২৫ জানুয়ারী ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

তেঁতুলিয়ায় শীত কমলেও বেড়েছে কুয়াশা

প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ তেঁতুলিয়ায় বেড়েছে এক দশমিক শূন্য ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা। শীত কমলেও, বেড়েছে কুয়াশা। মধ্যরাত থেকে আকাশ ছিল কুয়াশাচ্ছন্ন। সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ছিল কুয়াশায় ঢাকা আকাশ। এরপর ঝলমলে রোদের দেখা মেলায় উঞ্চতা বাড়ে। ফলে শীতের তীব্রতাও কিছুটা কমে যায়। এদিন, সকালে তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৯ দশমিক শূন্য ডিগ্রী সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ ২৬ দশমিক ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস। রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৮ দশমিক শূন্য ডিগ্রী সেলসিয়াস। গত ৫ দিন ধরে তেঁতুলিয়ায় এভাবেই তাপমাত্রা ওঠানামা করছে। তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণগারের সূত্রমতে, সোমবারও দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৯ দশমিক শূন্য ডিগ্রী সেলসিয়াস আর দ্বিতীয় স্থানে ছিল দিনাজপুরে। দিনাজপুরে ১১ দশমিক ২ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এরপর নীলফামারীর ডিমলায় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস, কুড়িগ্রামের রাজারহাটেও ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস, নীলফামারীর সৈয়দপুরে ১২ দশমিক ৬ ডিগ্রী সেলসিয়াস, এবং রংপুরে ১৪ দশমিক ১ ডিগ্রী সেলসিয়াস। সূত্রমতে, সর্বনি¤œ এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রার মধ্যে ব্যবধান কম থাকলে শীতের তীব্রতা বেড়ে যায়। এতে বাতাসের আর্দ্রতাও বাড়ে। সূত্রমতে, ১৫ ডিসেম্বরের পর এ মাসেই দেশে দুই থেকে তিনটি মৃদু ও মাঝারি শৈতপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। গত ৩/৪ দিন ধরে বাতাসের আর্দ্রতা দিনের বেলায় সর্বনিম্ন শতকরা ২৫ শতাংশ নেমে যাচ্ছে এবং মধ্যরাতের পর শতকরা ৯৪ থেকে ৯৯ শতাংশ বেড়ে যাচ্ছে। এ কারণেই দিনের বেলায় আকাশ পরিষ্কার ও ঝলমলে রোদে উঞ্চতা থাকলেও সন্ধ্যার পর থেকেই বেড়ে যাচ্ছে শীতের তীব্রতা। গত কয়েকদিনের মধ্যে শুধুমাত্র রবিবার রাতে উত্তরের হিমেল হাওয়া ছিল না।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রহিদুল ইসলাম বলেন, অন্যান্য বছরের চেয়ে এবছর আকাশে কুয়াশা কম দেখা যাচ্ছে। যে কারণে শীতের তীব্রতাও বাড়ছে। তবে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে তাপমাত্রা ওঠানামা করছে বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, স্বাভাবিক তাপমাত্রা ২৫ থেকে ৩০ দশমিক শূন্য ডিগ্রী সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে বাতাসের আর্দ্রতা বেড়ে যায়। এতে শীত কম অনুভূত হয়। কিন্তু স্বাভাবিক তাপমাত্রা ২৫ দশমিক শূন্য ডিগ্রীর নিচে যত কমবে বাতাসের আর্দ্রতা বেড়ে যাবে। একইসঙ্গে শীতের তীব্রতাও বাড়বে।

শীত জেঁকে বসছে

স্টাফ রিপোর্টার জানান, শীত জেঁকে বসছে নীলফামারীসহ গোটা উত্তরাঞ্চলে। রোদের সেই তেজ আর নেই। অগ্রহায়ণের শেষ পর্যায়ে শীত নেমেছে উত্তরের শহর বন্দর গ্রামে। শরীরে উষ্ণতা ছড়াচ্ছে শীতবস্ত্র। বছর ঘুরে আবারও কেনাবেচা শুরু হয়েছে শীতবস্ত্রের দোকানগুলোতেও। তিস্তা, ব্রক্ষ্মপুত্র, করতোয়া, মহানন্দা, যমুনা নদনদী বিধৌত উত্তরাঞ্চলে ওঠানামা করছে তাপমাত্রা।

প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

১০/১২/২০১৯ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: