ঢাকা, বাংলাদেশ   শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

 আজ মোহামেডান-আবাহনী ‘হাইভোল্টেজ’ লড়াই

​​​​​​​রুমেল খান

প্রকাশিত: ২২:৪১, ২৫ মে ২০২৩

 আজ মোহামেডান-আবাহনী ‘হাইভোল্টেজ’ লড়াই

আজ মুখোমুখি হবে ঘরোয়া ফুটবলের দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী লিমিটেড ও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব

আবাহনী আবাহনী মোহামেডান, কেউ কাউকে নাহি ছাড়ে, সমান সমান...’ বাংলাদেশের ফুটবলের জনপ্রিয়তা আগের মতো নেই। ঢাকার মাঠে দর্শকও আসে না সেভাবে। এখন আর দল দুুটির নাম দুটি শুনলেই ফুটবলপ্রেমীদের রক্ত টগবগ করে ফুটে ওঠে না। ওঠে না তর্কের তুফান। এই পরিস্থিতিতেই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে আজ শুক্রবার বিকেল ৪টায় কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে দ্বৈরথে মুখোমুখি হবে দেশের এই ঐতিহ্যবাহী ফুটবল ক্লাব।

এছাড়া একই সময়ে বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় বসুন্ধরা কিংস মুখোমুখি হবে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের এবং মুন্সীগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লেফট্যান্টে মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনী মোকাবিলা করবে তলানীতে থাকা নবাগত আজমপুর এফসি উত্তরার। আজ যদি রাসেলকে হারাতে পারে, তাহলে তিন ম্যাচ হাতে রেখেই টানা চতুর্থবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়ে ইতিহাস গড়বে বসুন্ধরা কিংস। কেননা স্বাধীন বাংলাদেশে এর আগে কোনো দলই এই কীর্তি গড়তে পারেনি (আবাহনী মোহামেডান হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।) তবে পাকিস্তান আমলে টানা চারটি লিগে শিরোপা জেতার কীর্তি আছে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবেরও। কিংস জিতলে তাদের পয়েন্ট হয়ে যাবে ৪৬। কিন্তু আবাহনী তাদের শেষ চার ম্যাচে পূর্ণ ১২ পয়েন্ট পেলেও তাদের পয়েন্ট কিংসের চেয়ে এক পয়েন্ট কম থাকবে (এখন তাদের পয়েন্ট ১৬ ম্যাচে ৩৩)  

চলমান লিগে আবাহনী-মোহামেডান দুই দল পয়েন্ট তালিকায় অবস্থান করছে যথাক্রমে দ্বিতীয় চতুর্থ অবস্থানে। মোহামেডানের সংগ্রহ ১৫ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট। সঙ্গতকারণেই তাদের চ্যাম্পিয়ন বা রানার্সআপ হওয়ার সম্ভাবনা নেই। কাজেই তাদের লক্ষ্য কমপক্ষে তৃতীয় হওয়া। আজ আবাহনীকে হারালে সেই লক্ষ্যে অনেকটাই এগিয়ে যাবে তারা। আর আবাহনীরও চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ। ফলে তারা দ্বিতীয় স্থানটিই ধরে রাখতে মরিয়া। ফলে আজকের আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচটি যে ধুন্ধুমার হতে যাচ্ছে, তাতে কোন সন্দেহ নেই।

তাছাড়া আরেকটি কারণেও আজকেই এইহাইভোল্টেজম্যাচটি উভয় দলের কাছেই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। কেননা এই ভেন্যুতেই আগামী ৩০ মে ফেডারেশন কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে তারা। ফলে আজকের ম্যাচটি যেন অনেকটাই ফেডারেশন কাপ ফাইনালেরড্রেস রিহার্সাল’! ম্যাচটি দেখতে স্টেডিয়ামে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দর্শক উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

পৃথিবীর সবদেশেই ক্রীড়া দর্শকদের জনপ্রিয় দল আছে। সেসব দলে থাকে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতামুখর আমেজ।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সিলোনা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-ম্যানচেস্টার সিটি, বেয়ার্ন মিউনিখ-বরুশিয়া ডর্টমুন্ড... একে অপরের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। বাংলাদেশের ফুটবলে মোহামেডান-আবাহনী দ্বৈরথও একই আবহ বহন করে। দুটি দলের খেলা মানেই সমর্থকদের মাঝে বাড়তি উন্মাদনা। তবে সময়ের পরিক্রমায় কিছুদিন আগেও আবাহনীর কাছে যেন পাত্তাই পেত না মোহামেডান! তবে এখন কিছুটা হলেও সময় বদলেছে। ক্ষয়িষ্ণু শক্তির মোহামেডান অনেকটাই গুছিয়ে নিয়েছে। যার প্রমাণ এবারের ফেডারেশন কাপ। আলফাজ আহমেদ দলের হেড কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই দুর্বার গতিতে ছুটতে সাদা-কালোরা।

গত ২৭ জানুয়ারি লিগের প্রথম লেগের মোকাবিলায়দ্য স্কাই ব্লু ব্রিগেডখ্যাত আবাহনী - গোলে হারিয়েছিল মোহামেডানকে। আজ যদি মোহামেডান জেতে, তাহলে সেই হারের প্রতিশোধ নেবার পাশাপাশি ফেডারেশন কাপের ফাইনালের আগে চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিরুদ্ধে নিজেদের ঝালিয়ে নেবার পাশাপাশি মানসিকভাবেও এগিয়ে থাকবে অনেকখানি। আজ সেটা কি সম্ভব করতে পারবেব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইটবাহিনী?

 

×