ঢাকা, বাংলাদেশ   মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯

হবিগঞ্জে চা শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ

প্রকাশিত: ২০:৩৮, ১২ আগস্ট ২০২২

হবিগঞ্জে চা শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটের ডাক

হবিগঞ্জ চা বাগানে শ্রমিকদের কর্মবিরতি পালন। ছবি: জনকণ্ঠ।

হবিগঞ্জ জেলার চা বাগানে শ্রমিকদের মজুরি ১২০ টাকা। এ টাকায় শ্রমিকদের চলা কঠিন হয়ে পড়ায় মজুরি বাড়ানোর দাবিতে চা বাগানগুলোতে তিন দিনের কর্মবিরতি পালন শেষে এবার অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষণা দিয়েছেন শ্রমিকরা। আগামীকাল শনিবার (১৩ আগস্ট) থেকে অনির্দিষ্টকালের এ ধর্মঘট পালন করা হবে। 

শুক্রবার (১২ আগস্ট) সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নৃপেন পাল। 

এর আগে মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে গত মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা হতে সকাল ১১টা পর্যন্ত শ্রমিকরা একযোগে পূর্ব ঘোষিত কর্মবিরতি পালন করেন। তাদের দাবি আদায় না হওয়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ঘোষণা দেন শ্রমিক নেতারা।

জানা গেছে, জেলার ৯টি উপজেলার মধ্যে মাধবপুর, চুনারুঘাট, নবীগঞ্জ, বাহুবল উপজেলায় পাহাড়ি এলাকা রয়েছে। এ পাহাড়ি এলাকাকে ঘিরে ছোট বড় মিলে ৪১টি চা বাগান গড়ে উঠেছে। এসব বাগানের বাসিন্দা প্রায় দেড় লাখ। এর মধ্যে স্থায়ী ও অস্থায়ী মিলে প্রায় ৩২ হাজার শ্রমিক চা পাতা উত্তোলনে জড়িত।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নৃপেন পাল বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে চা-শ্রমিকরা তীর-ধনুক নিয়ে যুদ্ধ করে। কিন্তু দেশে এখনও চা শ্রমিকরা ভূমির অধিকার থেকে বঞ্চিত। চা শ্রমিকদের জীবনমানের তেমন উন্নয়ন ঘটেনি। শিক্ষা ও স্বাস্থ্য চাহিদা এখনও পূরণ হয়নি। 

তিনি জানান, অবিলম্বে চা শ্রমিকদের চুক্তি নবায়ন, দৈনিক মজুরি বৃদ্ধি, রেশন হিসাবে সাপ্তাহিক ৫ কেজি চালসহ দাবিগুলো মানতে হবে।

চা শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে নাটক ও গানের মাধ্যমে দাবি জানিয়ে আসা জেলার চুনারুঘাট উপজেলার দেউন্দি প্রতীক থিয়েটারের সভাপতি সুনীল বিশ্বাস বলেন, মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া দাবি আদায়ের কর্মসূচি চলে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। দাবি আদায় না হওয়ায় নতুন কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে।