সোমবার ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

চট্টগ্রামে টিকা নিলেন সাড়ে ৩ লাখ মানুষ

চট্টগ্রামে টিকা নিলেন সাড়ে ৩ লাখ মানুষ
  • উৎসবমুখর আমেজ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দেশজুড়ে বিশেষ টিকা ক্যাম্পেনের দ্বিতীয় ডোজ নিতে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলায় ছিল উৎসবমুখর আমেজ। সারিবদ্ধভাবে টিকাগ্রহীতারা দ্বিতীয় ডোজের ভ্যাকসিন নিয়েছেন। বিশেষ ক্যাম্পেনের আওতায় লাখ লাখ মানুষকে টিকাকরণের আওতায় নিয়ে আসায় করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

বিশেষ এই ক্যাম্পেনের আওতায় সিনোফার্মের ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছিল সারাদেশে। চট্টগ্রামে গত ২৮ সেপ্টেম্বর মোট সাড়ে তিন লাখ মানুষকে এই ক্যাম্পেনের মাধ্যমে টিকা আনা হয়। গত বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে নির্ধারিত কেন্দ্রে এ টিকাদান শুরু হয়।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্যমতে, নগরীর ৪১ ওয়ার্ডে এই কার্যক্রম চলছে। প্রতি ওয়ার্ডের তিনটি কেন্দ্রে (প্রতি কেন্দ্রে ৫শ’ ভ্যাকসিন) মোট দেড় হাজার করে ভ্যাকসিন দেয়া হয়। গত ২৮ সেপ্টেম্বর একদিনে ৬০ হাজার ৭০২ জনকে প্রথম ডোজ দেয়া হয়েছিল। অন্যদিকে ১৫ উপজেলায় একইদিন ২ লাখ ৮৬ হাজার ৭১৬ জন সিনোফার্মের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছিল। সেই লক্ষ্যমাত্রায় দ্বিতীয় ডোজ নিতে কেন্দ্রে কেন্দ্রে টিকাগ্রহীতাদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়।

সরেজমিনে নগরীর ৩৪ নম্বর পাথরঘাটা ওয়ার্ডের জে.ডি সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, সুশৃঙ্খলভাবে টিকা নিচ্ছেন এলাকার বাসিন্দারা। সেখানে কথা হয় কৌশিক দাশের সঙ্গে। তিনি জানান, বাসার পাশেই টিকাকেন্দ্রে ভ্যাকসিন নিয়েছি। বৃদ্ধ মা-বাবাকে নিয়ে দৌড়ঝাঁপ করতে হয়নি। সরকারের শুভ উদ্যোগ এটি। অপরদিকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় উৎসবমুখরভাবে টিকা গ্রহণ করতে এসেছেন গ্রামের প্রান্তিক মানুষজন। করোনা থেকে বাঁচতে লোকজনের টিকাগ্রহণের ইতিবাচক সাড়া পাওয়া গেছে। অথচ দেশে টিকাদান শুরু হলে প্রথমে গ্রামের মানুষের আগ্রহ তেমন ছিল না।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী জানান, জেলার ২০০ ইউনিয়নে নির্ধারিত কেন্দ্রেই মানুষ টিকা নিয়েছে উৎসবমুখর পরিবেশে। কিছু কেন্দ্রে বিকালের পরও কার্যক্রম অব্যাহত আছে। অনেক চাকরিজীবী আছেন, কেউ ব্যস্ততায় সকালে আসতে পারেনি তাদের জন্য বিকালের পরও টিকা দেয়া হয়। আমরা নির্দিষ্ট কেন্দ্রে নির্ধারিত টিকাগ্রহীতাকে টিকা দিচ্ছি। যারা ২৮ সেপ্টেম্বর টিকা নিয়েছিল বিশেষ টিকা ক্যাম্পেনে তাদের টিকা দেয়া হয়েছে। তবে নতুন কাউকে এই ক্যাম্পেনের আওতায় আনা হয়নি।

টিকাকরণের কারণে বর্তমানে সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে উল্লেখ করে চট্টগ্রাম জেলার সাবেক সিভিল সার্জন মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সরফরাজ খান চৌধুরী বাবুল জানান, প্রধানমন্ত্রীর কারণে আজ তৃণমূল পর্যায়ে বাড়ির পাশের কেন্দ্রে টিকা পেয়েছে লোকজন। একসঙ্গে লাখ লাখ মানুষকে টিকাকরণ ছোট বিষয় নয়। যেখানে অনেক দেশের জনগণ টিকা পায়নি, সেখানে আমাদের দেশে উৎসবমুখরভাবে টিকাকরণ চলছে। করোনা প্রতিরোধে সরকার ভ্যাকসিন দিয়ে জনগণকে সুরক্ষিত রাখছে। সকলের উচিত স্বাস্থবিধি মেনে এবং মাস্ক পরিধান করে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের সহায়তা করা। উল্লেখ্য, জেলায় সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় ২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে নগরীর ১৫ ও উপজেলার ৫ জন। একই দিন নগরীর একজন করোনা রোগী মারা গেছে। এই নিয়ে চট্টগ্রামে মারা গেছে মোট ১ হাজার ৩২২ জন। করোনা আক্রান্ত হয়েছে চট্টগ্রাম জেলায় সর্বমোট ১ লাখ ২ হাজার ২০২ জন।

শীর্ষ সংবাদ:
দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে         ব্যাটিং ব্যর্থতায় ম্লান বোলিং সাফল্য         মিল্কি ওয়ের প্রথম ‘পালক’         সরকারী কাস্টডিতে নেই খালেদা, তিনি মুক্ত         ঢাকায় বিশ্ব শান্তি সম্মেলন ৪ ডিসেম্বর শুরু         ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্ক অবস্থায় সারাদেশ         সাদা পোশাকে দেশে সবার ওপরে মুশফিক         সাগরে জলদস্যুতায় যাবজ্জীবন দন্ড         গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ৪১ বছর পূর্তির আয়োজন         কুয়েতে পাপুলের সাত বছরের কারাদন্ড         পাকি প্রেম দূরে রাখুন         বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ         ‘মোকাবেলা করে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে ’         তৃতীয় ধাপের সহিংসতাহীন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে দাবি ইসির         করোনা : গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু ৩         করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সতর্কবার্তা         পরিবহন সেক্টর কার নিয়ন্ত্রণে : জি এম কাদের         সংসদে নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন আনা হচ্ছে শিগগিরই ॥ আইনমন্ত্রী         বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী সৌদির ৩০ কোম্পানি         আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে নগর পরিবহন চালু সম্ভব নয় : মেয়র তাপস