ঢাকা, বাংলাদেশ   শনিবার ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১

সংসদে সম্পূরক বাজেট আলোচনা

বাজেটের ৯৮ শতাংশ বাস্তবায়ন করে সরকার যোগ্য জবাব দিয়েছে

সংসদ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ২৩:৩৫, ৫ জুন ২০২৩

বাজেটের ৯৮ শতাংশ বাস্তবায়ন করে সরকার যোগ্য জবাব দিয়েছে

বৈশ্বিক মন্দা ও অতিমারির মধ্যেও বাজেটের ৯৮ শতাংশ বাস্তবায়ন করে বর্তমান সরকার

২০২২-২৩ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সংসদ সদস্যরা বলেছেন, বৈশ্বিক মন্দা ও অতিমারির মধ্যেও বাজেটের ৯৮ শতাংশ বাস্তবায়ন করে বর্তমান সরকার নিন্দুক-সমালোচকদের একটা যোগ্য জবাব দিয়েছে। গত অর্থবছর থেকে অতিমারি কাটিয়ে বাজেট বাস্তবায়নের মাধ্যমে বর্তমান সরকার দেশের উন্নয়ন, অগ্রগতি বেগমান এবং অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে সক্ষম হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় আগামী বাজেটও বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ‘স্মার্ট বাংলাদেশে’ উন্নীত হবে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সোমবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তারা এসব কথা বলেন। আলোচনায় অংশ নেন সাবেক মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, সরকারি দলের শহীদুজ্জামান সরকার, কাজী নাবিল আহমেদ, এনামুল হক এবং বিরোধী দল জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম ও ডা. রুস্তম আলী ফরাজী। আলোচনা শেষে আজ মঙ্গলবার সংসদে সম্পূরক বাজেট পাস হতে পারে।
আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, উচ্চাশা বা উচ্চাকাক্সক্ষা না থাকলে কোনো কিছু অর্জন করা যায় না। অতিমারির মধ্যেও বৃহৎ বাজেট দিয়ে তা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ আরও সামনের দিকে এগিয়ে গেছে। অতিমারির প্রভাব কাটিয়ে উঠতেও সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ। তিনি বলেন, গোটা পৃথিবী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করলেও বিএনপি মিথ্যাচার-অপপ্রচার চালিয়েই যাচ্ছে। জাতিকে বিভ্রান্ত করার নানা চক্রান্ত করছে। মিথ্যাচারের বেড়াজাল থেকে মুক্ত হতে পারেনি বিএনপি। 
জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম প্রশ্ন রেখে বলেন, ১৮ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন ব্যয় কমিয়ে কী লাভ হলো? গত এক বছরে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে প্রায় এক বিলিয়ন ডলার। প্রায় ২০৫ মিলিয়ন ডলার জ্বালানি খাতে বিদেশীদের কাছে পাওনা রয়েছে। বাংলাদেশ বিমানও ২১৪ মিলিয়ন ডলার পরিশোধ করতে পারেনি। এবারও গণহারে ট্যাক্স বাড়ানো হলেও করপোরেট ট্যাক্স কমানো হয়েছে। বাস্তবতা হচ্ছে বড়লোকদের ধরতে হলে ট্যাক্স কাঠামো আধুনিক করতে হবে। 
কাজী নাবিল আহমেদ বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভিসানীতি থেকে বিএনপি উৎফুল্ল হয়ে মনে করছে তাদের ক্ষমতায় বসাবে। কিন্তু বাস্তবতা ঠিক উল্টো। বিএনপি এখন নিজেদের জালে নিজেরাই ধরা পড়েছে। নির্বাচনে না এসে বিএনপির সামনে এখন আর কোনো উপায় নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্টভাবেই বলেছেন যে, আগামী নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। তাই তাদের আর ধ্বংসাত্মক বা ষড়যন্ত্রের পথে গিয়ে কোনো লাভ হবে না।
শহীদুজ্জামান সরকার বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ২০তম বাজেট দিয়ে এক অনন্য উদাহরণ সৃষ্টি তৈরি করেছে। বিশ্বের কোনো দেশে এমন উদাহরণ আছে কিনা, আমার জানা নেই। বাজেট দিলেই কিছু মানুষ আছে তারা বলে বেড়ায় এই বাজেট বাস্তবায়ন অসম্ভব। কিন্তু বাজেট বাস্তবায়ন করে সরকার নিন্দুকদের উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।

×