ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১

ছাগল চোর বলায় শিশুকে হত্যা, রহস্য উন্মোচন

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট

প্রকাশিত: ২১:১২, ২ এপ্রিল ২০২৪

ছাগল চোর বলায় শিশুকে হত্যা, রহস্য উন্মোচন

আশিক

লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলায় ছাগল চোর বলায় রোমান (৬) নামে এক শিশুকে হত্যা করেছে আশিক (১৪) নামে এক কিশোর। নিহত রোমান লালমনিহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার ত্রিমুহনী সেতুবাজার এলাকার আমিনুর রহমানের ছেলে।

নিহত শিশু, আশিককে ছাগল চোর বলায় গত শুক্রবার আদিতমারী উপজেলার সেতু বাজার এলাকার একটি তামাক ক্ষেতে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ রেখে পালিয়ে যায় আশিক।

পরদিন শনিবার স্থানীয়রা ওই তামাক ক্ষেতে প্রবেশ করলে শিশুর রোমানের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশের খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করলেও তাৎক্ষণিক হত্যা রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি। 

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ক্লুলেস হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম।

এ সময় তিনি জানান, এ ঘটনায় আশিক (১৪) নামে এক কিশোরকে গ্রেপ্তার করা হয়। আটককৃত আশিক এলাকায় চুরি করতো। 

গত কিছুদিন আগে সে একটি ছাগল চুরি করে পার্শ্ববর্তী এক হাটে বিক্রি করে। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে সালিশ করে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ বিষয়ে নিহত শিশু রোমান আসামি আশিক কে বিভিন্ন সময় ছাগল চোর বলে উত্ত্যক্ত করতো। 

সম্প্রতি আশিকের বাড়িতে বেশ কয়েকজন আত্মীয়স্বজন আসলে শিশু রোমান আত্মীয়-স্বজনের সামনে আশিককে ছাগল চোর বলে ডাকাডাকি করে। এতে অশিক ক্ষিপ্ত হয়। এবং তাকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার জন্য হত্যার পরিকল্পনা করে। গত শুক্রবার শিশু রেমান বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। তাকে খোঁজার জন্য বিভিন্ন জায়গায় মাইকিং করা হলেও তার খোঁজ মেলেনি। 

পরবর্তীতে গত শনিবার ইফতারের আগে পার্শ্ববর্তী একটি তামাক ক্ষেত হতে তার মরদেহ দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে পুলিশ খবর দিলে পুলিশ এসে নিহত রোমানের লাশ উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। 

এ ব্যাপারে নিহতের বাবা আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে আদিতমারী থানায় অজ্ঞাত নামা আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়।

লালমনিরহাট জেলা পুলিশ বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বসহকারে তদন্ত করে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে তিন দিনের মধ্যে ক্লুলেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করে মুলহোতা আশিককে আটক করে। 

 

এসআর

×