২৫ জানুয়ারী ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

পাটকল শ্রমিকদের অনশন অব্যাহত

প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা ও চট্টগ্রাম অফিস ॥ মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর শ্রমিকদের আমরণ অনশন অব্যাহত রয়েছে। খুলনার নেতারা জানান, কোন প্রতিশ্রুতি নয়, দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চালিয়ে যাবেন তারা। দাবি আদায় না হলে তারা ঘরে ফিরবেন না। এদিকে চট্টগ্রামের পাটকল শ্রমিকরাও অনশন অব্যাহত রেখেছেন। আমিন জুট মিলসহ নয়টি পাটকলের শ্রমিকরা কর্মসূচীতে যোগ দিয়েছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

শ্রমিক নেতারা জানান, অনশন কর্মসূচীর চতুর্থ দিন শুক্রবার পর্যন্ত অসুস্থ এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। দুই শতাধিক শ্রমিক অসুস্থ হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুতর অসুস্থদের খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অনশনস্থলে দুই শতাধিক শ্রমিককে স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে। ক্রমান্বয়ে বাড়ছে অসুস্থ শ্রমিকের সংখ্যা। শ্রমিকদের মাঝে অসন্তোষ বাড়ছে।

অনশনরত শ্রমিক নেতা মোঃ মুরাদ হোসেন বলেন, এবার আর কোন প্রতিশ্রুতি নয়, মজুরি কমিশন না নিয়ে আমরা এখান থেকে উঠব না। বেঁচে থাকার এবং রুটি-রুজির দাবি মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফেরব না।

এদিকে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় খুলনা যুগ্ম-শ্রম অধিদফতরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ন্যায্য দাবির বিষয়ে আন্তরিক। রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন এবং অনশনে এক শ্রমিকের মৃত্যুর বিষয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান সাংবাদিকদের বলেন, শ্রমিকদের মজুরি কমিশনের বিষয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের আহ্বানে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে আগামী ১৫ ডিসেম্বর বৈঠক ডেকেছে। সেখানে সমস্যা সমাধানের জন্য আলোচনা হবে। উল্লেখ্য, পাটকল শ্রমিকরা গত মঙ্গলবার দুপর থেকে ১১দফা দাবিতে আমরণ অনশন কর্মসূচী পালন করছেন।

এদিকে প্লাটিনাম জুবিলী জুটমিলের অনশনে মারা যাওয়া হেসিয়ান তাঁত বিভাগের শ্রমিক আব্দুস সাত্তারের জানাজা নামাজ শুক্রবার সকাল দশটায় তার কর্মস্থল প্লাটিনাম জুটমিলের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে আব্দুস সাত্তারের মরদেহ গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীতে পাঠানো হয়।

প্লাটিনাম জুট মিলের সিবিএ সভাপতি শাহানা শারমিন জানান, মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১দফা দাবিতে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর শ্রমিকদের ডাকা আমরণ অনশন কর্মসূচী অব্যাহত রয়েছে। তিনি জানান, অনশনে গুরুতর অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়া আব্দুস সাত্তারের জানাজা খুলনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজা শেষে তার মরদেহ গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। আব্দুস সাত্তার তিন মেয়ে ও ২ ছেলে রেখে গেছেন। তিনি খালিশপুর হাউজিং এলাকায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন।

চট্টগ্রামেও আমরণ অনশন অব্যাহত

মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে আমরণ অনশনে রয়েছেন চট্টগ্রামের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা। আমিন জুট মিলস লিমিটেডসহ নয়টি পাটকলের শ্রমিকরা এ কর্মসূচীতে যোগ দিয়েছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচী চলবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন তারা। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী গত ১০ ডিসেম্বর শুরু হয় এ কর্মসূচী। শুক্রবারও কর্মসূচীতে যোগ দেন সিবিএ, ননসিবিএ সংগঠনের নেতৃত্বে শ্রমিকরা। এর আগে পাটকল শ্রমিকরা ভুখা মিছিল, প্রতীকী অনশন, বিক্ষোভ মিছিল ও ২৪ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করেছিল। দাবি আদায় না হওয়ায় তারা এ কর্মসূচীতে যেতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান শ্রমিক নেতারা। একটানা কর্মসূচী চলতে থাকায় অনেক শ্রমিক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। কোন ধরনের প্রশাসনিক পদক্ষেপ না থাকায় যুগপৎ ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে শ্রমিকদের মধ্যে।

আমিন জুটমিল শ্রমিকরা বরাবরের মতো শুক্রবারও তাদের কর্মসূচীতে অবস্থান নিয়ে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচী চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এতে যোগ দেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ, নন-সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের নেতা ও সাধারণ শ্রমিক। বক্তব্য দেন আমিন জুট মিলস শ্রমিক নেতা শামসুল আলম, জামাল হোসেন, সিবিএ যুগ্ম সম্পাদক মোঃ. মোস্তফা, আবদুল আলীম, মোবারক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম। আমিন জুটমিলে কর্মরত রয়েছেন চার হাজারের অধিক শ্রমিক। কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে চট্টগ্রামের আরও ৮টি পাটকলে এ কর্মসূচী চলছে।

প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

১৪/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: