বৃহস্পতিবার ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ২৯ অক্টোবর ২০২০ ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রচ্ছদ
অনলাইন
আজকের পত্রিকা
সর্বশেষ

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতে দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানই একমাত্র পথ

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতে দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানই একমাত্র পথ

অনলাইন ডেস্ক ॥ আরব বিশ্ব এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের চারটি দেশ বলেছে, দীর্ঘদিনের ইসরায়েল-ফিলিস্তিনের সংঘাত অবসানের একমাত্র পথ দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান। এই সংঘাতের সমাধানে উভয় পক্ষকে আলোচনার টেবিলে বসার আহ্বান জানিয়েছে ওই চার দেশ।

বৃহস্পতিবার ফ্রান্স, মিসর ও জর্ডানের পররাষ্ট্র মন্ত্রীরা আম্মানে এক বৈঠকে মিলিত হন। পরে জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রীও অনলাইনে এই বৈঠকে যোগ দেন। বৈঠক থেকে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের অবসানে দ্বিরাষ্ট্রীয় সমাধানই একমাত্র পথ বলে মন্তব্য করেন তারা।

বৈঠকের পর জর্ডানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আয়মান আল-সাফাদি সাংবাদিকদের বলেন, দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের ভিত্তিতে এই সংঘাতের অবসান ছাড়া কোনও ধরনের ব্যাপক ও স্থায়ী শান্তি আসবে না।

ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জিন-ইভেস লে দ্রিয়ান জর্ডানের মন্ত্রীর সঙ্গে ঐক্যমত পোষণ করে বলেন, এ ছাড়া ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের অন্য কোনও সমাধান নেই। সংলাপের জন্য ফিলিস্তিনি এবং ইসরায়েলিদের অঙ্গীকার প্রমাণ করা দরকার। আমরা এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য সমর্থন জানাতে প্রস্তুত রয়েছি।

সম্প্রতি ইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে স্বাক্ষরিত চুক্তির প্রশংসা করেছেন ওই চার দেশের মন্ত্রীরা। ওই অঞ্চলে শান্তি সম্ভব সেটি এই চুক্তির মাধ্যমে পরিষ্কার হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তারা।

মিসরের পররাষ্ট্র মন্ত্রী সামেহ শোকরি বলেন, বৃহৎ শান্তিতে পৌঁছানোর লক্ষ্যে আরও সমর্থন এবং আলোচনার জন্য এই চুক্তি গুরুত্বপূর্ণ এক অগ্রগতি।

আরব বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ১৯৭৯ সালে ইসরায়েলের সঙ্গে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর করে মিসর। পরে ১৯৯৪ সালে একই পথ অনুসরণ করে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে জর্ডান। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতায় হোয়াইট হাউসে ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইন।

তবে ফিলিস্তিন শুরু থেকেই ইসরায়েলের সঙ্গে আরব বিশ্বের দেশগুলোর কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের উদ্যোগের কড়া নিন্দা জানিয়ে আসছে। ইসরায়েলের সঙ্গে এসব চুক্তির মাধ্যমে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হচ্ছে বলে সমালোচনা করছেন ফিলিস্তিনিরা। সূত্র: আলজাজিরা, এএফপি।

শীর্ষ সংবাদ:
হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর শিক্ষা সমগ্র মানব জাতির জন্য অনুসরণীয় : রাষ্ট্রপতি         মশক নিধনে চিরুনি অভিযান শুরু করছে ডিএনসিসি         শিক্ষা, অর্থনীতিসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে মানুষকে স্বনির্ভর করব ॥ প্রধানমন্ত্রী         ঈদে মিলাদুন্নবীতে সারাদেশে ব্যাপক আয়োজন         সুনীল অর্থনীতি বাস্তবায়নে সরকার প্রয়োজনীয় সবকিছুই করবে : প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী         মুক্তিযোদ্ধাদের নামের আগে ‘বীর’ লিখার বিধান করে গেজেট         খুলনায় হত্যা মামলায় ৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড         ডিআইজি প্রিজনস বজলুর রশীদ জামিন পেলেন         তাঁত, বস্ত্র ও কারু শিল্পকে বিস্তৃত করতে হবে : শিল্পমন্ত্রী         করোনা ভাইরাসে আরও ২৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৬৮১         শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ল ১৪ নবেম্বর পর্যন্ত         ৮ ব্যক্তি ১ প্রতিষ্ঠান পেল স্বাধীনতা পুরস্কার         মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আনোয়ার খান জুনো আর নেই         ছাত্রলীগের দাবিতে ঢাবি উন্নয়ন ফি কমলো অর্ধেক         আওয়ামী লীগ কারো বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে না; বরং বারবার ষড়যন্ত্রের স্বীকার হয়েছে ॥ কাদের         বঙ্গবন্ধুই দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন ॥ এলজিআরডি মন্ত্রী         আগামী বছর এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি বুঝে         মেক্সিকোতে গোপন কবরের সন্ধান ॥ ৫৯ মৃতদেহ উদ্ধার         ভিয়েতনামে টাইফুনের পর ভূমিধস, নিহত ১৩         ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপাল বণিকের অভিযোগ গঠন শুনানি পেছাল