মঙ্গলবার ৫ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারী ২০২২ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

মুক্তিপণের টাকা তুলতে গিয়ে ঢাকায় মহিলা গ্রেফতার

  • দ. আফ্রিকায় অপহরণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অপহৃত এক বাংলাদেশী যুবকের মুক্তিপণের টাকা নিতে এসে পুরান ঢাকার একটি ব্যাংক থেকে এক মহিলা গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃত মহিলা আলেয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে সিআইডি পুলিশ। আলেয়ার সূত্র ধরে অপহরণে জড়িত থাকার অভিযোগে আলেয়ার স্বামী ও তার দুই বন্ধুকে গ্রেফতার করেছে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ। তাদের সে দেশের পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম (সংঘবদ্ধ অপরাধ) বিভাগের বিশেষ পুলিশ মীর্জা আব্দুল্লাহেল বাকী জানান, গত ২ জুন জোহানেসবার্গে নিখোঁজ হন নাফিজ নামে এক বাংলাদেশী যুবক। তার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায়। গজারিয়ার বাড়িতে বর্তমানে নাফিজের মা বসবাস করছেন। নাফিজ ৯ বছর ধরে সেখানে তার বোন তানিয়া ও তানিয়ার স্বামীর সঙ্গে বসবাস করছিলেন। নিখোঁজ হওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাসরত নাফিজের বোন তানিয়াকে অপহরণকারীরা ফোন করে নাফিজকে অপহরণের খবর জানায়। নাফিজের মুক্তিপণ হিসেবে সাত লাখ টাকা দাবি করা হয়। মুক্তিপণের টাকা ঢাকায় বসবাসরত মুন্সীগঞ্জের বাসিন্দা আলেয়ার ব্যাংক এ্যাকাউন্টে দিতে বলা হয়।

এ ব্যাপারে নাফিজের বোনজামাই নাফিজের মায়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের থানা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে। থানায় মামলা হয়। মামলা দায়েরের পর আলেয়ার ব্যাংক এ্যাকাউন্ট নম্বরটির ওপর নজরদারি করতে থাকে সিআইডি।

অপহরণকারীরা মুক্তিপণের সাত লাখ টাকা আলেয়ার ব্যাংক এ্যাকাউন্টে দিতে বলে। নাফিজের বোন তানিয়া মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় অবস্থানরত তার মাকে টাকাগুলো আলেয়ার এ্যাকাউন্টে দিতে বলেন। নাফিজের মা বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে সাত লাখ টাকা আলেয়ার এ্যাকাউন্টে ক্যাশ করে দেন। এর পর আলেয়াকে ব্যাংকে টাকা পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। আলেয়া টাকা তুলতে ওই ব্যাংকে গেলে তাকে গ্রেফতার করে সিআইডি। ব্যাংক এ্যাকাউন্টটি আগে থেকেই ফ্রিজ করা হয়েছিল তা বুঝতে পারেননি আলেয়া। সেখানে আগ থেকে ছদ্মবেশে ওঁৎ পেতে থাকা সিআইডি পুলিশ টাকাসহ আলেয়াকে (২৮) বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রেফতার করে। তাকে সিআইডি পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

জিজ্ঞাসাবাদে আলেয়া জানিয়েছে, তার স্বামী তাজুল ইসলাম আলেয়ার এ্যাকাউন্টে সাত লাখ টাকা জমা হবে বলে জানান। টাকাগুলো তুলে জমি কিনতে বলা হয়। নাফিসেজর মা আলেয়ার এ্যাকাউন্টে সাত লাখ টাকা জমা হওয়ার ফলে অপহরণের সঙ্গে আলেয়ার স্বামীর জড়িত থাকার বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে যায়। আলেয়ার গ্রেফতারের পর সিআইডিকে দেয়া এমন তথ্যের ভিত্তিতে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ সেদেশে থাকা আলেয়ার স্বামী ও তার দুই বন্ধুকে নাফিজ অপহরণে জড়িত থাকার দায়ে গ্রেফতার করেছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ।

সিআইডি পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও জানান, শুক্রবার রাত নয়টা পর্যন্ত অপহৃত নাফিজের হদিস মেলেনি। বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবহিত করা হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। অপহরণের ঘটনাটির সঙ্গে বাংলাদেশী, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পাকিস্তানী অপহরণকারী চক্র জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

শীর্ষ সংবাদ:
একদিনে করোনায় মৃত্যু ১০, শনাক্ত ৮৪০৭         শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হচ্ছে না : শিক্ষামন্ত্রী         বুধবার থেকে ভার্চুয়ালি চলবে সুপ্রিম কোর্ট         নায়িকা শিমু হত্যা মামলা স্বামী ও গাড়িচালক তিনদিনের রিমান্ডে         তৃণমূলের প্রকল্প বাস্তবায়নে আরও মনোযোগী হোন ॥ ডিসিদের প্রধানমন্ত্রী         বিএনপির লবিস্ট নিয়োগের কপি যাচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী         অনুমোদন পেল ধানের ১০টি নতুন জাত         ছাইয়ে ঢাকা পড়েছে টোঙ্গা         একদিনে হাসপাতালে আরও ৪ ডেঙ্গু রোগী ভর্তি         হুইপ স্বপনসহ ৭ জনের স্মার্টফোন চুরি         হাফ ভাড়া দেওয়ায় ঘড়ি-মানিব্যাগ রেখে তিতুমীরের দুই ছাত্রকে মারধর         শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাস         মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা ১ এপ্রিল         নাইকো দুর্নীতি মামলা ॥ খালেদার বিরুদ্ধে চার্জ শুনানি ৮ মার্চ         আফগানিস্তান শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাতে নিহত ২৬         সোনারগাঁয়ে ২ এস আই নিহত : গাড়ি চালাচ্ছিলেন মামলার আসামি         হত্যা মামলায় বিজিবির বরখাস্ত সদস্যের মৃত্যুদন্ড         বাড়তে পারে শৈত্যপ্রবাহ         হাতিয়ার সংরক্ষিত বনের গাছ কেটে পাচার, চক্রের এক সদস্য আটক         উখিয়ার ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসী রোহিঙ্গারা