১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ডেঙ্গু ভ্যাকসিনের প্রথম সফল পরীক্ষা ভারতে


বিশ্বের প্রথম ডেঙ্গু ভ্যাকসিন সিওয়াইডি-টিডিভির কার্যকারিতা ভারতে পরীক্ষা করে ইতিবাচক ফল পাওয়া গেছে। ভ্যাকসিনটি আগামী বছরের শেষের দিকে ভারতের বাজারে আসতে পারে। টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।

দিল্লী, লুধিয়ানা, ব্যাঙ্গালোর, পুনে ও কলকাতা এই চারটি শহরে ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সী ব্যক্তির ওপর ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করা হয়েছে। সানোফি পায়েস্তার নামে ফরাসী ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানির গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের প্রধান ড. নিকোলাস জ্যাকসন টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেয়া এক একান্ত সাক্ষাতকারে এ কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, এশিয়ার অন্যান্য স্থানে বিভিন্ন চিকিৎসা সমীক্ষায় যে ধরনের ফল পাওয়া গেছে তার সঙ্গে তুলনা করলে এ পরীক্ষার ফলকে ইতিবাচক বলা যায়। দেখা গেছে, ভ্যাকসিনটি ভারতীয় প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ‘নিরাপদ ও রোগ প্রতিকারমূলক’। গত সপ্তাহে ইন্ডিয়ান সোসাইটি অব ম্যালেরিয়া এন্ড আদার কমিউনিকেবল ডিজিজ ও ইন্ডিয়ান এ্যাসোসিয়েশন অব এপিডেমিওলজিস্টের বার্ষিক সম্মেলনে সানোফি তাঁদের ভ্যাকসিন পরীক্ষার ফল ঘোষণা করে। জ্যাকসন বলেন, ‘এশিয়া, লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবীয় অঞ্চলের ১০টি দেশে তিন পর্যায়ের পরীক্ষার দুটো স্তরে ইতিবাচক ফল পেয়েছি। আশা করি, আমরা আগামী বছর প্রথম তিন মাসের মধ্যেই নতুন ভ্যাকসিনের লাইসেন্স পেয়ে যাব।’ উল্লেখ্য, ডেঙ্গু বিশ্বের প্রায় অর্ধেক জনসংখ্যার জন্য হুমকিস্বরূপ। এ রোগ নিয়ে মহামারীর ঝুঁকিতে আছে ১শ’য়ের বেশি দেশ। প্রতি এক মিনিটে বিশ্বে কোথাও না কোথাও একজন ডেঙ্গু আক্রান্ত হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ২০২০ সালের মধ্যে রোগটি বিস্তারের হার ২৫ শতাংশ এবং এতে মৃত্যুর হার ৫০ শতাংশ কমিয়ে আনার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছে বলে জ্যাকসন জানিয়েছেন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, তারা ভারতের আটটি অঞ্চলে ২ হাজার ৫৯১ জনের ওপরে ডেঙ্গুর ওপর সমীক্ষা শেষ করে এনেছেন। তাঁরা দেখতে পেয়েছেন ৫ থেকে ১০ বছর বয়সী শিশুরা সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গু ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। আগামী বছর তাঁদের নতুন ভ্যাকসিনের ওপর ভারতের আরও চার জায়গায় পরীক্ষা চালানো হবে।