ঢাকা, বাংলাদেশ   বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯

গোলবন্যায় জয় রিয়াল মাদ্রিদের

প্রকাশিত: ০৫:৫৬, ২০ অক্টোবর ২০১৬

গোলবন্যায় জয় রিয়াল মাদ্রিদের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ড্রয়ের বৃত্ত ভাঙ্গার পর গোলবন্যায় মেতে উঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ। শনিবার স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল বেটিসকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দেয়ার পর মঙ্গলবার রাতে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফুটবলেও বড় জয় পেয়েছে গ্যালাক্টিকোরা। ‘এফ’ গ্রুপের ম্যাচে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ৫-১ গোলে হারিয়েছে পোল্যান্ডের ক্লাব লেজিয়া ওয়ারশকে। অবাক ব্যাপার, রিয়ালের গোলবন্যায় একটি গোলও পাননি সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে একটি করে গোল করেন গ্যারেথ বেল, মার্কো এ্যাসেনসিও, লুকাস ভারকুয়েজ ও আলভারো মোরাটা। অপর গোলটি আসে মিডফিল্ডার থমাস জেডোউইচের আত্মঘাতীর সৌজন্যে। পেনাল্টি থেকে অতিথি ওয়ারশর হয়ে একমাত্র গোলটি করেন মিরোসøাভ রাডোভিচ। গ্রুপের আরেক ম্যাচে জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ২-১ গোলে হারায় পর্তুগালের স্পোর্টিং সিপিকে। বর্তমানে ‘এফ’ গ্রুপে রিয়াল ও ডর্টমুন্ড দু’দলের ভা-ারেই জমা ৭ পয়েন্ট করে। তবে গোলগড়ে একে রিয়াল ও দুইয়ে ডর্টমুন্ড। দু’টি দলেরই নকআউট পর্বে খেলার সম্ভাবনা উজ্জ্বল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে বেহাল দশা হলেও ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে অপ্রতিরোধ্য ছন্দেই ছুটছে লিচেস্টার সিটি। ইপিএলের চ্যাম্পিয়নরা ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচে ১-০ গোলে হারিয়েছে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনকে। বিজয়ী দলের হয়ে গোল করেন রিয়াদ মাহরেজ। এটি লিচেস্টারের টানা তিন জয়। এই জয়ে শেষ ষোলোতে খেলা প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে ক্লাউডিও রানিয়েরির দল। গ্রুপের আরেক ম্যাচে পর্তুগালের এফসি পোর্তো ২-১ গোলে হারিয়েছে বেলজিয়ামের ক্লাব ব্রুগেকে। অধিনায়ক ও তারকা গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফনের দক্ষতায় ‘এইচ’ গ্রুপে জয় পেয়েছে জুভেন্টাস। আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ১-০ গোলে হারায় স্বাগতিক ফরাসী ক্লাব লিঁওকে। ম্যাচে এক পর্যায়ে দশজনের দলে পরিণত হয়েছিল ইতালিযান চ্যাম্পিয়নরা। পেনাল্টি পেয়েছিল স্বাগতিকরা। কিন্তু প্রতিপক্ষের স্পট কিক রুখে দিয়ে জুভেন্টাসকে অনন্য জয় উপহার দেন বুফন। গ্রুপের অপর ম্যাচে স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়া ১-০ গোলে পরাজিত করে ক্রোয়েশিয়ার ডায়নামো জাগরেবকে। সেভিয়ার একমাত্র গোলদাতা ফরাসী মিডফিল্ডার সামির নাসরি। ঘরের মাঠ সান্টিয়াগো বার্নাব্যুতে ম্যাচের শুরুতে অবশ্য সুবিধা করতে পারেনি রিয়াল। বরং অতিথি ওয়ারশই দাপুটে ফুটবল খেলতে থাকে। প্রথম ১০ মিনিটে বেশ কয়েকটি সুযোগও সৃষ্টি করে তারা। কিন্তু কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন দলটির ফরোয়ার্ডরা। ১৬ মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে রিয়ালকে এগিয়ে নেন গ্যারেথ বেল। ডি বক্সের মধ্য থেকে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন ওয়েলস অধিনায়ক। এর ফলে প্রায় দুই বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগে গোল পেলেন বেল। প্রথম গোলের পর থেকেই নিজেদের নিয়ন্ত্রণে ম্যাচ নিয়ে নেয় জিনেদিন জিদানের দল। ২০ মিনিটে রিয়ালের দ্বিতীয় গোলটি আসে ওয়ারশর রক্ষণভাগের কল্যাণে। ডি বক্সের বাইরে থেকে মার্সেলোর নেয়া দুর্দান্ত শট ওয়ারশর মিডফিল্ডার থমাস জেডোউইচের পায়ে লেগে জালে জড়ায়। ২২ মিনিটে এক গোল পরিশোধ করে খেলায় ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিল পোলিশ ক্লাব। পেনাল্টি থেকে গোল করেন মিরোসøাভ রাডোভিচ। গোল হজমের পর ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে সময় নেননি রিয়ালের তারকা ফুটবলাররা। ৩৭ মিনিটে রিয়ালের পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন মার্কো এ্যাসেনসিও। বিরতির পর ৬৮ ও ৮৪ মিনিটে আরও দুই গোল করে রিয়ালকে বড় ব্যবধানের জয় এনে দেন দুই বদলি লুকাস ভারকুয়েজ ও আলভারো মোরাটা। নিজে গোল করতে না পারলেও সতীর্থদের দুটি গোলে সহায়তা করেন রোনাল্ডো। কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে কোপেনহেগেনের বিরুদ্ধে জয় পেতে ঘাম ঝরাতে হয় লিচেস্টারকে। ৪০ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন মাহরেজ। টানা তিনটি ম্যাচে জয়ের পর শিষ্যদের পারফর্মেন্স নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন লিচেস্টার কোচ রানিয়েরি। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, আমরা এখন ভাল অবস্থানে আছি। আমি জানতাম, ম্যাচটা কঠিন হবে। কোপেনহেগেন শেষ পর্যন্ত চেষ্টা করেছে। শুরুটা আমাদের জন্য খুব কঠিন ছিল। তবে সবাই ভাল পারফর্মেন্স প্রদর্শন করেছে।