ঢাকা, বাংলাদেশ   সোমবার ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

যাত্রীদের বিড়ম্বনা

ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে নিত্য যানজট

মো. খলিলুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ

প্রকাশিত: ২২:১৮, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে নিত্য যানজট

ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ায় যাত্রীদের ভোগান্তি চরমে

ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের বিভিন্ন স্থানে প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হচ্ছে তীব্র যানজট। এ যানজটের কবল পড়ে যাত্রীরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন। এ সড়কের বিভিন্ন স্থানে যানজটে আটকে থেকে যাত্রীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা কর্ম সময় নষ্ট করছেন। সড়কের উভয় পাশে অবৈধ পার্কিং, স্ট্যান্ড, হাটবাজার, অবৈধ যানবাহন, দোকানপাট, ইট, বালু ও পাথরের গথিসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকায় এ সড়কের যানজটের মূল কারণ বলে স্থানীয়রা জানান। এ ছাড়াও এ সড়কের প্রতিটি স্থানে ট্রাফিক পুলিশের না থাকায় যানজট আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। স্থানীয় বাসিন্দারা এ সড়কের যানজটের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জোর দাবি জানান।
জানা যায়, এক সময় রাজধানী ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জের পাগলা, ফতুল্লা ও পঞ্চবটিসহ নারায়ণগঞ্জ শহর এলাকায় চলাচলের প্রধান সড়ক ছিল ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কটি। বর্তমানে এ সড়কটি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ-পাগলা-ফতুল্লা-পঞ্চবটি সড়ক নামে অবহিত করা হচ্ছে। এ সড়কে পঞ্চবটি মোড় থেকে ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়ক শুরু হয়েছে। মুন্সীগঞ্জ শহরসহ বিভিন্ন এলাকার লোকজন যাত্রীবাহী বাসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহনে করে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়ক দিয়েই রাজধানী ঢাকায় চলাচল করছে।

এছাড়া বিসিক শিল্পনগরী, ফতুল্লা শিল্পাঞ্চল, মুক্তারপুরের অসংখ্য সিমেন্ট ফ্যাক্টরির যানবাহন এ সড়ক দিয়েই চলাচল করছে। এছাড়া পঞ্চবটির মোড়ের অদূরেই রয়েছে যমুনা ও মেঘনা অয়েলের দুটি ডিপো। এ দুটি ডিপো থেকে জ¦ালানি তেল নিয়ে অসংখ্য ট্যাঙ্কলরি এ সড়ক দিয়েই চলাচল করছে। এছাড়াও এ দুটি ডিপোর সামনের সড়কে অসংখ্য জ্বালানি তেলবাহী ট্যাঙ্কলরি দিনভর দাঁড়িয়ে থাকে। এদিকে ছাড়াও দাপা ইদ্রাকপুর ও পাগলা এলাকায় রাস্তার দুপাশে পাথর, ইট ও বালুর গদি রয়েছে। প্রায় প্রতিটি গদির সামনেই দাঁড়িয়ে থাকে লোড-আনলোডের অপেক্ষায় অসংখ্য ট্রাক। আর এতে করেই এ সড়কটি সরু হয়ে যাওয়ায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। এছাড়াও এ সড়কে ইদানীং ব্যাটারি চালিত রিক্সা ও অটো রিক্সাসহ বিভিন্ন ধরনের অবৈধ যানবাহন চলাচলের কারণেও এ সড়কটি সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

এতে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে এ সড়কের বিভিন্ন পরিবহনের যাত্রী, চালক ও পরিবহন শ্রমিকদের। পঞ্চবটি এলাকায় গিয়ে জানা যায়, পঞ্চবটি মোড়ের যানজটের মূল কারণ হচ্ছে চৌরাস্তা। চারদিক থেকে বাস, ট্রাক, কাভার্ডভ্যান প্রাইভেট কার পঞ্চবটি মোড়ে এসে মিলিত হয়। ফলে গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। এখানকার যানজটের আরেকটি প্রধান কারণ হচ্ছে অবৈধ স্ট্যান্ড ও পার্কিং। পুরো মোড়কে ঘিরেই বাস, সিএনজি ও অটোরিক্সার স্ট্যান্ড রয়েছে। তাছাড়া রাস্তার পাশের অবৈধ দোকানপাটেরও কারণেও যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। বিশেষ করে এ সড়কের চাষাঢ়া, পঞ্চবটি, ফতুল্লা, দাপা ইদ্রাকপুর, আলীগঞ্জ ও পাগল এলাকায় প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, পাগলা বাসস্ট্যান্ড থেকে উভয় দিয়ে কয়েক কিলোমিটার পর্যন্ত তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সময় যাত্রীবাহী বাস, ট্রাক, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস ও অটোসহ নানা ধরনের যানাহন রাস্তায় আটকে থাকায় যাত্রী ও পরিবহনের শ্রমিকরা চরম বিড়ম্বনায় পড়তে বাধ্য হন। পাগলা বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিন বলেন, পাগলা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হচ্ছে যানজট।

এতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে যাত্রীদের অলস সময় কাটাতে হচ্ছে। কিন্তু পাগলা এলাকায় কোন যানজট সৃষ্টি হলেও ট্রাফিক পুলিশকে যানজট নিরসনে কাজ করতে দেখা যায় না। দাপা এলাকার বাসিন্দা আবুল কাশেম বলেন, দাপা এলাকার সড়কের উভয় পাশে রয়েছে ইট, বালু, সুরকি ও পাথরের গদি।
তাই এ সকল গদি থেকে মালামাল বহনকারী যানবাহন চলাচল করায় এ সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এ যানজটের কারণে ভোগান্তি পড়ছে সড়কের আশপাশের বাসিন্দারাও। রেহাই পাচ্ছে না স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরাও। আলীগঞ্জের কলেজ ছাত্রী আজিজুল হক বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে প্রতিনিয়ত যানজট থাকায় সময়মতো রাজধানী ঢাকায় গিয়ে কলেজের ক্লাস করতে পারছি না। এছাড়াও যানজটের কারণে সময়মতো বাসাও ফিরতে বিলম্ব হচ্ছে। পঞ্চবটি এলাকার বাসিন্দা সাইফ হোসেন বলেন, ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কটি এখনো দুই লেনেই রয়েছে। আশপাশের সড়কগুলো চার লেন থেকে ছয় লেনও উন্নতি করা হচ্ছে। অথচ এ সড়কটি এখনো দুই লেনেই রয়েছে। আগের চেয়ে এ সড়কে যানবাহন চলাচল বহুগুণ বেড়েছে কিন্তু সড়কের প্রশস্ততা বাড়েনি। তাই এ সড়কে প্রতিনিয়ত যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। স্থানীয় বাসিন্দারা এ সড়কের যানজটের অভিশাপ থেকে মুক্তি দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানান।
ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন এ সড়কের তীব্র যানজট সৃষ্টি হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কের যানজট নিরসন ও এ সড়কটি ফোর লেন সড়কে উন্নতি করার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সোহান সরকার বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানসহ পণ্যবাহী যানবাহন বেশি চলাচল করায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়াও এ সড়কটি এখনো দুই লেনের সড়ক। এ কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। আমরা যানজট নিরসনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।

 

×