মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

শেখ রাসেল হারাল মুক্তিযোদ্ধাকে

প্রকাশিত : ১২ জুলাই ২০১৫
  • শেখ রাসেল ৫-১ মুক্তিযোদ্ধা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ টানা তিন ম্যাচ ধরে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে ‘বেঙ্গল ব্লুজ’ খ্যাত শেখ রসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেড। শনিবার ‘মান্যবর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ’ ফুটবলে তারা ৫-১ গোলে বিধ্বস্ত করে ‘অল রেডস’ খ্যাত বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে বিজয়ী দল এগিয়েছিল ২-১ গোলে। নিজেদের ত্রয়োদশ ম্যাচে এটা ২০১২-১৩ মৌসুমের লীগের শিরোপাধারী রাসেলের নবম জয়। ২৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে তৃতীয় থেকে উঠে এলো দ্বিতীয় স্থানে। টপকে গেল মোহামেডানকে (২৬ পয়েন্ট)। ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে শেখ জামাল ধানম-ি। পক্ষান্তরে নিজেদের চতুর্দশ ম্যাচে এটা মুক্তির পঞ্চম হার। ২১ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে আগের ষষ্ঠ স্থানেই। প্রথমপর্বের মোকাবেলায় রাসেলকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা। শনিবারের ম্যাচে মুক্তিকে শোচনীয় হারের স্বাদ উপহার দিয়ে প্রতিশোধটা কড়ায়গ-ায় নিয়ে নিল রাসেল। রহমতগঞ্জের সঙ্গে ড্র করে পয়েন্ট নষ্ট করার পর এ নিয়ে টানা তিন ম্যাচ জিতল রাসেল। আগের দুই ম্যাচে হারিয়েছিল মোহামেডান ও ব্রাদার্সকে। পক্ষান্তরে ফরাশগঞ্জকে হারানোর পর টানা চার ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেনি চলতি মৌসুমের ফেডারেশন কাপ রানার্সআপ মুক্তিযোদ্ধা। এই চার ম্যাচের দু’টিতে ড্র ও দু’টিতে হেরেছে তারা। ড্র করেছে ফেনী সকার ও চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে। আর হেরেছে টিম বিজেএমসি ও রাসেলের কাছে।

শনিবারের রাসেল-মুক্তি ম্যাচে স্পষ্টতই ফেবারিট ছিল রাসেল। কেননা, তাদের দলে আছে জাতীয় দলের আট খেলোয়াড়। তবে ম্যাচে আগে গোল করে মুক্তিযোদ্ধাই! ম্যাচের ৮ মিনিটে বক্সের মধ্যে গিনির মিডফিল্ডার এসেবা ট্যুরের কাটব্যাক বুক দিয়ে রিসিভ করে বল নামিয়ে ডান পায়ের তীব্র শটে গোল করেন এনামুল হক (১-০)। লীগে এটা তাঁর ব্যক্তিগত দশম গোল, যা দেশীয় ফুটবলারদের মধ্যে সর্বাধিক। ১৩ মিনিটে নিজেদের বক্সে রসেলের উইঙ্গার জাহিদ হোসেনকে ফাউল করেন মুক্তির গোলরক্ষক তিতুমীর চৌধুরী টিটু। রেফারি জসিমউদ্দিন টিটুকে হলুদ কার্ড দেখান এবং পেনাল্টির নির্দেশ দেন। কিন্তু ফরোয়ার্ড জাহিদ হাসান এমিলির মাটিঘেঁষা পেনাল্টি শট পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে যায়। এর মিনিট তিনেক পর একই দৃশ্য। জাহিদের ফাউল, রেফারির পেনাল্টির বাঁশি। তবে এবার এমিলি নয়, পেনাল্টি কিক নেন রাসেলের ক্যামেরুনিয়ান স্ট্রাইকার জঁ জুলস ইকাঙ্গা। ডানদিক দিয়ে তার নেয়া শট রুখতে পারেননি মুক্তির গোলরক্ষক টিটু। ম্যাচে আসে ১-১ ব্যবধানে সমতা। তবে একই সময়ে রাসেল ডিফেন্ডার মোফাজ্জল হোসেন সৈকত রেফারির সঙ্গে অশালীন আচরণ করায় তাকে হলুদ কার্ড দেখান জসিমউদ্দিন। ২২ মিনিটে মুক্তির ডিফেন্ডার আনিসুল আলম সুইটের পা থেকে বল কেড়ে নিয়ে মুক্তির বক্সে ঢুকে তীব্র শটে গোল করেন রাসেলের ক্যামেরুনের ফরোয়ার্ড পল এমিল (২-১)। ৫৭ মিনিটে চার ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল নিয়ে মুক্তির বক্সে ঢুকে ব্যবধান বাড়ান জাহিদ হোসেন (৩-১)। ৬১ মিনিটে জাহিদের পা থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের শটে মুক্তির জালে বল পাঠান পল এমিল (৪-১)। ৮৬ মিনিটে জাহিদের ক্রস থেকে বদলি মিডফিল্ডার রুম্মানের গোলে ব্যবধান দাঁড়ায় ৫-১।

প্রকাশিত : ১২ জুলাই ২০১৫

১২/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: