মঙ্গলবার ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ মে ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

দেশের স্বার্থে যে কোন ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকুন ॥ সেনাবাহিনীকে প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ দেশ ও জাতির যে কোন প্রয়োজনে যে কোন পর্যায়ে ত্যাগ স্বীকারে সেনাবাহিনী সর্বদা প্রস্তুত থাকবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। তাই এই সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে দেশপ্রেমের সর্বোচ্চ দৃষ্টান্ত প্রত্যাশা করি। আর এ ত্যাগের জন্য সেনাবাহিনীতে দেশপ্রেমিক কমান্ডিং অফিসার প্রয়োজন।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম সেনানিবাসে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের রেজিমেন্টাল কমান্ডারদের সম্মেলন এবং নবম টাইগার্স পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। তিনি বলেন, ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের আন্তরিকতা ও নিষ্ঠায় তিনি সন্তুষ্ট। ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট তাঁর পরিবারের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। আবেগাপ্লুত কণ্ঠে তিনি বলেন, তাঁর দুই ভাই শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল ও শহীদ সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল এই রেজিমেন্টের অফিসার ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধে ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের ভূমিকার কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বেঙ্গল রেজিমেন্টের পাঁচটি ব্যাটালিয়ন সম্মুখযুদ্ধে অংশ নিয়েছিল। মুক্তিযুদ্ধে এ রেজিমেন্টের ভূমিকার স্বীকৃতি হিসেবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রেজিমেন্টের সব ইউনিটের সদস্যকে ইউফর্মের কলারে লাল রঙের পাইপিং পরিধান করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। বেঙ্গল রেজিমেন্টের ১ম, ২য়, ৩য়, ৪র্থ ও ৮ম ইউনিটের সদস্যদের জন্য এটি একটি গর্বের বিষয়। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশের জনগণের অংশ এবং ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট এই বাহিনীর প্রধান অঙ্গ। রেজিমেন্টের সদস্যরা দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সুরক্ষার পাশাপাশি দুর্যোগপরবর্তী ব্যবস্থাপনা, অবকাঠামো উন্নয়ন এবং অন্যান্য জাতি গঠন কর্মকা-ে প্রশংসনীয় কর্মকা- পালন করছে। কেবল দেশেই নয়, তারা দেশের বাইরেও সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছে।

বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উন্নয়নে তাঁর সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, সরকার একটি সক্ষম ও আধুনিক সশস্ত্রবাহিনী গড়ে তোলার লক্ষ্যে অব্যাহতভাবে প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে, যেন তারা মাথা উঁচু করে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সকল দায়িত্ব পালন করতে পারে। শেখ হাসিনা বলেন, আজকের বাংলাদেশ অর্ধদশক আগের তুলনায় সম্পূর্ণ ভিন্ন। এ দেশের জনগণ এখন অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী এবং যে কোন অসাধ্য সাধনে বহু বেশি আত্মপ্রত্যয়ী ও সঙ্কল্পবদ্ধ। পদ্মা সেতু প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিজস্ব সম্পদে মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য বাংলাদেশ প্রস্তুত। দক্ষতার কারণে এ ধরনের বহু কাক্সিক্ষত প্রকল্পের নির্মাণকাজ তদারকির জন্য সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম সেনানিবাসে হেলিকপ্টারযোগে পৌঁছার পর প্রধানমন্ত্রী ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট সদস্যদের প্যারেড পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। সেনানিবাসে এসে পৌঁছলে সেনাপ্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক তাঁকে স্বাগত জানান। অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবর্গ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, সিটি মেয়র, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এবং সরকারী-বেসরকারি পর্যায়ের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

শীর্ষ সংবাদ:
জিআই সনদ পেলো বাগদা চিংড়ি         জনগণের অর্থ ব্যয়ে সাশ্রয়ী হতে হবে ॥ প্রধানমন্ত্রী         বাস্তব শিক্ষার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করার আহ্বান শিক্ষা উপমন্ত্রীর         ডলারের দাম ১০২ টাকার বেশি         সিলেটে বন্যার আরও অবনতির আশঙ্কা         কানের ভেন্যুতে ‘মুজিব’-এর পোস্টার         পদ্মা সেতুর টোল বাইক ১০০, কার ৭৫০ টাকা         ফের ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার         হজ্ : শনিবার ব্যাংক খোলা থাকবে         দেশের বাজারে বাড়লো স্বর্ণের দাম         জাতি চায় পদ্মা সেতু শেখ হাসিনার নামে হোক ॥ কাদের         ন্যায়বিচারে প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করা সরকারের অন্যতম লক্ষ্য: আইনমন্ত্রী         এমপিও ভুক্তির দাবিতে বেসরকারি কলেজের অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত         মিরপুর-২ এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ অনুমোদনবিহীন মোবাইল হ্যান্ডসেট জব্দ, আটক ৬         সোনারগাঁয়ে মেম্বার প্রার্থী জুতা পায়ে দিয়ে শহীদ মিনারে উঠে ফোটোসেশন         কোরবানিতে দেশের পশু দিয়েই চাহিদা পুরণ : প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী         বাধ্যতামূলক ছুটিতে ডিএসইর জিএম আসাদ         ক্ষমতা কমানো হলো পরিকল্পনামন্ত্রীর         বিআরটিএ অভিযান চালিয়ে গাড়ি থেকে খুলে নেওয়া হচ্ছে শব্দদূষণকারী হর্ন