ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

খাবার ও চাকুরির প্রলোভনে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষন, গ্রেফতার ৩

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর 

প্রকাশিত: ১৯:৫৯, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

খাবার ও চাকুরির প্রলোভনে পোশাক শ্রমিককে ধর্ষন, গ্রেফতার ৩

গ্রেফতারকৃত তিনজন। ছবি : দৈনিক জনকণ্ঠ

গাজীপুরের খাবার ও চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে গজারী বনে নিয়ে এক পোশাক শ্রমিককে ধর্ষন ও ধর্ষনের ভিডিও ধারণ করেছে কয়েক যুবক। মহানগরীর সদর থানাধীন উত্তর গজারিয়াপাড়া (মরদাপাড়া) এলাকার গজারি বনে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকায় তিন যুবক ও কিশোরকে গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার জিএমপি’র সদর থানার ওসি জিয়াউল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- গাজীপুর সদর থানার গজারিয়াপাড়া এলাকার কবির হোসেনের ছেলে মোসাদিক হোসেন অপু (৩২), ময়মনসিংহের ফুলপুর থানার ডিউর এলাকার হাবিবুর রহমান ওরফে হবির ছেলে হৃদয় (২০) ও একই জেলার ত্রিশাল উপজেলার বিয়ারা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে নাঈম ইসলাম (১৮)

জিএমপি’র সদর থানার ওসি জিয়াউল ইসলাম জানান, গাজীপুরের জয়দেবপুর থানাধীন সিটপাড়া এলাকার ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় পোশাক কারখানায় চাকুরি করেন ঠাকুরগাঁও এর এক নারী। শনিবার সকালে তিনি চাকুরির সন্ধানে মহানগরের রাজেন্দ্রপুর বাংলাবাজার এলাকার এনএজেড পোশাক করাখানায় যান। ক্ষুধার্ত হওয়ায় সেখান থেকে ফেরার পথে তিনি ভাওয়াল মির্জাপুর রোডে খাবারের হোটেলের খোঁজ করতে থাকেন। এসময় এক অপরিচিত যুবক তার পথরোধ করে পরিচয় জানতে চায়। পরে তাকে খাবার ও চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে গজারিয়াপাড়া (মরদাপাড়া) এলাকার হোটেলে নিয়ে যায়। খাবার খেয়ে গজারী বনের ভিতর দিয়ে বাসায় ফেরার পথে পেছন থেকে ওই নারীর মুখ চেপে গলায় চাকু ধরে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তাকে গভীর বনের ভিতর নিয়ে যায় যুবকটি। সেখানে যুবকটি তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর ওই যুবক মোবাইলে তার আরো দুই সহযোগীকে ঘটনাস্থলে ডেকে আনে। এরপর তারা ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করে।  ধর্ষণ শেষে তারা দুপুরে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। 

তিনি আরো জানান, এব্যাপারে ধর্ষণের শিকার ওই নারী থানায় অভিযোগ করেন। এরপ্রেক্ষিতে পুলিশ বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক তিনজনকে গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

 

এমএস

সম্পর্কিত বিষয়:

×