ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১

গোর-এ শহীদ ময়দানে নামাজ পড়লেন ৩ লাখ মুসল্লি

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর

প্রকাশিত: ২১:০৮, ১৯ জুন ২০২৪

গোর-এ শহীদ ময়দানে নামাজ পড়লেন ৩ লাখ মুসল্লি

বৃহত্তম শোলাকিয়ায় ময়দানে ঈদের জামাতে অংশ নেওয়া মুসল্লিরা

দিনাজপুরের ঐতিহাসিক  গোর-এ শহীদ ময়দানে এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।  সোমবার সকাল ৭টায় গোর-এ শহীদ ময়দানে মুসল্লিরা জড়ো হতে থাকেন। সাড়ে ৮টায় শুরু হয় নামাজ। এতে ইমামতি করেন মাওলানা শামসুল আলম কাশেমী। নামাজে অংশগ্রহণ করেন ৩ লাখ মুসল্লি। নামাজ  শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহসহ প্রধানমন্ত্রীর জন্য শান্তি ও সুস্থতা কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সুষ্ঠু ও শান্তি পূর্ণভাবে বৃহৎ এই জামাতে নামাজ আদায় করতে পেরে খুশি দিনাজপুরসহ  দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত মুসল্লিরা। আয়োজকদের দাবি, এবারের ঈদ জামাতে ৩ লাখেরও বেশি মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। এবারও গোর-এ শহীদ ময়দানে ঈদের নামাজ ঘিরে এক জোড়া বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়।
দিনাজপুর স্টেশন সুপার এ কে এম জিয়াউর রহমান জানান, পঞ্চগড় থেকে দিনাজপুর এবং পার্বতীপুর থেকে দিনাজপুর বিশেষ ট্রেনগুলো সকাল সোয়া ৭টায় এবং পৌনে ৮টায় মুসল্লিদের নিয়ে দিনাজপুর স্টেশনে পেঁৗঁছায় এবং ঈদের নামাজ শেষে সকাল সাড়ে ৯টায় ছেড়ে যায়।

শোলাকিয়ায় বৃহত্তম ঈদ জামাত
নিজস্ব সংবাদদাতা কিশোরগঞ্জ থেকে জানান দেশের বৃহত্তম ঈদগাহ ঐতিহাসিক শোলাকিয়ায় বিপুলসংখ্যক মুসল্লির অংশগ্রহণে ১৯৭তম ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ৯টায় জামাতে ইমামতি করেন শহরের মারকাজ মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলানা হিফজুর রহমান খান। এ জামাতে অংশ নিতে দূর-দূরান্তের মুসল্লিদের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে কিশোরগঞ্জ-ভৈরব ও কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে দুটি বিশেষ ট্রেন চালু করে।

২০১৬ সালে ঈদুল ফিতরের দিন শোলাকিয়া ঈদগাহের পাশে জঙ্গি হামলার বিষয়টি মাথায় রেখে এবার চারস্তরের নিরাপত্তায় বিপুলসংখ্যক র‌্যাব-পুলিশসহ দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন ছিল। এ ছাড়া বসানো হয়েছিল আর্চওয়ে, ওয়াচ টাওয়ার, সিসি ক্যামেরা ও তল্লাশি চৌকি। বিভিন্ন প্রবেশপথে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে মুসল্লিদের দেহ তল্লাশি করে ঈদগাহে ঢুকতে দেওয়া হয়।

×