ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ভাঙ্গা হাসপাতালের ডাক্তার চারদিন ধরে নিখোঁজ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর

প্রকাশিত: ০০:১২, ১৪ নভেম্বর ২০২২

ভাঙ্গা হাসপাতালের ডাক্তার চারদিন ধরে নিখোঁজ

নিখোঁজ ডাক্তার জাকির হোসেন

গত ৪ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলা হাসপাতালে কর্মরত মেডিক্যাল অফিসার ডা. জাকির হোসেন (৩০)। সুস্থ ও কর্মরত অবস্থায় একজন ডাক্তারের এরকম নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় চিন্তায় পড়েছেন তার সহকর্মী ও স্বজনরা। এ ব্যাপারে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।
জানা গেছে, গত ৮ নভেম্বর ভাঙ্গা হাসপাতালে ডিউটি করেন ডা. জাকির হোসেন। জাকির হোসেন বিবাহিত এবং তার ৩ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জ শহরের বনগ্রাম আবাসিক এলাকায় এবং সেখানে জাকির হোসেনের বৃদ্ধ পিতা-মাতা থাকেন। তিনি গত ৩ বছর ধরে ভাঙ্গা হাসপাতালে কর্মরত রয়েছেন। এবং হাসপাতালের সরকারি কোয়ার্টারে একাই থাকেন।

এরপর ৯ নভেম্বর ভোরে সহকর্মী ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে মোবাইলে মেসেজ পাঠিয়ে নিরুদ্দেশ হন তিনি। এখনো পর্যন্ত তার কোনো খোঁজ মেলেনি। তার স্ত্রী ডা. সখিনা আক্তার পলি জনকণ্ঠকে জানান, আমি পোস্ট গ্রাজুয়েট করার জন্য বর্তমানে ঢাকায় সন্তানসহ আছি। আমার স্বামীর এরকম কোনো নিরুদ্দেশ হওয়ার অতীত অভিজ্ঞতা নেই। আমাদের মধ্যে পারিবারিক কোনো বিরোধ নেই। কী কারণে তিনি নিখোঁজ হয়েছেন সেটা বুঝতে পারছি না।

এ বিষয়ে ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহসিন উদ্দিন ফকির বলেন, বুধবার ৯ নভেম্বর ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ডা. জাকির আমাকে একটি মেসেজ দেন, তার শাশুড়ি খুবই অসুস্থ তাকে জরুরি বাড়ি (মানিকগঞ্জে) যেতে হচ্ছে। এরপর আমি ঘুম থেকে উঠে কল করলে তার ব্যবহৃত মোবাইলফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়। বৃহস্পতিবার রাতে তার স্ত্রী আমাকে ফোন করে জানান, তার স্বামী ডা. জাকির হোসেনকে দুদিন ধরে মোবাইলফোনে পাচ্ছেন না।

তখনই আমি চিন্তায় পড়ে যাই এবং বিস্তারিত বিষয় নিয়ে তার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলি। তারপর কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বৃহস্পতিবার রাতে ভাঙ্গা থানায় একটি জিডি করি। ভাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়ারুল ইসলাম বলেন, ডা. জাকির হোসেনের বিষয়ে ডা. মোহসিন উদ্দিন ফকির একটি জিডি করেছেন। আমরা তার মোবাইলফোন ট্র্যাক করে সন্ধান করার চেষ্টা করছি।

×