ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

​​​​​​​যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি

মহাসড়কে হাইভোল্টের বৈদ্যুতিক খুঁটি

মো. খলিলুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত: ২০:৫৯, ২১ জুন ২০২৪

মহাসড়কে হাইভোল্টের  বৈদ্যুতিক খুঁটি

সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় বাসস্ট্যান্ডে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর হাইভোল্টের একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি অত্যন্ত বিপজ্জনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। যে কোনো সময়

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৪নং ওয়ার্ডের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড় বাসস্ট্যান্ডে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ওপর হাইভোল্টের একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি অত্যন্ত বিপদজনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। হাইভোল্টের বৈদ্যুতিক খুঁটিটি এখন যানবাহন চলাচলের সময় মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। খুঁটিটির কারণে দূরপাল্লার যাত্রীবাহী এসি ননএসিযুক্ত অত্যাধুনিক যাত্রীবাহী বাসসহ নানা ধরনের যানবাহন চলাচলে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। খুঁটিটি কারণে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। বুধবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে খুঁটিটির কারণে যানবাহন চলাচলে চরম বাধা সৃষ্টি হতে দেখা গেছে। এতে স্থানীয় বাসিন্দারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। জরুরি ভিত্তিতে স্থানীয়রা ব্যস্ততম মহাসড়কের ওপর থেকে খুঁটি অন্যত্র সরানোর জোর দাবি জানান।

জানা যায়, শিমরাইল মোড়টি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের একটি গুরুত্বপূর্ণ একটি বাসস্ট্যান্ড। বাসস্ট্যান্ড অতিক্রম করে ঢাকা, চট্টগ্রাম সিলেট বিভাগের ১৮টি জেলার দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসসহ নানা ধরনের যানবাহন চলাচল করছে। সওজ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটি এখন ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর ব্রিজ পর্যন্ত আট লেনের মহাসড়কে পরিণত করা হয়েছে। জন্য মহাসড়কটি প্রশস্ত করা হয়েছে। মহাসড়কটি প্রশস্ত করার সময় শিমরাইল মোড়ের হাইভোল্টের একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি মহাসড়কের ওপর রেখেই আরসিসি ঢালাই করা হয়। বৈদ্যুতিক খুঁটিটি এখন চট্টগ্রামমুখী লোকাল দুই লেনের মাঝে পড়েছে। স্থানীয়দের দাবি দীর্ঘ এক বছর ধরে খুঁটিটি বিপদজনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে। খুঁটিটি মাঝে রেখেই উভয় সাইট দিয়ে দূরপাল্লার যানবাহনসহ নানা ধরনের যানবাহন চলাচল করছে।

ছাড়াও ডেমরা-শিমরাইল সড়কটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের খুঁটির কাছ দিয়েই মিলেছে। তাই খুঁটিটি এখন যানবাহন চালক যাত্রীদের জন্য মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। খুঁটিটির কারণে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় দুর্ঘটনা। বিশেষ করে রাতে বেলা খুঁটি আরও বিপদজনক হয়ে পড়ছে। স্থানীয়রা জানান, খুঁটিটি ডিপিডিসির অধীনে রয়েছে। খুঁটি দিয়ে হাইভোল্টের বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয়েছে। ডেমরা-শিমরাইল সড়কের যানবাহনগুলো ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে প্রবেশের সময় খুঁটির কারণে যানবাহনগুলো বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। সবচেয়ে অসুবিধায় পড়েছে ডেমরা-শিমরাইল সড়কে চলাচলরত যানবাহনগুলো। শিমরাইল মোড়ের একটি দূরপাল্লার কাউন্টারের টিকিট বিক্রেতা বেলাল হোসেন বলেন, শিমরাইল মোড়ে শতাধিক দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসের কাউন্টার রয়েছে। কারণে যাত্রী উঠাতে দূরপাল্লার বাসগুলোর লোকাল লেনে এসে আসতে হয়। তখন মহাসড়কের ওপর বিপদজনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকা বৈদ্যুতিক খুঁটিটি নানাভাবে বাধাগ্রস্ত করছে। বিশেষ করে রাতের বেলা খুঁটিটি আরও বিপদজনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকে। শিমরাইলের দোকানি আবু তালেব বলেন, হাইভোল্টের খুঁটিটিতে একটি যানবাহন ধাক্কা দিয়েছিল। তাই খুঁটিটি মাঝ দিকে একটু ক্ষতিও হয়েছে।

শিমরাইল হাইওয়ে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ট্রাফিক পরিদর্শক (টিআই) একেএম শরফুদ্দিন বলেন, বৈদ্যুতিক খুঁটিটির কারণে গাড়ি ঘুরতে পারে না। যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। রাতে বেলা যদি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে কোনো যানবাহন ধাক্কা লাগে তবে বৈদ্যুতিক তার ছিড়ে বড় ধরনের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এটি মহাসড়কের পাশে সরানো হলে নির্বিঘ্নে যানবাহন চলাচল করতে পারবে।

সড়ক জনপথ অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. নূরে আলম শিমরাইল মোড়ের বৈদ্যুতিক খুঁটিটি বিপদজনক অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকার স্বীকার করে বলেন, আগামী দুই মাসের মধ্যে বৈদ্যুতিক খুঁটিটি অন্যত্র সরানোর ব্যবস্থা করা হবে। সড়ক জনপথ অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহানা ফেরদৌস বলেন, মহাসড়কের ওপর বৈদ্যুতিক খুঁটিটি সরানোর জন্য ডিপিডিসিকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। শীঘ্রই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

×