ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০

মাদারীপুরে ১৭ প্রার্থী

স্বতঃস্ফূর্তভাবে মনোনয়নপত্র জমা

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর

প্রকাশিত: ২২:২১, ৩০ নভেম্বর ২০২৩

স্বতঃস্ফূর্তভাবে মনোনয়নপত্র জমা

মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন বগুড়ায় বিএনপি নেতা শোকরানা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা একরামুজ্জামান

উৎসবমুখর পরিবেশে বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন প্রার্থীরা। শেষ দিনে সর্বমোট তিনটি আসনে মোট ১৭ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, মাদারীপুর-১ আসনে মোট ৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী নূর-ই-আলম চৌধুরী, জাকের পার্টির প্রার্থী মাসুদ শিকদার, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন প্রার্থী তোফাজ্জেল হোসেন খান, জাতীয় পার্টির মোতাহার হোসেন সিদ্দিকী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।
মাদারীপুর-২ আসনে মোট ৫ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাজাহান খান, জাকের পার্টির প্রার্থী মো. আসাদুজ্জামান আকন, জাতীয় পার্টির একেএম নুরুজ্জামান, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির প্রার্থী ইউসুফ আলী ও সুবল চন্দ্র মজুমদার বাংলাদেশ কংগ্রেস থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন।
মাদারীপুর-৩ আসনে ৮ প্রার্থী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. আবদুস সোবহান মিয়া গোলাপ, স্বতন্ত্র প্রার্থী কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তাহমিনা বেগম, সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুজ্জামান শাহীন, তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী প্রবীণ হালদার, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির নিতাই চক্রবর্তী, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের মনোনীত প্রার্থী নকুল কুমার বিশ^াস, জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. আব্দুল খালেক ও জাকের পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন খোকন মুন্সী।

বগুড়ায় ৮৯ জন
স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনে বৃহস্পতিবার উৎসবের আমেজে প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি জাসদসহ নিবন্ধিত বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দেন। স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে বিএনপি’র সাবেক নেতাও রয়েছেন। অপরদিকে আলোচিত ইউটিউব কনটেন্ট ক্রিয়েটর আশরাফুল আলমের পক্ষেও মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে বগুড়ার ৭টি সংসদীয় আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ৮৯টি। গড়ে প্রতি আসনে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে ১২টিরও বেশি।
বগুড়া রিটার্নিং অফিস জানায়, মনোনয়নপত্র জমা দানের নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সব মিলিয়ে ৮৯ জন মনোনয়ন জমা দেন। এর মধ্যে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে জমা পড়ে ৫২টি। আসনভিত্তিক বগুড়া ১ (সারিয়াকান্দি সোনাতলায়) আসনে ১২টি, বগুড়া-২ (শিবগঞ্জ) আসনে ১০টি, বগুড়া-৩ (আদমদীঘি-দুপচাঁচিয়া) আসনে ১৬, বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে ১০টি, বগুড়া-৫ (শেরপুর-ধুনট) আসনে ৮টি, বগুড়া-৬ (সদর) আসনে ৮টি এবং বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনে সর্বোচ্চ ২৫টি মনোনয়ন জমা পড়েছে।

পিরোজপুরে ২৭ প্রার্থী
নিজস্ব সংবাদদাতা, পিরোজপুর ॥ বৃহস্পতিবার বিকেলে পিরোজপুর রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। এর আগে তিনি নাজিরপুর ও ইন্দুরকানীতে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে তার মনোনয়নপত্র জমা দেন। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএমএ আউয়াল, জাসদের মনোনীত প্রার্থী সাইদুল ইসলাম ডালিম, স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল আহসান গাজী। পিরোজপুর-২ আসনে জেপির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর পক্ষে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তার নেতাকর্মীরা।

সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন মহারাজ তার মনোনয়নপত্র ভাণ্ডারিয়া সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জমা দিয়েছেন। পিরোজপুর-৩ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য ডা. মো. রুস্তম আলী ফরাজী (স্বতন্ত্র), জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত মাশরেকুল আজম রবি ও বুধবার আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আশরাফুর রহমান মনোনয়নপত্র জমা দেন। এ ছাড়া অন্যান্য রাজনৈতিক দল থেকে এবং স্বতন্ত্র প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে জমা দেন। জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান জানান, পিরোজপুরের ৩টি আসনে বিক্রি হওয়া ৩৪টি মনোনয়ন ফরমের মধ্যে ২৭টি জমা হয়েছে।

মেহেরপুরে ১৭ জন
নিজস্ব সংবাদদাতা, মেহেরপুর ॥ মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা শামীম হাসানের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর আগে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর মনোনয়নপত্র দাখিল করেন জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক ও মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী আব্দুল হামিদ। স্বতন্ত্র প্রার্থী মেহেরপুর-১ আসনের সাবেক এমপি প্রফেসর আব্দুল মান্নান।

এই আসন থেকে আরও মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক এমপি জয়নাল আবেদীন, স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাড. মিয়াজান আলী, সতন্ত্র প্রার্থী ইয়ারুল ইসলাম, এনডিপির দলীয় মনোনয়ন দাখিল করেছেন তরিকুল ইসলাম লিটন, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের বাবুল জোম, জাকের পার্টির জেলা সভাপতি সাইদুল আলম শাহীন। 

মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনে নৌকার মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. আবু সালে মো. নাজমুল হক সাগর ও তৃণমূল-বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সাবেক এমপি আব্দুল গনি, স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রীতম সাহার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর আগে মেহেরপুর-২ গাংনী আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শরিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পাটির কেন্দ্রীয় পলিট ব্যুরো সদস্য নূর আহম্মেদ বকুল বুধবার ভারপ্রাপ্ত সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কাছে তার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধ মকবুল হোসেন। এ ছাড়া মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইদুজ্জামান খোকন (স্বতন্ত্র), গাংনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মুকুল (স্বতন্ত্র), জেলা জাপার সহসভাপতি কিতাব আলী (দলীয় মনোনয়ন), জাকের পার্টির জেলা সভাপতি মো. সামসুজ্জোহা (দলীয় মনোনয়ন), জাতীয় কংগ্রেস পার্টির জেলা সভাপতি আল ফারুক (দলীয় মনোনয়ন), নুরুল ইসলাম রিন্টু (স্বতন্ত্র) (দলবিহীন), জাহাঙ্গীর আলম বাদশা (স্বতন্ত্র) (দলবিহীন), রাশেদুল হক জুয়েল (স্বতন্ত্র) (দলবিহীন), পিপলস পার্টির গোলাম রসুল (দলীয় মনোনয়ন), বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের দলীয় মনোনয়ন শাহজামাল, স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা একরামুজ্জামান
সংবাদদাতা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ॥ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ নাসিরনগর আসনের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিএনপি থেকে সদ্য বহিষ্কৃত দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা  সৈয়দ এ কে একরামুজ্জামান। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসক এবং রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহগীর আলমের কাছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা দেন তিনি। সম্প্রতি দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় বিএনপি তাকে বিশ্বাসঘাতক অভিহিত করে দল থেকে বহিষ্কার করে। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি নিজ জায়গা থেকে বিশ্বাসঘাতক বলতেই পারে। আমি সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস পেয়ে নির্বাচনে এসেছি। নির্বাচনে অংশগ্রহণের চাপ ছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে একরামুজ্জামান জানান, তার ওপর অন্য  কোন চাপ  নেই; এলাকার জনগণের চাপ ছিল।

শেরপুরে ২২ প্রার্থী
নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর ॥ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শেরপুরের তিনটি আসনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের তিন প্রার্থী এবং জাতীয় পার্টি, জাকের পার্টি, জাসদ, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগ, বিএনএম ও তৃণমূল বিএনপিসহ স্বতন্ত্র মিলে মোট ২০ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এই তথ্য নিশ্চিত করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আনোয়ারুল হক। জানা যায়, শেরপুর-১ (সদর) আসনের টানা ৬ষ্ঠ বারের মতো আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন পাঁচবারের সংসদ সদস্য, জাতীয় সংসদের হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা আতিউর রহমান আতিক।

একই দিন এ আসনে আরও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জাতীয় পার্টি মনোনীত দুই প্রার্থী জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ ইলিয়াছ উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক মনি, জাকের পার্টি মনোনীত প্রার্থী আহসানুল হক আকন্দ, কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগ মনোনীত প্রার্থী বারেক বৈদেশী, বিএনএম মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, বাংলাদেশ সুপ্রীম পার্টি মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছানুয়ার হোসেন ছানু, সদর উপজেলা

মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার অ্যাডভোকেট মোখলেছুর রহমান আকন্দ ও ফারুক হোসেন। শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) আসনে বুধবার মনোনয়নপত্র জমা দেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী। বৃহস্পতিবার এ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেন জাসদ মনোনীত প্রার্থী লাল মোহাম্মদ শাজাহান, তৃণমূল বিএনপি মনোনীত প্রার্থী জায়েদুর রশীদ শ্যামল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ মোহাম্মদ সাঈদ আঙ্গুর।
শেরপুর-৩ (শ্রীবরদী-ঝিনাইগাতী) আসনে বৃহস্পতিবার দুপুরে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রথমবারের মতো আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া শ্রীবরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডিএম শহিদুল ইসলাম। এ আসনে আরও মনোনয়ন জমা দিয়েছেন জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী সিরাজুল হক, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সুন্দর আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মিজানুর রহমান রাজা, স্বতন্ত্র প্রার্থী ঝিনাইগাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএম আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাইম, প্রয়াত সংসদ সদস্য এমএ বারীর ছেলে মোহসিনুল বারী রুমি, যুক্তরাজ্যপ্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা এইচএম ইকবাল হুসাইন অন্তর ও জেলা জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রকৌশলী ইকবাল আহসান।

সাতক্ষীরায় ৩৭ জন
স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরা ॥ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরার চারটি আসনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, জাসদ, ওয়ার্কস পার্টি, জাকের পার্টিসহ বিভিন্ন দল থেকে মোট ৩৭ প্রার্থী তাদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে রিটার্নিং অফিসার ও সহকারী  রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। উৎসবমুখর পরিবেশে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সাতক্ষীরা জেলা রিটার্নিং ও উপজেলা সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে তারা এ মনোনয়নপত্র জমা দেন। 
সাতক্ষীরা-১ আসন থেকে মোট ১২ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফিরোজ আহমেদ স্বপন, জাতীয় পার্টি থেকে সৈয়দ দিদার বখত, জাসদ থেকে ওবায়দুস সুলতান বাবলু, ওয়ার্কাস পার্টি থেকে বর্তমান এমপি অ্যাড. মোস্তফা লুৎফুল্লাহ, বাংলাদেশ কংগ্রেস থেকে ইয়ারুল ইসলাম, তৃনমূল বিএনপি থেকে সুমি, জাকের পার্টি থেকে খোরশেদ আলম, মুক্তিজোট থেকে শেখ আলমগীর হোসেন, এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক এমপি আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মুজিবুর রহমান, সরদার মুজিব, শেখ নুরুল ইসলাম ও নুরুল ইসলাম।
সাতক্ষীরা-২ সদর আসন থেকে মোট ১১ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবু, জাতীয় পার্টি থেকে আরাফুজ্জামান আশু, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি থেকে আনোয়ার হোসেন, জাকের পার্টি থেকে ইফতেখার আল মামুন সুমন, বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টি থেকে তৌহিদুর রহমান, বিএনএম থেকে কামরুজ্জামান বুলু, তৃণমূল বিএনপি থেকে মোস্তফা ফারহান মেহেদী, মুক্তি জোট থেকে আব্দুল আজিজ,স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, এনছান বাহার বুলবুল ও আফসার আলী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। সাতক্ষীরা-৩ আসন থেকে ছয়জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ  আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও বর্তমান এমপি ডা. আ ফ  ম রুহুল হক, জাতীয় পার্টি থেকে অ্যাড. আলিফ হোসেন, বাংলাদেশ সাম্যবাদী দল থেকে শেখ তারিকুল ইসলাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি থেকে আব্দুল হামিদ, জাকের পার্টি থেকে মঞ্জুর হাসান ও তৃণমূল বিএনপি থেকে রুবেল হোসেন।
সাতক্ষীরা-৪ আসন থেকে মোট আটজন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগদলীয় প্রার্থী আতাউল হক দোলন, জাতীয় পার্টি থেকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন (বিএনএম) থেকে সাবেক এমপি গোলাম রেজা, তৃণমূল বিএনপি থেকে আসলাম আল মেহেদী, বাংলাদেশ কংগেস থেকে শফিকুল ইসলাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি থেকে শেখ ইকরামুল, স্বতন্ত্র থেকে আওয়ামী লীগ নেত্রী মাকসুদা খাতুন মেধা ও মিজানুর রহমান।


নীলফামারীতে ৩৭ প্রার্থী
স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও দাখিলের শেষ দিন বৃহ¯পতিবার নীলফামারীর ৪টি আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেন  প্রার্থীরা। 
রিটার্নিং অফিসার জেলা প্রশাসক জানানÑ চারটি আসনে বিভিন্ন দলের মনোনীত প্রার্থী আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, তৃণমূল বিএনপি, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ফ্রন্ট, জাকের পার্টি, জাতীয় পার্টি (জেপি) জাসদ ও স্বতন্ত্রসহ ৩৭ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এর মধ্যে নীলফামারী-১ (ডোমার-ডিমলা) আসনে ১০। এরা হলেন  আওয়ামী লীগের আফতাব উদ্দিন সরকার, জাতীয় পার্টির তছলিম উদ্দিন, তৃণমূল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল অ্যাডভোকেট এনকে আলম চৌধুরী, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন (বিএনএম) জাফর ইকবাল সিদ্দিকী, জাতীয় পার্টি (জেপি) মখদুম আজম মাশরাফী, জাকের পার্টির লতিবালী রহমান লতিফ, বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) সিরাজুল ইসলাম, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) করুণাময়ী মল্লিকা এবং স্বতন্ত্র দুজন হলেন খাইরুল আলম বাবুল ও ব্যারিস্টার ইমরান কবির চৌধুরী। নীলফামারী-২ (সদর) আসনে ৬ জন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের আসাদুজ্জামান নূর, জাতীয় পার্টির শাহজাহান আলী চৌধুরী, জাকের পার্টির আবু সাঈদ, বাংলাদেশ পিপলস পার্টির বিকাশ চন্দ্র অধিকারী, বাংলাদেশ কংগ্রেস পার্টির মোরছালিন  এবং স্বতন্ত্র জয়নাল আবেদীন। 
নীলফামারী-৩ (জলঢাকা) আসনে ১২ জন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, জাতীয় পার্টির রানা মোহাম্মদ সোহেল, তৃণমূল বিএনপির খলিলুর রহমান, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) অধ্যাপক আজিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির বাদশা আলমগীর, গণতন্ত্র পার্টির মোজাম্মেল হক এবং স্বতন্ত্র ৬ জন হলেনÑ কাজী ফারুক কাদের, সাদ্দাম হোসেন পাভেল, রোকুনুজ্জামান, মার্জিয়া সুলতানা, হুকুম আলী খান ও আবু সাইদ শামিম। 
নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরীগঞ্জ) আসনে ৯ জন। এরা হলেন- আওয়ামী লীগের  জাকির হোসেন বাবুল, জাতীয় পার্টির আহসান আদেলুর রহমান, তৃণমূল বিএনপির আব্দুল্লাহ আল নাসের, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) আজিজুল হক, ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি) আব্দুল হাই সরকার, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন (বিএনএম) এম সাদেজুল করিম এবং স্বতন্ত্র ৩জন হলেন- সিদ্দিকুল আলম, মোখছেদুল মোমিন ও সাখাওয়াৎ হোসেন।

রাঙ্গামাটিতে ৫ প্রার্থী 
নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি ॥ রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা  আসন থেকে বর্তমান এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি দীপংকর তালুকদার মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগের ২ সহসভাপতি  চিংকিউ রোয়াজা ও হাজী কামাল উদ্দিনকে নিয়ে  তার মনোনয়ন ফরম জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও  জেলা প্রশাসক  মোহাম্মদ  মোশারফ  হোসেন খানের  নিকট জমা দিয়েছেন। এছাড়া জাতীয় পার্টি (কাদের) থেকে হারুন মাতাব্বর, তৃণমূল বিএনপি থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম গণজাগরণ পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ হাফেজ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। পূজা উদ্যাপন কমিটির সাবেক জেলা সভাপতি আমর কুমার দে এই আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

লালমনিরহাটে ২৭ জন 
সংবাদদাতা, লালমনিরহাট ॥ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ উল্যাহর নিকট উৎসবমুখর পরিবেশে সকাল থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন প্রার্থীরা। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জেলার ৩টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, জাসদ, সাম্যবাদী, জাকের পার্টি, তৃণমূল বিএনপি, এনপিপি,গণতন্ত্রী পার্টি ও স্বতন্ত্রসহ মোট ২৭ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। লালমনিরহাট-১ আসনে নৌকার পক্ষে মোতাহার হোসেন, ২ আসনে সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহম্মেদ, ৩ আসনে অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান  মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।


নড়াইলে ১৬ জন 
নিজস্ব সংবাদদাতা, নড়াইল ॥ নড়াইলের দুটি সংসদীয় আসনে অংশগ্রহণকারী প্রতিদ্বন্দ্বী ১৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরীর কাছে নড়াইল-২ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত এমপি প্রার্থী মাশরাফি বিন মর্তুজার পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন দলীয় নেতৃবৃন্দ। দুপুর সাড়ে ১২টায় জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মাশরাফির বাবা গোলাম মর্তুজার সঙ্গে মাশরাফি বিন মর্তুজার মনোনয়নপত্র জমা দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস।  
নড়াইল-২ আসনে আরও মনোনয়নপত্র জমা দেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির শেখ হাফিজুর রহমান, এনপিপির মো. মনিরুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির খন্দকার ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, গণফ্রন্টের মো. লতিফুর রহমান, জাকের পার্টির মো. মিজানুর রহমান মিজান, ইসলামী ঐক্যজোটের মো. মাহবুবুর রহমান এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল আমির ও মো. নূর ইসলাম।
এ ছাড়া নড়াইল-১ আসনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান এমপি বিএম কবিরুল হক মুক্তি, জাতীয় পার্টির মিল্টন মোল্লা, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মো. নজরুল ইসলাম, তৃণমূল বিএনপির শ্যামল চৌধুরী, জাতীয় পার্টি-জেপির শামিম আরা পারভীন (ইয়াসমীন) এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী চন্দনা হক ও সিকদার মো. শাহাদাত হোসেন।

×

শীর্ষ সংবাদ:

লিবিয়া থেকে ফিরলেন ১৪৪ বাংলাদেশি
ভারত থেকে এলো ৫০ মেট্রিক টন নারিকেল
বিশেষ ব্যবস্থায় মালয়েশিয়া প্রবাসীদের পাসপোর্ট দেবে হাইকমিশন
ষড়যন্ত্র আছেই, ষড়যন্ত্র হচ্ছে প্রত্যেকবারই : প্রধানমন্ত্রী
কুয়াকাটায় হোটেল না পেয়ে বাসাবাড়ি ভাড়া নিচ্ছেন পর্যটকরা
সেনাবাহিনীতে যোগ দিলে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেবে মিয়ানমার
বুয়েট প্রাক্‌-নির্বাচনী ভর্তি পরীক্ষা আজ
শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পাচ্ছেন আর্থিক অনুদান, আজই আবেদনের শেষ সুযোগ
১৮তম শিক্ষক নিবন্ধন: প্রবেশপত্র ডাউনলোড শুরু
রমজানে মক্কার মসজিদুল হারামে ইফতার পরিবেশনে নতুন নিয়ম সৌদির
প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক রুটে বাস চালু করলো সৌদি
কূটনৈ‌তিক সম্পর্ক জোরদারে ঢাকায় ৩ মা‌র্কিন কর্মকর্তা