ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

জিম্বাবুয়ে সিরিজে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পক্ষে নন বিসিবির প্রভাবশালী এই পরিচালক

বিশ্বকাপের দল চূড়ান্ত করার পরামর্শ সুজনের

স্পোর্টস রিপোর্টার

প্রকাশিত: ০০:৩০, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

বিশ্বকাপের দল চূড়ান্ত করার পরামর্শ সুজনের

খালেদ মাহমুদ সুজন

ভারত বিশ্বকাপে ভরাডুবি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। জানিয়েছিলেন, জাতীয় দলের সঙ্গে আর কাজ করতে চান না। তবে দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকেই টাইগার ক্রিকেটের ভালো চান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রভাবশালী এই পরিচালক। আগামী জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হবে টি২০ বিশ্বকাপ।

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে ম্যানেজমেন্টকে শিক্ষা নিতে বলছেন সাবেক অধিনায়ক। আগামী মাসে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি২০ সিরিজেই দল ঠিক করে ফেলার পরামর্শ তার। ধৈর্যহারা না হয়ে অধিনায়ক নাজমুল হাসান শান্তর ওপর বিশ্বাস রাখতে বলছেন তিনি।
ঈদের ছুটি শেষে সোমবার ফের মাঠে গড়িয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের (ডিপিএলÑ বাকি অংশ। আম্পায়ারিং-বিতর্কে উত্তাপ ছড়ানো ম্যাচে এদিন প্রাইম ব্যাংককে বড় ব্যবধানে হারিয়েছে কোচ সুজনের আবাহনী। দশে-দশ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে তার দল। আগের দিন আবাহনীর অনুশীলনে আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপের জাতীয় দল প্রসঙ্গে এ পরামর্শ দেন তিনি, ‘যাদের ওপর আমার বিশ্বাস থাকবে, যারা বিশ্বকাপে খেলবে, যাদের কোচ, অধিনায়ক ও ম্যানেজমেন্ট বিশ্বাস করবে তাদেরই আসলে জিম্বাবুয়ে সিরিজে খেলানো উচিত।

কারণ হাতে বেশি সময় নেই।’ সুজন আরও বলেন, ‘এ রকম না যে, দুইটা ইনিংস এ খেলল, দুইটা ইনিংস ও খেলল। দুজনই ফেল করল। তারপর পাঁচ নম্বর ইনিংসে আপনি কাকে খেলাবেন? আপনি আত্মবিশ্বাস নষ্ট করছেন দুজন ছেলের। এগুলো না করে একটা ছেলেকেই চারটা ম্যাচ খেলান। ও যদি দুই ম্যাচে ফেলও করে, ওর সুযোগ থাকবে তৃতীয় ও চতুর্থ ম্যাচে রান করে আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নেওয়ার। ২৮ এপ্রিল বাংলাদেশে এসে পৌঁছবে জিম্বাবুয়ে। ৩ মে প্রথম টি২০।

সিরিজের প্রথম ৩টি ম্যাচ হবে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। এই ভেন্যুতে পরের ম্যাচ দুটি হবে ৫ ও ৭ মে। সিরিজের বাকি দুটি ম্যাচ হবে ঢাকার শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। ১০ ও ১২ মার্চ। বিশ্বকাপের আগে এই সিরিজ দিয়ে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে মরিয়া শান্ত-তাসকিনরা। অবশ্য মার্কিন মুলুকে পৌঁছে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সহ-আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরেকটি সিরিজ খেলবে টাইগাররা।

ঈদের ছুটির ঠিক আগে অবশ্য ভারতে অনুষ্ঠিত গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের ব্যর্থতা নিয়ে খোলামেলা কথা বলে ছোটখাটো একটা ঝড় তুলেছিলেন সুজন। টিম ডিরেক্টর সেই দলের সঙ্গে ছিলেন তিনি। ‘আমার মনে হয়, বাংলাদেশ ক্রিকেটে আমি আর সমাধান না। বাংলাদেশের আরও বড় সমাধান আছে। আমার আর বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোন দায়িত্বে আগ্রহও নেই। গত বিশ্বকাপে আমি যা করেছি, আমি মনে করি ওটা আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সঙ্গে যায় না আসলে।’

প্রধান কোচ চন্দ্রিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে যে তার সম্পর্কটা ভালো যাচ্ছে না সেটিও উঠে এসেছিল তার বক্তব্যে, ‘হাতুরু বিশ্বের সেরা কোচ হতে পারে, কিন্তু তাতে আমার কিছু যায়-আসে না। বাংলাদেশে আমার অনেক সম্মান আছে, ক্রিকেটাররা আমাকে অনেক সম্মান করে, আমি সেই সম্মানের জায়গাটা হারাতে চাই না। একটা জয়গায় যখন কাজ করেছি, সেই জায়গাটা যখন না পাই কাজ করতে, এতগুলো ট্যুর করার পর আমার কাজটা পরিবর্তন হয়ে যায়, তাহলে আমাকে ওই দায়িত্বে রাখার কোনো মানে হয় না আসলে।’

×