মঙ্গলবার ১১ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ডলফিন ও তোতা

  • মোজাম্মেল হক নিয়োগী

তোতা, আট বছরের এক দুষ্ট-মিষ্টি ছেলে। তোতা থাকে সাগরপাড়ে। ওর বাবা একজন জেলে। সাগরে মাছ ধরে আর সেই মাছ বাজারে বিক্রি করেই ওদের জীবন চলে।

তোতা প্রায়ই বাবার সঙ্গে সাগরপাড়ে যায়। একদিন একা একা সাগরপাড়ে হাঁটছে তোতা, এমন সময় ও দেখে সাগরপাড়ে একটা ডলফিন পড়ে আছে। সে ভাবল, হয়ত জোয়ারের সময় এটি এখানে এসে আটকা পড়েছে। এখানে থাকলে মারা যাবে। এটিকে সাগরে পানিতে নিয়ে যাওয়া দরকার। তোতা ডলফিনের লেজ ধরে টানাটানি করল। না, নাড়াতে পারেনি। একা একা পানিতে নামাতে চাইল। এত বড় ডলফিনকে এত ছোট ছেলে কিভাবে নামাবে? সে নামাতে পারেনি। হঠাৎ সে ভাবল, বাবাকে খবর দেয়া দরকার। তোতা দৌড়ে বাড়িতে যায় এবং বাবাকে ডলফিনের কথাটা বলে।

তোতার বাবা দৌড়ে এলেন সাগরপাড়ে। এত বড় ডলফিন দেখে তিনি অবাক হয়ে গেলেন। এত বড় ডলফিন! তিনি তোতাকে বললেন, এত বড় ডলফিনকে কিভাবে পানিতে নামাব? তোতা কিছু সময় ভেবে বলল, বাবা, জোয়ার এলে হয়ত নামানো যাবে। এখন থাক। তোতার কথায় বাবা খুশি হলেন। তারা দু’জন জোয়ার শুরু হওয়ার জন্য সেখানে বসে রইল।

একটু পরেই জোয়ার শুরু হলো। ধীরে ধীরে পানি বাড়তে শুরু করল। তোতার মুখে হাসি ছড়িয়ে পড়ল। এখনই হয়ত ডলফিনটাকে বাঁচানো যাবে। একসময় পানি অনেক এসে গেছে। তখন দু’জনে মিলে ডলফিনটাকে ঠেলে ঠেলে সাগরের পানিতে নামিয়ে দিল।

কিছুদিন পর আরেকটা অবাক ঘটনা ঘটে গেল। তোতা সাগরপাড়ে গিয়ে যখন দাঁড়াল তখন ডলফিনটা হাঁ করে তোতার দিকে তাকিয়ে রইল। তোতা তখন বুঝতে পারে সেই দিনের ডলফিন এটা। সে একটু পানিতে নেমে ডলফিনটার মাথায় হাত বুলায়। হায় একি হলো! মাথা দিয়ে ঢুঁশ দিয়ে তোতাকে পানিতে ফেলে দিল।

কপাল ভাল যে তোতা সাঁতার জানে। প্রথমে ভয়ে তার কান্না পায়। সে বাঁচার জন্য সাঁতার কাটতে শুরু করে।

একটু পরেই ডলফিনটা তোতাকে তার পিঠে বসিয়ে নেয়। ডলফিনটা সাগরের পানিতে নামতে থাকে। একই সঙ্গে দেখা গেল আরও কয়েকটা ডলফিন। ডলফিন সাঁতরাতে থাকে। তোতা তখন বুঝতে পারে ডলফিনটা তাকে নিয়ে সাগরে খেলছে। তোতার মুখে তখন হাসি ফুটে ওঠে।

এভাবে তোতাকে নিয়ে ডলফিনটা অনেক্ষণ ধরে সাঁতার কাটল। এক সময় ডলফিনটা তোতাকে নিয়ে সাগরপাড়ের কাছাকাছি নামিয়ে দিল। তোতা ডলফিনকে হাত নাড়িয়ে বিদায় নিতে চাইল। এই সময় ডলফিন মুখটি তুলে হাঁ করে হাসল।

সাগরপাড়ে দাঁড়িয়ে তোতা অবাক হয়ে ভাবছে একি হলো! তোতা যখন ভাবছে, সাগরে বেড়ানোর কথা তখন আরও একটি মজার ঘটনা ঘটে গেল। হঠাৎ একটা ছোট আকারের মাছ তোতার সামনে এসে পড়ল। তোতা নিচে তাকিয়ে দেখে সেই ডলফিনটা। তোতা হাত নাড়ে আর ডলফিনটা হাঁ করে হাসে। একটু পরে আরও কয়েকটা ডলফিন সেখানে এলো। ওরা একটা একটা করে মাছ টুপটুপ করে পাড়ে ফেলতে লাগল। এত মাছ দেখে তোতা খুশিতে দিশেহারা। সে দৌড়ে গিয়ে তার বাবাকে নিয়ে এলো। তারা দু’জনে সব মাছ ধরে নিয়ে গেল বাজারে।

এখন প্রতিদিন তোতা বিকালে সাগরপাড়ে এসে দাঁড়ায়। আর তখন ডলফিনটা আসে। ডলফিনটা তোতাকে নিয়ে কিছুসময় সাগরে ঘুরে বেড়ায়। তারপর টুপটুপ করে মাছ ধরে দেয়। তোতার বাবার আর সাগরে মাছ ধরতে যেতে হয় না। ডলফিনের দেয়া মাছেই ওদের চলে যায়।

কয়েক বছর পর ডলফিনের দেয়া মাছ বিক্রি করেই তোতারা ধনী হয়ে গেল।

শীর্ষ সংবাদ:
করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৬         রফতানি পণ্যের উৎপাদন বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর         অপপ্রচার করাই বিএনপির শেষ আশ্রয়স্থল ॥ কাদের         ইউপি নির্বাচন : ৮৮ ইউনিয়নে নৌকার প্রতীক থাকছে না         সাক্ষ্য অইনের ১৫৫(৪) ধারা বাতিলে নারীর মর্যাদাহানি রোধ করবে : আইনমন্ত্রী         নিম্ন আয়ের পরিবারের সদস্যরা সরকারের সকল সেবা সম্পর্কে অবগত নয় : মেয়র খালেক         আন্দোলন থেকে সরে এলেন বিমানের পাইলটরা         ডেঙ্গু : হাসপাতালে ভর্তি ১৮২, মৃত্যু ১         জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করবে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ         গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার ‘বি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ         ‘শিগগিরই পূজামণ্ডপে সহিংসতায় ইন্ধনদাতাদের নাম প্রকাশ’         দেশের সম্প্রীতি বিনষ্টে পরিকল্পনা হয়েছে লন্ডনে বসে ॥ তথ্যমন্ত্রী         সমিতির নামে ‘কর্ণফুলী মাল্টিপারপাসের প্রতারণা, টার্গেট নিম্নবিত্তরা         মাদক মামলায় পরীমনির জামিন মঞ্জুর         ইতালির উপকূল থেকে ৩৩৯ অভিবাসনপ্রত্যাশী উদ্ধার         খালেদা জিয়াকে কেবিনে স্থানান্তর         নতুন রাজনৈতিক দল ঘোষণা করলেন নুর         রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যা ॥ তিন আসামি ২ দিনের রিমান্ডে         ঢাবি থেকে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার         মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ইসমাইল হোসেনের নাম অন্তর্ভুক্তির দাবি