ঢাকা, বাংলাদেশ   বুধবার ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯

monarchmart
monarchmart

বিশ্বকাপে না খেলেও বিশ্ব আলোচনায় বাংলাদেশ

তাসমিম সুলতানা

প্রকাশিত: ১৫:২৫, ৪ ডিসেম্বর ২০২২; আপডেট: ১৬:০৮, ৪ ডিসেম্বর ২০২২

বিশ্বকাপে না খেলেও বিশ্ব আলোচনায় বাংলাদেশ

বিশ্বকাপের ময়দানে বাংলাদেশ

কাতার বিশ্বকাপে ডুবে আছে পুরো বিশ্বের ফুটবল প্রেমীরা। ফুটবলের এই উন্মাদনা থেকে পিছিয়ে নেই বাংলাদেশ। যদিও দেশটি ফুটবল বিশ্বকাপে অংশ নেয়নি। তারপরও দেশটির নাম উচ্চারিত হচ্ছে বিশ্বকাপের ময়দানে।

আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিল ফুটবল নিয়ে এ দেশের মানুষের আগ্রহ একেবারে চূড়ায়। বিষয়টি নজরে এসেছে আর্জেন্টাইন কোচের। তার দলকে সমর্থন দেওয়ায় বাংলাদেশের ভক্তদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

আর্জেন্টিনা নিয়ে বাংলাদেশের মানুষের উন্মাদনা নিয়ে আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনি বলেন, এটি খুবই গর্বের বিষয় যে বাংলাদেশের মতো ভিন্ন একটি দেশ আমাদের এভাবে সমর্থন করে। এতো ভালোবাসার জন্য বাংলাদেশকে ধন্যবাদ।’

বিশ্বকাপে না থেকেও বাংলাদেশের নাম উচ্চারিত হচ্ছে কাতার থেকে আর্জেন্টিনায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে হাজার হাজার মাইল দূরের দেশ আর্জেন্টিনার মানুষও বাংলাদেশের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

বাংলাদেশে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ভক্তদের ছবি ফেসবুক, টুইটারে পোস্ট করে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা। বাংলাদেশি ভক্তদের নিয়ে টুইট করেছে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলও। টুইটে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানের আর্জেন্টিনা ভক্তদের তিনটি ছবি দেয়া হয়। ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, আমাদের দলকে সমর্থন দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। তারা (বাংলাদেশি ভক্ত) আমাদের মতোই পাগল।

এর আগে মেক্সিকোর বিপক্ষে লিওনেল মেসির গোলের পর বাংলাদেশি ভক্তদের উচ্ছ্বাসের ভিডিও ভাইরাল হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তা প্রকাশ পায় আর্জেন্টিনার বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমেও।

* বাংলাদেশকে আর্জেন্টিনা কোচের ধন্যবাদ

সংবাদ সম্মেলনে আর্জেন্টিনা আর বাংলাদেশ মিলেমিশে একাকার! আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনিই মিলিয়ে দিয়েছেন। আলবিসেলেস্তেদের ফুটবলে বাংলাদেশের মানুষের সুরভিত হওয়ার খবর জানেন তিনিও। আর্জেন্টাইনদের মতোই এ দেশের মানুষের চাওয়া। তাতে ব্যাপারটা হলো—আর্জেন্টিনা জিতলে বাংলাদেশও জেতে!

১৯৮৬ বিশ্বকাপে ডিয়েগো ম্যারাডোনার পর একালের লিওনেল মেসির পায়ের জাদুতে সেই সৌরভের অনেকটাই এখন আর্জেন্টাইন। নীল-সাদার জার্সিতে ছেয়ে গেছে বিভিন্ন নগরী, মানুষও বেশ মজে গেছে লিওনেল মেসিতে। লাল-সবুজের দেশের এই উন্মাদনার খবর জায়গা করে নিয়েছে বিশ্ব মিডিয়ায়। এটা দেখে লিওনেল স্কালোনির বিস্মিত হওয়ারই কথা। তবে গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বিস্ময় চেপে রেখে আর্জেন্টিনার কোচ ভিনদেশের সমর্থনের রসায়ন ব্যাখ্যা করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন, ‘অনেক বছর ধরে আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেতে উঠছে সারা বিশ্ব। তারা পাগলের মতো সমর্থন করে আর্জেন্টিনাকে। এটার শুরু ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে দিয়ে। এখন হচ্ছে লিওনেল মেসির জন্য। বিশ্বের অনেক জায়গায় এ রকম উন্মাদনা দেখে আমরা আনন্দিত হই। এ জন্য বাংলাদেশের মানুষকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ’

* বাংলাদেশিদের ভালোবাসায় মুগ্ধ আর্জেন্টাইন সাংবাদিক

আর্জেন্টাইন সাংবাদিক আন্দ্রেস ইয়োসেন প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতলে বাংলাদেশে আসবেন তিনি। তার সেই প্রতিশ্রুতি পূরণের জন্য আর মাত্র চার ম্যাচ দূরে আর্জেন্টিনা। শেষপর্যন্ত এটি ঘটবে কি না তা সময়ই বলে দেবে। তবে এরই মধ্যে বাংলাদেশিদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন ইয়োসেন। আর তার প্রতিদান দিতেই সম্ভবত ক্রমাগত বাংলায় টুইট করে চলেছেন এ আর্জেন্টাইন।

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) থেকে এ পর্যন্ত বাংলা ভাষায় বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন ইয়োসেন। কয়েকটি টুইটে স্প্যানিশ ভাষার পাশাপাশি বাংলাও জুড়ে দিয়েছেন তিনি। এছাড়া বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা ভক্তদের উল্লাসের দৃশ্য তো রয়েছেই।

বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা ফুটবল সমর্থকদের উৎসাহ-উদ্দীপনার খবর সারা বিশ্বেই এখন আলোচনার বিষয়। ফিফার অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে আর্জেন্টাইন মিডিয়া, সবখানেই এখন বাংলাদেশের নাম। বিষয়টি নজরে আসে আর্জেন্টাইন সাংবাদিক ইয়োসেনেরও।

টুইটারে নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বাংলাদেশ নিয়ে একাধিক টুইট করেছেন তিনি। শুরুটা হয়েছিল বাংলাদেশে এক সংবাদপাঠিকা আর্জেন্টিনার জার্সি পরে ক্যামেরার সামনে উপস্থিত হওয়া দিয়ে। এ বিষয়ে আরও ছবি ও ভিডিও চেয়ে গত ২৮ নভেম্বর একটি টুইট করেন তিনি। কিন্তু এরপর বাংলাদেশিদের যে প্রতিক্রিয়া দেখতে পান, তা ছিল তার কাছে অকল্পনীয়।

বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা-ভক্তদের মিছিল, ভবনে ভবনে পতাকা টানানো, হাজারো সমর্থকের দলবেঁধে খেলা দেখার ছবি ও ভিডিওতে ভরে যায় ইয়োসেনের ইনবক্স।

এক টুইটে আর্জেন্টাইন এ সাংবাদিক জানান, বাংলাদেশিদের কাছ থেকে যে পরিমাণ মেসেজ তিনি পেয়েছেন, তা অসাধারণ। এরপর ইয়োসেন বলেন, ‘আমরা সবাই যা চাই তা যদি ঘটে, তাহলে আমি বাংলাদেশে যাবো।’

অর্থাৎ সব ভক্ত চায়, আর্জেন্টিনা ৩৬ বছরের খরা কাটিয়ে বিশ্বকাপ জিতুক। আর সেটি যদি বাস্তব হয়ে আসে, স্বাভাবিকভাবেই উন্মাদনায় ফেটে পড়বে বাংলাদেশের সমর্থকরা। আর সেই দৃশ্য নিজের চোখে দেখতেই এ দেশে আসতে চান আর্জেন্টাইন সাংবাদিক।

* বাংলাদেশি ভক্তদের প্রতি আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের কৃতজ্ঞতা

এর আগে, বাংলাদেশি ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে খোদ আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনও। গত সোমবার মেসির হাতে বাংলাদেশের পতাকা যুক্ত একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন প্রফেশনাল ফুটবল লিগের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে।

যদিও দেখেই বোঝা যাচ্ছে, সম্পাদনা (এডিট) করে ছবিতে বাংলাদেশের পতাকা যোগ করা হয়েছে। তবে বাংলাদেশি সমর্থকদের প্রতি সম্মান জানাতেই এটি করেছে আর্জেন্টাইন ফুটবল কর্তৃপক্ষ।

*আর্জেন্টিনার জয়ে বাংলাদেশিদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস,খুশি আর্জেন্টাইনরা

কাতার বিশ্বকাপে পোল্যান্ডকে হারিয়ে নক আউট পর্ব নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশ সময় বুধবার (৩০ নভেম্বর) দিনগত রাত ৩টা দিকে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই আনন্দ উদযাপনে মেতে ওঠেন আলবিসেলেস্তাদের বাংলাদেশি ভক্তরা। এর অসংখ্য ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে ফেসবুকে। তা নজরে এসেছে আর্জেন্টাইনদেরও। 
আর্জেন্টিনার জয়ে বাংলাদেশিদের এমন বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস দেখে অবাকও হয়েছেন অনেকে। এক আর্জেন্টাইন মানবাধিকার কর্মী তো বলেই দিয়েছেন, ‘এরা তো আমাদের চেয়েও বেশি উদযাপন করছে! অসাধারণ!’

পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার জয়ে পর বাংলাদেশি সমর্থকদের আনন্দ-মিছিলের একটি ভিডিও নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করেছেন অগাস্টিন আন্তোনেত্তি নামে এক আর্জেন্টাইন মানবাধিকার কর্মী।

ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, বাংলাদেশে এখন ভোর ৩টা। কিন্তু আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় রাউন্ডে ওঠা উদযাপনে রাজপথে নেমে এসেছে পুরো দেশ। তারা আমাদের চেয়েও বেশি উদযাপন করছে। এটি অসাধারণ!

পোল্যান্ডের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার ম্যাচে বাংলাদেশের মানুষদের সমর্থনকে সম্মান জানিয়ে আর্জেন্টাইন নাগরিকরা বাংলাদেশের পতাকা নিয়ে মাঠে আসেন। 

* বাংলাদেশি সমর্থকদের জন্য আর্জেন্টিনার ভার্চুয়াল উপহার 

ফুটবল বিশ্বকাপে বাংলাদেশ না খেললেও বিভিন্ন দলকে সমর্থন করছেন ফুটবল প্রেমিরা। বাংলাদেশি ফুটবল প্রেমিরা তাদের পছন্দের দলের পতাকা ওড়াচ্ছেন অফিস ও বাসাতেও। তবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিাকে সমর্থন করছেন বেশিরভাগ মানুষ। তাদের দলগুলো জয়ের পর বিভিন্ন স্থানে দেখা যায় ফুটবল প্রেমিদের উল্লাস উন্মাদনা। 

এদিকে, বাংলাদেশি আর্জেন্টিনা সমর্থকদের উন্মাদনা আরও বহুগুনে বাড়িয়ে দিয়েছে দেশটির ঘরোয়া ফুটবল লিগ। বাংলাদেশি সমর্থকদের জন্য এক ভার্চুয়াল উপহারের আয়োজন করেছে সংস্থাটি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তাদের এ্যাকাউন্টে একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে। ছবিতে দেখা যায়, মাঠে মেসির হাতে বাংলাদেশের পতাকা। যা বাংলাদেশি সমর্থকদের মন কেড়েছে। আর্জেন্টিনার ঘরোয়া ফুটবল লিগের অফিশিয়াল পেইজের ওই পোস্টের ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, 'লিওনেল মেসি বাংলাদেশ।'

* বাংলাদেশে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের উল্লাসের ভিডিও পোস্ট  ফিফার

গত ২৬ নভেম্বর দিবাগত রাতে ম্যাচে মেক্সিকোকে ২-০ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। প্রিয় দল জয়ের পর ওই রাতে বিভিন্ন স্থানে আনন্দে ফেটে পড়ে বাংলাদেশি সমর্থকরা। সেই উল্লাসের ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। এই আনন্দকে আরও বহুগুনে বাড়িয়ে দেয় বিশ্ব ফুটবলের প্রধান নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।

ফিফা তাদের ভেরিফাইড টুইটারে বাংলাদেশে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের এই উল্লাসের ভিডিও পোস্ট করে। ভিডিওর ক্যাপশনে ফিফা লিখেছে, ‘এটাই হলো ফুটবলের শক্তি। আর্জেন্টাইন ভক্তরা মেসির দেওয়া গোল উদযাপন করছে।’

* আর্জেন্টিনার পর বাংলাদেশের ব্রাজিলিয়ান সমর্থকদের উল্লাস নিয়ে ফিফার পোস্ট

আর্জেন্টিনার পর বাংলাদেশের ব্রাজিলিয়ান সমর্থকদের উল্লাস নিয়ে টুইটারে নিজেদের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছে ফিফা। ফিফার অফিশিয়াল টুইটারে মঙ্গলবার এ ছবিগুলো পোস্ট করা হয়। 

কাতার বিশ্বকাপের ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জয় পায় ব্রাজিল। প্রথমার্ধে গোলশূন্য ড্র নিয়ে বিরতিতে যাওয়া ব্রাজিল চমক দেখিয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে। শেষমুহূর্তে জয়সূচক সেই গোলটি আসে কাসেমিরোর পা থেকে। এই জয়ের মধ্য দিয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে তারা। 

ব্রাজিলের এমন জয়ে উল্লাসে মেতে উঠেন বাংলাদেশের ব্রাজিল সমর্থকরা। সমর্থকদের সেই উল্লাসের ছবিগুলোই প্রকাশ করেছে ফিফা। 

ফিফা তাদের টুইটে লিখেন— ফুটবল ছাড়া অন্য কোনো কিছু মানুষকে এভাবে একত্রিত করতে পারে না। ব্রাজিল-সুইজারল্যান্ড ম্যাচ দেখার জন্য প্রচুর পরিমাণে দর্শকের উপস্থিতি বাংলাদেশের ঢাকায়।  

monarchmart
monarchmart