ঢাকা, বাংলাদেশ   রোববার ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১

উজ্জীবিত ইংল্যান্ডের সামনে লড়াকু হল্যান্ড

জাহিদুল আলম জয়

প্রকাশিত: ০০:৫১, ১০ জুলাই ২০২৪

উজ্জীবিত ইংল্যান্ডের সামনে লড়াকু হল্যান্ড

সেমিফাইনাল ম্যাচের আগে মঙ্গলবার জার্র্মানিতে অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছেন হল্যান্ড ও ইংল্যান্ডের (ডানে) ফুটবলাররা

ইউরোপিয়ান ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের আসর ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে ফুটবলের জনক ইংল্যান্ড ও টোটাল ফুটবলের জনক হল্যান্ড। আজ রাত ১টায় জার্মানির ডর্টমুন্ডে শুরু হবে হাইভোল্টেজ এ লড়াই। ম্যাচটি জিততে দু’দলই মুখিয়ে আছে। বিজয়ী দল পৌঁছে যাবে বার্লিনের অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ১৪ জুলাইয়ের ফাইনাল মঞ্চে। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ হবে মঙ্গলবার রাতে হয়ে যাওয়া প্রথম সেমিফাইনালের জয়ী দল। 
ইংল্যান্ডের এবার টানা দ্বিতীয়বার ইউরোর ফাইনালে খেলার সুযোগ। এটা কোনোভাবেই হাতছাড়া করতে চাইবে না থ্রি লায়ন্সরা। তিন বছর আগে ঘরের মাঠ লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ফাইনালে ইতালির কাছে পেনাল্টিতে হেরে হতাশ হয়েছিল ইংলিশরা। এবার সেই হতাশা থেকে বের হয়ে আসার প্রাণান্ত চেষ্টা করছে তারা। এর আগে ১৯৬৬  বিশ^কাপে একবারই ঘরের মাটিতে ফাইনালে খেলে শিরোপা জিতেছিল ইংলিশরা।

কোচ গ্যারেথ সাউথগেটের দলের সামনে এখন ৫৮ বছরের শিরোপা খরা কাটানোর বড় সুযোগ। সাউথগেটের অধীনে সাম্প্রতিক সময়ে নিজেদের দারুণভাবে প্রমাণ করার কারণেই জার্মানিতে আসার আগে তাদের গায়ে ফেভারিটের তকমা লেগে যায়। সেমিফাইনালে পৌঁছাতে অবশ্য ইংলিশদের বেশ বেগ পেতে হয়েছে। সেøাভাকিয়া ও সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে নকআউট পর্বের আগের দুই ম্যাচে পিছিয়ে পড়ে বিদায়ের দ্বারপ্রান্ত থেকে তারা ফিরে এসেছে।

সময়ের অন্যতম সেরা তারকা জুড বেলিংহাম ও বুকায়ো সাকার অসাধারণ নৈপুণ্যে তারা দুইবার দারুণভাবে ফিরে এসেছে। দল হিসেবে এখনো সেভাবে জ¦লে উঠতে পারেনি সাউথগেটের শিষ্যরা। সেøাভাকিয়ার সঙ্গে অতিরিক্ত সময় ও সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে পেনাল্টিতে জয় পায় ইংল্যান্ড। 
এখন পর্যন্ত আসরের কোনো ম্যাচেই ইংল্যান্ড তাদের স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারেনি। যদিও ইংলিশ কোচ বড় আসরে তার জয়ের রেকর্ড ঠিকই ধরে রেখেছেন। সাউথগেটের অধীনে এ নিয়ে ইংল্যান্ড চারটি বড় টুর্নামেন্টের তৃতীয় সেমিফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। আট বছর আগে এই দলটির দায়িত্ব নেওয়ার পর সাউথগেট দারুণ সাফল্য পাচ্ছেন। যদিও ৫৩ বছর বয়সী সাউথগেটকে এই দীর্ঘ যাত্রায় সমালোচানাও কম শুনতে হয়নি।

এবারের আসরেও সেøাভেনিয়ার সঙ্গে গ্রুপ পর্বে গোলশূন্য ড্র করার পর সমর্থকদের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে ইংলিশ বসকে। অসম্ভব প্রতিভাবান একটি দলকে পেয়েও নেতিবাচক কৌশলের কারণেই তিনি বারবার সমালোচিত হয়েছেন। অবশ্য সেমিফাইনালে উঠে আসার পর ইংলিশরা বেশ চনমনে আর উজ্জীবিত। ডাচদের হারিয়ে এখন তারা ফাইনালে খেলতে মুখিয়ে আছে।  ইংল্যান্ড কোচ সাউথগেট বলেন, আমরা চারটি বড় আসরের তৃতীয় সেমিফাইনাল খেলছি। আমি বিশ^াস করি এর মাধ্যমে আমরা সমর্থকদের দারুণ কিছু স্মৃতি উপহার দিয়ে যাচ্ছি।

এভাবেই আমরা এগিয়ে যেতে চাই। আমরা লড়াই চালিয়ে যাব। পাশাপাশি মুহূর্তগুলো উপভোগও করব। অন্যদিকে কোচ রোনাল্ড কোম্যানের দল হল্যান্ড শেষ ষোলোতে রোমানিয়াকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে নিজেদের সেরা পারফরমেন্স দেখিয়েছে। বার্লিনে অবশ্য তুরস্কের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে পিছিয়ে পড়ে শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের জয় পায়। প্রিমিয়ার লিগের তারকাদের বিপক্ষে মাঠে নেমে ডাচদের  কিছুটা হলেও নার্ভাস মনে হতে পারে। ডাচ যে খেলোয়াড়রা ইংলিশ শীর্ষ লিগে খেলে থাকেন তারা স্বাভাবিকভাবেই নিজেদের মেলে ধরার চেষ্টা করবেন।

কেননা তারা ভালোভাবেই ইংলিশ ফুটবলারদের সম্পর্কে জানেন। এবার ইউরোতে আসা হল্যান্ডের ২৬ জনের মধ্যে সাতজনের আছে ইংলিশ ফুটবলাদের সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা। বিষয়টি মাথা রেখে ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যামে খেলা ডাচ ডিফেন্ডার মিকি ফন ডি ভ্যান বলেন, দু’দলের খেলোয়াড়দের মান দেখতে গেলে এই ম্যাচটি ছন্দ ও প্রতিভার দিকে থেকে অসাধারণ হতে যাচ্ছে। এবারের আসরে যে ক’জন ফরোয়ার্ড নিজেদের প্রমাণ করেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম লিভারপুলের ডাচ তারকা কোডি গাকপো। এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ তিন গোল করেছেন তিনি। 
বড় টুর্নামেন্টের শিরোপা জয়ে ডাচরা ৩৬ বছরের খরা কাটাতে মুখিয়ে আছে। সবশেষ জয় করা ওই ইউরো আসরটিও জার্মানিতেই অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই একবারই ডাচরা ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলেছে। এবার আরেকবার ফাইনালে খেলতে মুখিয়ে আছে টোটাল ফুটবলের জনকরা।

×