে অভিশংসন প্রস্তাব নিয়ে ভোট হবে।

সেখানে দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে পাস হলে রৌসেফকে প্রেসিডেন্টের পদ থেকে স্থায়ীভাবে সরে দাঁড়াতে হবে।

দেশের ক্রমবর্ধমান ঘাটতি লুকিয়ে রাখতে সরকারি হিসাব উদ্দেশ্যমূলকভাবে ব্যবহারসহ নানা অভিযোগ ছিল দিলমা রৌসেফের বিরুদ্ধে, আর তাই পুনরায় নির্বাচিত হবার দেড় বছরের মধ্যেই সংকটে পড়তে হয় তাঁকে।

সূত্র : বিবিসি বাংলা

শীর্ষ সংবাদ:
চামড়ার বাজারে ধস ॥ প্রধান চার কারণ চিহ্নিত         মানুষের উন্নত জীবন ধারা নিশ্চিত করাই মূল লক্ষ্য         ষড়যন্ত্রকারীদের অপচেষ্টার বিরুদ্ধে সতর্ক থাকুন ॥ কাদের         নরেন দাস ছিলেন বঙ্গবন্ধুর একনিষ্ঠ সৈনিক ॥ আইনমন্ত্রী         জুলাইয়ে রেমিটেন্সে রেকর্ড         টেকনাফে পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা নিহত         আজ শহীদ শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী         এক সপ্তাহের মধ্যে বন্যার পানি কমবে         করোনা পরীক্ষার সংখ্যা কমলেও রোগী শনাক্তের হার বেড়েছে         আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে হত্যা         ভ্যাকসিন পরীক্ষার জন্য চীনা কোম্পানির আবেদন         করোনায় চলে গেলেন টিভি ব্যক্তিত্ব বরকতউল্লাহ         খোরশেদ আলম সুজন চসিকের প্রশাসক         নেত্রকোনার ডিসি প্রত্যাহার         এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ নিজস্ব জমিতে স্থানান্তরের নির্দেশ         ৯ আগস্ট থেকে একাদশ শ্রেণির ভর্তির অনলাইন কার্যক্রম শুরু         পুলিশের গুলিতে নিহত সাবেক মেজর সিনহার মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন         করোনা চিকিৎসায় সহজ কোনো সমাধান নেই : ডব্লিউএইচও         পাপিয়ার বিরুদ্ধে সোয়া ৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মামলা         বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ অনেক আগেই উন্নত দেশে পরিণত হতো : প্রযুক্তিমন্ত্রী        
//--BID Records