ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাট ও পাঁচ বাড়ি পদ্মায় বিলীন

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাজবাড়ী

প্রকাশিত: ২৩:৫৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাট ও পাঁচ বাড়ি পদ্মায় বিলীন

ভাঙ্গন রোধের জন্য বালি আনা হচ্ছে দৌলতদিয়া ঘাটে

ঘড়ির কাঁটায় তখন রাত ৩টা বাজে। চারপাশে নীরব। গভীর ঘুমিয়ে আছে পরিবারের সবাই। হঠাৎ প্রচ- শব্দ। এ শব্দ নদীর পানির। ঘুম থেকে জেগে উঠে দেখি আমার রান্নাঘরের কিছু অংশ নদীগর্ভে। কি করব, কি করব না বুঝে উঠতে পারছি না। ঘরের মধ্যে গভীর ঘুমিয়ে থাকা সন্তানদের বের করব, নাকি আসবাবপত্র বের করব। শিশুর মতো কান্নাজড়িত কণ্ঠে কথাগুলো বললেন রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাটের পাশে অবস্থিত ষাটোর্ধ সালাম বেপারি।
বুধবার রাত ৩টার দিকে হঠাৎ পদ্মা নদীর ভাঙ্গনের কারণে দৌলতদিয়া ৩নং ফেরিঘাট ও ঘাটের পাশে অবস্থানরত ৫টি পরিবারের বাড়ি নদীগর্ভে চলে যায়। এতে বন্ধ রয়েছে ৩নং ফেরিঘাট। অন্য জায়গায় ঘর-বাড়ি সরিয়ে নিচ্ছে ঘাটের আশপাশে বসবাসরত ব্যক্তিরা। গত ৬ সেপ্টেম্বর দৌলতদিয়া ঘাটের ৫নং ফেরিঘাট নদীগর্ভে চলে যায়। বর্তমানে দৌলতদিয়ায় ৭টি ঘাট রয়েছে।

এর মধ্যে ১ ও ২নং ফেরিঘাট কয়েক বছর যাবত বিকল হয়ে পড়ে আছে। চলতি মাসের সেপ্টেম্বর থেকে ৫নং ফেরিঘাট বন্ধ রয়েছে। ৩নং ফেরিঘাটের কিছু অংশ নদীগর্ভে চলে যাওয়ায় বন্ধ রয়েছে। ৪ নং, ৬নং ও ৭নং ফেরিঘাট সচল রয়েছে। জরুরীভাবে নদী শাসনের কাজ না করলে দৌলতদিয়া ঘাট নদী ভাঙ্গনের হুমকির মুখে রয়েছে।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) আরিচা বন্দরের অফিস সূত্রে জানা যায়, নদী নীরব। তারপরও হঠাৎ রাত ৩টার পর থেকে ৩নং ফেরিঘাট ও ঘাটের নিচের কিছু অংশ নদীতে বিলীন হয়ে যায়। জরুরীভাবে ফেরিঘাট রক্ষার জন্য বালুভর্তি জিও ব্যাগ ভাঙ্গন এলাকায় নদীতে ফেলার কাজ চলছে।

monarchmart
monarchmart